banglanewspaper

কে.এম.লিমন, গোয়াইনঘাটঃ সিলেটের গোয়াইনঘাটে অজ্ঞাত কারণে দীপা দাস নামক এক স্কুল ছাত্রী ও পারিবারিক কলহের জের ধরে কুলছুমা বেগম নামের অপর আরেক গৃহবধু আত্মহত্যা করেছে। গতকাল সোমবার দুপুরে ও রোববার গভীর রাতে পৃথক এ আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে। 

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গতকাল দুপুরে পরিবারের লোকজনের অজান্তে উপজেলার আলীর গাঁও ইউনিয়নের নয়াখেল বামরী গ্রামের হরিদাসের মেয়ে ও স্থানীয় সারীঘাট উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী দীপা দাস (১৫) অজ্ঞাত কারণে ঘরের তীরের সাথে ওরনা পেচিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। 

অপরদিকে পারিবারিক কলহের জের ধরে উপজেলার রুস্তমপুর ইউনিয়নের জারিখেলকান্দি গ্রামের ফারুক আহমেদ'র স্ত্রী কুলছুমা বেগম (৩০) রোববার গভীর রাতে পরিবারের সবার অজান্তে বসত ঘরের তীরের সাথে গলায় ওরনা পেচিয়ে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। পৃথক আত্মহত্যার খবর পেয়ে গতকাল সোমবার থানার এস আই সমিরন দাস ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন।

থানার ওসি মো. দেলওয়ার হোসেন পৃথক দুটি আত্মহত্যার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন পারিবারিক কলহের জের ধরে কুলছুমা আত্মহত্যা করেছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে। অপরদিকে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যার ঘটনাটি অজ্ঞাত রয়েছে বলে জানান তিনি। 
এব্যাপারে থানায় পৃথক দু’টি অপমৃত্যুর মামলা রুজু করা হয়েছে।
 

ট্যাগ: