banglanewspaper

কাজী আনিছুর রহমান, রাণীনগর (নওগাঁ) : নওগাঁ-রাণীনগর-নাটোর মহাসড়কের কাজ বন্ধ থাকার দীর্ঘ প্রায় একযুগ পর আলো দেখতে শুরু করেছে সড়কটি। সান্তাহার রেলওয়ে ষ্টেশন থেকে নাটোর ষ্টেশন পর্যন্ত রেল লাইনের পাশ দিয়ে শুরু হওয়া নওগাঁ-রাণীনগর-নাটোর মহাসড়কের সাড়ে ৪৮ কিলোমিটার সড়কের মধ্যে সাড়ে ২৩ কিলোমিটার সড়ক পাকাকরণ হওয়ার পর নিমার্ণ কাজ বন্ধ হয়ে যায় ।  গত মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) সভায় সড়কটির প্রকল্প অনুমোদন হওয়ায় রাণীনগর এলাকায় আনন্দ র‌্যালী ও মিষ্টি বিতরণ করা হয়েছে।  

সংশ্লিষ্ঠ সূত্রে জানা যায়, নওগাঁ-নাটোর আঞ্চলিক মহাসড়কের জন্য ২০০৫ সালে যোগাযোগ মন্ত্রণালয় ৯৮ কোটি টাকার প্রকল্প উন্নয়ন প্রস্তাব (ডিপিপি) অনুমোদন দেয়। কিন্তু পরে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) সীমিত আকারে ৫০ কোটি টাকার অনুমোদন দিলে ওই বছরের ২৮ ডিসেম্বর তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া নাটোরের নলডাঙ্গায় এই সড়কের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করেন। ২০০৭ সালের জুন মাস পর্যন্ত নওগাঁ-সান্তাহারের ঢাকা রোড মোড় থেকে রাণীনগর-আত্রাই হয়ে নাটোর জেলার নলডাঙ্গা উপজেলা পর্যন্ত প্রায় ৪৮ কিলোমিটার সড়কের মাটি ভরাটের কাজ শেষ হয়। আঞ্চলিক সড়কের নওগাঁ জেলা অংশের ২৫ কিলোমিটারের মধ্যে প্রায় ৭ কিলোমিটার সড়ক পাকা করণ করা হয়। আর নাটোর জেলা অংশের প্রায় ২২ কিলোমিটার সড়কের মধ্যে ১৬ কিলোমিটার সড়ক পাকা করণের কাজ সম্পূর্ণ হয়। নতুন করে অর্থ বরাদ্দ না হওয়ায় মোট ২৩ কিলোমিটার সড়ক পাকা হওয়ার পর হাইড্রোলজি সমীক্ষার নামে নানান রশি টানাটানির এক পর্যায়ে সড়কটির নির্মাণ কাজ বন্ধ হয়ে যায়। ফলে সড়কটির বাঁকি প্রায় ২৫ কিলোমিটার সড়ক এখন এলাকাবাসীর চলাচলের উপযোগী না হওয়ায় সড়লটি গো-চারণ ভূমিতে পরিণত হয়েছে। এমনকি সড়কের উপরে কলার বাগান, সবজি চাষ সহ পাশ্ববর্তী বসবাসরত লোকজনরা ছোট ছোট গৃহনিমার্ণ করে বসবাস করছে। এরমধ্যে শুধুমাত্র সান্তাহারের ঢাকা রোড থেকে রাণীনগর রেল স্টেশন পর্যন্ত পাকা করণের কাজ সমাপ্ত হলেও ভাঙ্গা-চুরা আর খানা-খন্দের কারণে ঝুকি নিয়েই চলা-চল করছে বিভিন্ন যানবাহন । 

এলাকাবাসী বলছেন, এই সড়কটির নির্মাণ কাজ সম্পূর্ণ করা হলে এই জনপদে বসবাসরত্ব মানুষদের ব্যবসা-বানিজ্য সহ জীবন যাত্রার মান একেবারেই পাল্টে যাবে এবং রাণীনগর থেকে সরাসরি নাটোর হয়ে রাজশাহী যাওয়ার জন্য শুধমাত্র রেল গাড়ি নির্ভরশীলতা কমে যাবে ।  
নওগাঁ সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী আবুল মনছুর আহম্মেদ জানান, নওগাঁ-রাণীনগর-নাটোর আঞ্চলিক মহাসড়কটির অসমাপ্ত প্রায় ২৫ কিলোমিটার সড়কের পাকা করণের কাজ সমাপ্ত করার জন্য ২০১ কোটি টাকার মত একনেকে অনুমোদন হয়েছে। গেজেট জারি হওয়ার পর ফান্ড পাওয়া মাত্রই এই সড়কের অসমাপ্ত কাজের সমাপ্ত করণের দরপত্র আহবান করা হবে।

নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রাণীনগর) আসনের সাংসদ ইসরাফিল আলম জানান, গত সাত বছরে এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে এই আঞ্চলিক সড়কটির নিমার্ণ কাজ শেষ করার জন্য জাতীয় সংসদে এগারো বার দাবি উত্থাপন করেছি। অবশেষে মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) সভায় এই সড়কের নিমার্ণ কাজের প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে। সড়কের অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত হলে এলাকাবাসী দীর্ঘদিনের দুর্ভোগ থেকে রক্ষা পাবে।

এদিকে সড়কটির অসামপ্ত কাজ সমাপ্ত করার জন্য একনেক সভায় অনুমোদন হওয়ায় গতকাল বুধবার রাণীনগর থানা আওয়ামীলীগ,যুবলীগ ও সহযোগী অংগ সংগঠনের উদ্যোগে এক আনন্দ র‌্যালী এবং মিষ্টি বিতরণ করা হয়েছে।
 

ট্যাগ: