banglanewspaper

ট্রেনের অগ্রিম টিকেট বিক্রি শুরুর দ্বিতীয় দিন টিকেট প্রত্যাশীদের উপচেপড়া ভিড় হয়েছে ঢাকার কমলাপুরে। প্রতিটি কাউন্টারের সামনেই টিকেট প্রত্যাশীদের দীর্ঘ লাইন।

শনিবার সকাল থেকেই কমলাপুর স্টেশনের ২৩টি কাউন্টার থেকে একসঙ্গে টিকেট বিক্রি শুরু হয়। এদিন দেওয়া হয়েছে ২৮ অগাস্টের টিকেট।

জানা গেছে, আজ যাঁরা এসেছেন, অধিকাংশই শিক্ষার্থী এবং ব্যবসায়ী শ্রেণির মানুষ।

রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ জানায়, আগামীকাল ২০ আগস্ট মিলবে ২৯ আগস্টের টিকেট। ২১ আগস্ট কেনা যাবে ৩০ আগস্টের টিকেট। সবশেষ ২২ আগস্ট দেওয়া হবে ৩১ আগস্টের টিকেট।

একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মো. নাসিম অভিযোগ করেন, শুক্রবার দুপুরে এসে ১৪ নম্বর সিরিয়ালে থাকার পরও রাজশাহীর কোনো ট্রেনের এসি টিকেট পাননি।

“আমার আগে ৪ জন ১৬টা এসি টিকেট নিয়েছে। এখনই বলছে আর কোনো টিকেট নাই। শুধু পদ্মা ট্রেনেই তিনটা এসি বগি আছে। এতগুলো ট্রেন মিলিয়ে কি মাত্র ১৬টা টিকেট? তাহলে বাকি টিকেটগুলো গেল কই? ২০ ঘণ্টার বেশি সময় দাঁড়িয়ে থাকার পর যদি বলে টিকেট নাই তাহলে কেমন লাগে বলেন।”

এসি টিকেট না থাকার বিষয়ে কমলাপুর স্টেশনের ব্যবস্থাপক সীতাংশু চক্রবর্ত্তী সাংবাদিকদের জানান, যাত্রীদের অভিযোগ সত্যি নয়।

“আমি নিজেই গিয়ে দেখে এসেছি সার্ভারে। এসি টিকেট বিক্রি হয়ে গেছে, এগুলো কাউন্টার থেকেই বিক্রি হচ্ছে। কিছু কিছু লোক অযৌক্তিক কথা বলছে।”

ট্যাগ: