banglanewspaper

১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে ক্যামেরনের শেষ নৈশভোজের মেনু কী ছিল জানেন? কোনও ব্রিটিশ খাবার নয়, বরং ভাত, নান রুটি থেকে হায়দরাবাদি জাফরানি মুরগির মাংস এবং শিঙাড়া দিয়ে সেজে উঠেছিল খাবার টেবল। মেনুর আগাগোড়াই ছিল ভারতীয় খাবার! 

ওয়েস্টমিনস্টারের এক জনপ্রিয় রেস্তোরাঁ থেকে তিন-তিনটি বড় ব্যাগ বোঝাই করে এই খাবার সোজা পৌঁছে গিয়েছিল ক্যামেরন দম্পতির ডিনার টেবলে।

ক্যামেরন নাকি বরাবরই ভারতীয় কারির ভক্ত। তাই বিদায়ী দিনেও তা দিয়েই নৈশভোজ সারলেন ক্যামেরন দম্পতি। ডাউনিং স্ট্রিটের শেষ ডিনারটা ক্যামেরন দম্পতি আনিয়েছিলেন ওয়েস্টমিনস্টারের জনপ্রিয় রেস্তোরাঁ ‘কেনিংটন তন্দুরি’ থেকে। ক্যামেরনের ইচ্ছামতোই খাবারের একটা লম্বা তালিকা পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল এই রেস্তোরাঁয়। তালিকা মিলিয়ে ‘কেনিংটন  তন্দুরি’ও হুবহু তা-ই পাঠিয়ে দেয় বিদায়ী প্রধানমন্ত্রীর বাড়িতে। পরে টুইট করে তা জানায় কেনিংটন তন্দুরি।

রেস্তোরাঁর ব্যবস্থাপক কাউসার হক জানান, ক্যামেরন প্রায়ই তাঁদের রেস্তোরাঁ থেকে খাবার আনিয়ে থাকেন। ওই দিন তিনি ভাত, নান রুটি, পালক পনির, চিকেন ঝালফ্রাই, কেটি মিক্সড গ্রিল (ভেড়া ও মুরগির মাংস ভাজা), হায়দরাবাদের জাফরানি মুরগির মাংস, শিঙাড়া সমেত আরও বেশ কিছু খাবার অর্ডার করেছিলেন। বুধবারই হাউস অব কমন্সে প্রধানমন্ত্রীর শেষ প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশগ্রহণ করেছিলেন ক্যামেরন। 

তারপর বিকেলে বাকিংহ্যাম প্যালেসে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন তিনি। ডাউনিং স্ট্রিটের এই ঠিকানায় এখন নতুন প্রধানমন্ত্রী টেরেসা। তবে আর আগের মতো ‘কেনিংটন তন্দুরি’ থেকে মাঝেমধ্যেই জিভে জল আনা ভারতীয় খাবার এই বাড়িটায় ঢুকবে কি না বোঝা যাচ্ছে না। কারণ নতুন প্রধানমন্ত্রী যে রান্না করতে ভালবাসেন!

ট্যাগ: