banglanewspaper

সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের দপ্তর দেশটির একটি বিমান ঘাঁটিতে মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্র হামলাকে ‘বেপরোয়া ও কাণ্ডজ্ঞানহীন আচরণ’ বলে নিন্দা জানিয়েছে। এক বিবৃতিতে ওই দপ্তর বলেছে, উগ্র তাকফিরি সন্ত্রাসীদের একটি মিথ্যা প্রচারণার ফাঁদে পা দিয়ে মার্কিন বাহিনী ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে।

সিরিয়ার ইদলিব প্রদেশে গত মঙ্গলবার এক রাসায়নিক হামলায় অন্তত ৮০ ব্যক্তি নিহত হয়। উগ্র তাকফিরি জঙ্গি গোষ্ঠীগুলো অভিযোগ করে প্রেসিডেন্ট বাশার আসাদ সরকার এ হামলা চালিয়েছে। এরপর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প একই অভিযোগ করেন এবং ওই অভিযোগের সূত্র ধরে শুক্রবার ভোররাতে হোমস প্রদেশের বিমান ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় মার্কিন নৌবাহিনী।

প্রেসিডেন্ট আসাদের দপ্তর থেকে প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মার্কিন হামলার ফলে বিদেশি মদদপুষ্ট জঙ্গিদের বিরুদ্ধে নির্মূল অভিযান চালাতে আরো বেশি দৃঢ়সংকল্প হয়েছে দামেস্ক।  এখন থেকে আরো দ্রুততার সঙ্গে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে শুদ্ধি অভিযান চলবে বলে বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

এদিকে সিরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় শুক্রবারের মার্কিন হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেছে, সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে সিরিয়ার সেনাবাহিনীকে দুর্বল করে ফেলার লক্ষ্যেই মূলত এ আগ্রাসন চালিয়েছে মার্কিন বাহিনী।

সিরিয়ার সেনাবাহিনীর ওপর এর আগের এক হামলাকে বৈধতা দিতে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে এ আগ্রাসন চালানো হয়েছে বলে ওই মন্ত্রণালয় জানিয়েছে। এটি বলেছে, মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্র হামলা ছিল একটি স্বাধীন সার্বভৌম দেশের বিরুদ্ধে প্রকাশ্য আগ্রাসন। -পার্সটুডে।

ট্যাগ: