banglanewspaper

লক্ষীপুর প্রতিনিধি: সন্ত্রাসীদের দুপক্ষে গোলাগুলিতে ‘লাদেন’ মাসুম নিহত হয়েছেন বলে পুলিশ দাবি করেছে পুলিশ। লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার বালাইশপুরের বটেরদিঘীর পাড় এলাকা থেকে মাসুম বিল্লাহ ওরফে লাদেন মাসুম নামে একজনের গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

বুধবার দিবাগত শেষ রাতে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

তবে লাদেনের পরিবার বলছে, পুলিশের গুলিতে মাসুম নিহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে দুটি দুই নলা বন্দুক, দুটি এলজি, ১১ রাউন্ড গুলি ও ৩০টি ককটেল উদ্ধার করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, মাসুম পুলিশের তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে সদর ও চন্দ্রগঞ্জ থানাসহ অনেক থানায় হত্যা, ডাকাতি, চাঁদাবাজিসহ ২৮টি মামলা রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে মাসুম পলাতক রয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে তিনটার দিকে ঢাকা থেকে এলাকায় আসার পর বটের দিঘীরপাড় এলাকায় শাহাদাৎ বাহিনীর সঙ্গে তার বাহিনীর সন্ত্রাসীদের গোলাগুলি হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বাগানে মাসুমের গুলিবিদ্ধ মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে। পরে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

এদিনে নিহতের পরিবারের দাবি যুবদলের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিল মাসুম। রাজনীতি করার কারণে তার বিরুদ্ধে এতগুলো মামলা রয়েছে। গত রবিবার ঢাকার গুলিস্তান থেকে তাকে আটক করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। পরে পুলিশের গুলিতে তিনি নিহত হন বলে দাবি করেন নিহতের স্ত্রী।

চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মোক্তার হোসেন জানান, ঘটনাস্থল থেকে দুটি বন্দুক, দুটি এলজি, ১১ রাউন্ড গুলি ও ৩০টি ককটেল উদ্ধার করা হয়।

ট্যাগ: