banglanewspaper

বাল্টিক অঞ্চলের নেতাদের সাথে রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে চলমান সংকট নিয়ে আলোচনা করতে এবং ন্যাটো সম্মেলনে অংশ নিতে এস্তানিয়ায় পৌঁছেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

ওবামা সেখানে এস্তোনিয়ার রাজধানী তাল্লিনে দেশটির প্রেসিডেন্টসহ লাটভিয়া এবং লিথুনিয়ার প্রেসিডেন্টদের সাথে এ সংকট নিয়ে আলোচনা করবেন বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, এ তিনটি দেশ ২০০৪ সাথে ন্যাটোর সদস্যপদ লাভ করে। যারা ইউক্রেনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপে বেশ উদ্বিগ্ন হয়ে পরেছেন।

এরপর চলতি সপ্তাহের শেষে ওবামা ন্যাটো সম্মেলনে যোগ দিবে। যেখানে রাশিয়া-ইউক্রেনের বিষয়ে বিভিন্ন পরিকল্পনা উপস্থাপন করা হবে এবং তার পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ন্যাটো সেনা প্রেরণ করা হতে পারে।

ন্যাটো সম্প্রতি পূর্ব ইউরোপীয় দেশগুলোকে রাশিয়ার অপাগ্রাসন থেকে রক্ষার জন্য সেখানে সৈন্য প্রেরণের সিদ্ধান্ত জানিয়েছে।

ন্যাটোর এ ধরনের সিদ্ধান্তের বিপরীতে রাশিয়া তার প্রতিক্রিয়ায় জানিয়েছে, রাশিয়া তার সামরিক কৌশল বদলাতে পারে যেখানে ন্যাটোর অবকাঠামো রাশিয়ার সীমান্তের কাছাকাছি আসার চিত্র প্রতিফলিত হবে।

এর আগে ক্রেমলিনের উপদেষ্টা মিখাইল পপভ জানিয়েছেন, ইউক্রেন বিষয়ে রাশিয়ার নতুন সামরিক কৌশলে যুক্তরাষ্ট্র এবং রাশিয়ার সাথে দেশটির সম্পর্ক অবনতির প্রতিফলন দেখা যাবে।

গত সোমবার ন্যাটো জানিয়েছে ইউরোপের পূর্ব সীমান্তে ন্যাটো বাহিনীর উপস্থিতি বাড়ানো হবে। পূর্ব ইউক্রেনে সে দেশের সেনাবাহিনী গত কয়েকদিন ধরে রাশিয়াপন্থীদের সাথে যুদ্ধ করছে।

গত সোমবার ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী অভিযোগ করে বলেন, এ এলাকায় রাশিয়া ‘বড় ধরনের যুদ্ধ’ শুরু করেছে। যাতে লাখ লাখ সাধারণ মানুষ ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে। তবে রাশিয়া ইউক্রেনের এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

ট্যাগ:

আন্তর্জাতিক
সেই জাপানি মায়ের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ

banglanewspaper

বাবাকে সন্তানদের সাথে দেখা করতে না দেওয়ায় আদালত অবমাননা হয়েছে বলে শিশুদের জাপানি মা এরিকো নাকানোর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সোমবার প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগে শিশুদের বাবা বাংলাদেশি নাগরিক ইমরান শরীফের পক্ষে এ আবেদন করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ব্যারিস্টার আখতার ইমাম। তাকে সহযোগিতা করেন ব্যারিস্টার রাশনা ইমাম এবং অ্যাডভোকেট কামাল হোসেন।

গত ১৩ ফেব্রুয়ারি এক রায়ে আপিল বিভাগ নির্দেশ দেন, পিতার অধিকার রয়েছে একটি সুবিধাজনক সময়, স্থান এবং সময়কালে বাচ্চাদের সাথে দেখা করার। তবে এই তিন নির্দেশের কোনটাই মানেননি জাপানি মা এরিকো নাকানো। এ ঘটনায় বাবা ইমরান শরীফের আইনি দল একাধিক প্রস্তাব দিলেও কোন সাড়া দেননি তিনি। পরে বাবা ইমরান শরিফ নিজেও অনেকবার এরিকোর সাথে কথা বলার চেষ্টা করেছেন। কিন্তু এরিকো সব অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করেন এবং এরিকোর আইনজীবীদের সাথে কথা বলার জন্য ইমরানকে নির্দেশ দেন। 

ইমরানের আইনজীবী অ্যাডভোকেট কামাল হোসেন বলেন, যতবার আমরা পরিদর্শন নিয়ে আলোচনার চেষ্টা করেছি, তারা আমাদের এমন প্রস্তাব দিতে থাকে যা মোটেও বাস্তব বা বাস্তবসম্মত নয়। তারপর তারা বিভিন্ন তালবাহানা করতে থাকে এবং সর্বশেষে কোন পরিদর্শনের অনুমতি দেননি।

এদিকে ১২ এপ্রিল আপিল বিভাগের রায়ে ওই সন্তানদেরকে বাংলাদেশের আদালতের এখতিয়ারের বাইরে নেওয়া যাবে না বলে নির্দেশ দেওয়া হয়। এতে বলা হয়, হাইকোর্টের হেবিয়াস কর্পাস (মামলা) এর আবেদনে বিবেচনার জন্য সংক্ষিপ্ত তদন্তের উদ্দেশ্যে এবং পারিবারিক আদালতে বিচারাধীন হেফাজতের কার্যধারায় (এটি) উভয় পক্ষের কোন সহায়তায় আসবে না, যা প্রকৃতপক্ষে নিজের (হেফাজতের কার্যধারার) যোগ্যতার উপর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এছাড়া পূর্ণাঙ্গ রায়ে বলা হয়, এই ঘটনায় সর্বোচ্চ বিবেচনা হলো অপ্রাপ্তবয়স্কদের কল্যাণ যা এই বা সেই নির্দিষ্ট পক্ষের আইনি অধিকার নয়।

প্রসঙ্গত, ২০২১ সালের ১৭ আগস্ট হাইকোর্টে হেবিয়াস কর্পাসের আবেদন করেছিলেন এরিকো। একারণে বাবা ইমরান শরীফকে হেফাজত দেওয়া হয়। পরে আপিল বিভাগ পিতা ইমরান শরীফের দায়ের করা পারিবারিক মামলা নং ২৪৭/২০২১এ হেফাজতের সিদ্ধান্তের জন্য আদেশ দেন এবং এতে সন্তানদের মায়ের সাথে থাকতে নির্দেশ দেয়া হয়। এই মায়ের সাথে থাকার সময়, এরিকো বাবার সাথে কোন প্রকারের সাক্ষাৎ করতে দেননি, যার ফলে ইমরান শরীফ আদালত অবমাননার উক্ত মামলাটি দায়ের করেন।

ট্যাগ:

আন্তর্জাতিক
শ্রীলঙ্কায় শপথ নিচ্ছেন আরও ১৬ মন্ত্রী

banglanewspaper

প্রবল অর্থনৈতিক সংকটে বিপর্যস্ত শ্রীলঙ্কা সরকারের নতুন মন্ত্রীসভার আরও কয়েকজন সদস্য শপথ নিবেন। স্থানীয় দৈনিক নিউজ কাটারের প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে ও প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহের সরকারে আজ ১৬ জন মন্ত্রী শপথ নেবেন।

এখন পর্যন্ত চারজন মন্ত্রী শপথ নিয়েছেন। আজ নতুন আরও ১৬ জন মন্ত্রী শপথ নেবেন। প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহের মন্ত্রীসভার সদস্যসংখ্যা সর্বোচ্চ ২০ জন হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সামাগি জনা বালাওয়েগায়া (এসজেবি), শ্রীলঙ্কা ফ্রিডম পার্টি (এসএলএফপি) ও শ্রীলঙ্কা পদুজনা পেরামুনার (এসএলপিপি) সদস্যরা নতুন মন্ত্রীসভায় জায়গা পেতে পারে বলে জানা গেছে।

অভ্যন্তরীণ সূত্রের বরাতে ডেইলি মিররের প্রতিবেদনে বলা হয়, মন্ত্রীসভার ১০ টি পদ পেতে পারে এসএলপিপি। বাকি পদ যাবে এসএলএফপি ও এসজেবির কাছে। কোন দলের  সদস্যদের কাছে কোন পদ যাবে এ নিয়ে দেন দরবার চলছে বলে জানায় অভ্যন্তরীণ ওই সূত্রটি। 

ডেইলি মিররের প্রতিবেদনে বলা হয়, এসএলপিপি টিকেটে জয়ী এমপিদের মধ্য থেকে বিচার ও কৃষি মন্ত্রী নিয়োগ দেয়া হতে পারে। নতুন সরকারে প্রধানমন্ত্রীর অধীনেই অর্থ মন্ত্রণালয় থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে।

সাবেক অর্থমন্ত্রী আলি সাবরি নতুন সরকারে অর্থ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নিতে অনাগ্রহ প্রকাশ করায় এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা। 

বিরোধী দল এসএলএফপি থেকে মন্ত্রী নেয়ার ফলে সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠতা ধরে রাখতে পারবে গোতাবায়া রাজাপাকসে নেতৃত্বাধীন সরকার।

সংসদের ডেপুটি স্পিকার হিসেবে একজন নারীকে মনোনয়ন দেয়া নিয়ে সমঝোতা হয়েছে বলে জানা গেছে। তাহলে এসএলএফপির সুদর্শনী ফের্নান্দোপোল বা এসজেবির রোহিনী কাভিরাত্নে ডেপুটি স্পিকারের দায়িত্ব গ্রহণ করতে পারেন।

ট্যাগ:

আন্তর্জাতিক
হাসপাতাল ছেড়েছেন সৌদি বাদশাহ

banglanewspaper

সৌদি আরবের বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ (৮৬) হাসপাতাল ছেড়েছেন। স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত বিবৃতিতে সৌদি আরবের রয়্যাল কোর্ট বলছে, স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে গতকাল রবিবার হাসপাতাল ছাড়েন বাদশাহ আবদুল আজিজ। খবর রয়টার্স।

সৌদি টেলিভিশনে সম্প্রচারিত একটি ভিডিও ফুটেজে দেখা যাচ্ছে, লাঠিতে ভর করে ধীরে ধীরে জেদ্দার কিং ফয়সাল স্পেশালিস্ট হাসপাতাল ছাড়ছেন বাদশাহ। ভিডিও ফুটেজে বাদশাহ আবদুল আজিজের পাশে আরও কিছু লোকজনের সঙ্গে সৌদি আরবের প্রকৃত শাসক ও ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানকে দেখা যায়।

৭ মে বাদশাহ সালমানকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ সময় রয়্যাল কোর্ট জানায়, স্বাস্থ্যের কয়েকটি পরীক্ষা করার জন্য বাদশাহকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সর্বশেষ গত মার্চে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন সালমান। সে সময় দেশটির সরকারি গণমাধ্যমের তরফ থেকে জানানো হয়, সৌদি বাদশাহের কয়েকটি স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছে। সেগুলো সফল হয়েছে। এ ছাড়া, তার হৃদযন্ত্রে স্থাপন করা ‘পেসমেকারের’ ব্যাটারি বদল করা হয়েছে।

এর আগে ২০২০ সালে বাদশাহ সালমানের গল ব্লাডারে অস্ত্রোপচার করা হয়। দেশটির সরকারের পক্ষ থেকে বাদশাহদের শারীরিক অবস্থার খবর সামনে আনার ঘটনা সচরাচর ঘটে না। বাদশাহ সালমানের স্বাস্থ্য নিয়ে ছড়িয়ে পড়া খবরেও লাগাম দিতে সাধারণত তত্পর থাকে সৌদি আরব।

৮৬ বছর বয়সী বাদশাহ ২০১৫ সাল থেকে সৌদি আরবের শাসনকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এক বছর পর ২০১৭ সালে খবর রটে তিনি ছেলে যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের হাতে রাজকীয় ক্ষমতা ছেড়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করছেন। গণমাধ্যমেও এ নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। তবে এমন কোনো পরিকল্পনার কথা উড়িয়ে দেয় সৌদি সরকার।

সালমানের শাসনে সৌদি আরবে বেশ কিছু ইতিবাচক পরিবর্তন এসেছে। তেলের ওপর নির্ভরশীলতা কমাতে অর্থনীতির অন্য খাতে নজর দেওয়া হয়েছে। জোর দেওয়া হয়েছে নারী স্বাধীনতার ওপর। একই সময়ে আবার প্রতিবেশী রাষ্ট্র ইয়েমেনে সঙ্গে চলমান যুদ্ধে জড়িয়েছে সৌদি আরব।

ট্যাগ:

আন্তর্জাতিক
পাকিস্তানে আত্মঘাতী হামলায় শিশুসহ নিহত ৬

banglanewspaper

পাকিস্তানের উত্তর-পশ্চিমের পার্বত্যাঞ্চল খাইবার পাখতুনওয়া প্রদেশে আত্মঘাতী বোমা হামলা ঘটেছে। এতে নিহত হয়েছে তিন জন শিশু ও তিন সেনাসদস্য। 

পৃথক এক হামলায় রাজ্যের রাজধানী পেশোয়ারে নিহত হয়েছেন দেশটির সংখ্যালঘু শিখ সম্প্রদায়ের আরও দুই ব্যক্তি।

পাকিস্তানের সেনাবাহিনী থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়, রবিবার রাজ্যের উত্তর ওয়াজিরিস্তান জেলার আফগানিস্তান সীমান্ত সংলগ্ন শহর মির আলির কাছে একটি গ্রামে সেনাবাহিনীর টহলরত একটি গাড়িকে লক্ষ্য করে আত্মঘাতী বোমা হামলা হয়েছে। এ সময় ওই সড়কের পাশে ফাঁকা জাগায় খেলছিল তিনজন শিশু।

হামলায় দুই সেনাসদস্য ঘটনাস্থলেই নিহত হন, গুরুতর আহত হন বাকি এক সেনা সদস্যসহ ওই তিন শিশু। আহতদের দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও কাউকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি বলে উল্লেখ করা হয়েছে সেনাবাহিনীর বিবৃতিতে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, হামলাকারী নিজের শরীরে বাঁধা বিস্ফোরক লাদেন ভেস্টের মাধ্যমে হামলা চালিয়েছে। কারা এই হামলা চালিয়েছে, এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। কোনো ব্যক্তি বা গোষ্ঠী এখন পর্যন্ত এ ঘটনার দায় স্বীকারও করেনি।

এদিকে, একই দিন খাইবার পাখতুনওয়া প্রদেশের রাজধানী পেশোয়ারের বাট্টা তাল বাজার এলাকায় বন্দুক হামলায় নিহত হয়েছেন পাকিস্তানের সংখ্যালঘু শিখ সম্প্রদায়ের দুই ব্যক্তি। নিহতদের নাম রণজিৎ সিং (৩৮) ও কানওয়ালজিৎ সিং (৪২)।

পেশোয়ারের পুলিশ কর্মকর্তা এজাজ খান বার্তাসংস্থা এপিকে জানান, বাট্টা তাল বাজার এলাকায় মসলার দোকান ছিল রণজিৎ ও কানওয়ালজিতের। রোববার সকালে তারা যখন দোকান খুলছেন, সে সময় মোটর সাইকেলে করে ২ ব্যক্তি সেখানে আসে এবং তাদের মধ্যে একজন  তাদের লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে।

গুলি ছোড়ার পরই ঘটনাস্থল ত্যাগ করে হামলাকারীরা। এই ঘটনার দায়ও এখন পর্যন্ত কোনো গোষ্ঠী স্বীকার করেনি।

এজাজ খান জানিয়েছেন, পাকিস্তানে ধর্মীয় সংখ্যালঘু হওয়ার কারণেই খুন হয়েছেন রণজিৎ ও কানওয়ালজিৎ। হামলাকারীদের ধরতে ইতোমধ্যে পুলিশী অভিযান শুরু হয়েছে বলেও এপিকে উল্লেখ করেছেন এজাজ।

ট্যাগ:

আন্তর্জাতিক
ইরানে খাদ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ, সংঘর্ষে নিহত ৫

banglanewspaper

ইরানে খাদ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে শুরু হওয়া বিক্ষোভে পাঁচজন নিহত হয়েছেন। তবে তেহরানের কর্মকর্তারা এ হতাহতের ব্যাপারে কোনো তথ্য জানাননি। খবর আরটি।

সম্প্রতি ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি খাদ্য আমদানি ভর্তুকি হ্রাস করার সিদ্ধান্ত নেন। এই সিদ্ধান্তের পর থেকে দেশটির খাদ্যবাজারে অস্তিরতা বাড়ে। সে সঙ্গে ক্রমবর্ধমান মুদ্রাস্ফীতি ও ইউক্রেন সংঘাতও বড় কারণ হয়ে দেখা দিয়েছে।

ভর্তুকি বাতিলের ফলে রান্নার তেল, মুরগির মাংস, ডিম ও দুধের মতো দৈনন্দিন জিনিসপত্রের দাম ইরানে নাটকীয়ভাবে ৩০০ শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি পেয়েছে।
 
পরিস্থিতি সামলাতে ইরান সরকার স্বল্প আয়ের নাগরিকদের মাসিক ভাতা প্রদানের অঙ্গীকার করেছে। তবে দেশজুড়ে খাদ্যের মূল্য বেড়ে যাওয়ায় লোকজন হিমশিম খাচ্ছে। খাবারের দোকানগুলোতে মানুষের দীর্ঘ সারি দেখা গেছে।
 
এর ফলে ইরানের দোরুদ, ফারসান, জুনঘান, বোরুজেরদ, চোলিচেহ, দেহদাশত ও আরদেবিলসহ বিভিন্ন স্থানে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। সেই বিক্ষোভে সংঘাতে রূপ নেয়। কয়েকটি দোকানে আগুন দেয় বিক্ষোভকারীরা।
 
রবিবার (১৫ মে) সৌদি অর্থায়িত ইরান ইন্টারন্যাশনাল টিভি স্টেশন একটি সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টের উদ্ধৃতি দিয়ে জানিয়েছে, শুক্রবার (১৩ মে) থেকে বিক্ষোভ চলাকালীন পাঁচজন নিহত হয়েছে। 

টুইটারের একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, তাদের একজনকে গুলি করা হয়েছিল।
 
শুক্রবার (১৩ মে) প্রথম এক তরুণের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর আন্দিমেস্কে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে নিহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।
 
সরকারি ইরনা নিউজ এজেন্সি জানিয়েছে, এ ঘটনায় কয়েক ডজন লোককে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে সংস্থাটি হতাহতের বিষয়ে কোনো তথ্য দেয়নি।

ট্যাগ: