banglanewspaper

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: সাতক্ষীরা শ্যামনগর উপজেলার মুন্সিগঞ্জের প্রতারক আব্দুর রহমান আকাশের মুখোশ উম্মোচন হতে শুরু করেছে। সরকারি প্রকল্প নিজের নামে প্রচার করে বিভিন্ন মানুষের কাছে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে এই প্রতারক। 

একাধিক সূত্রে জানা গেছে, শ্যামনগর উপজেলার মুন্সিগঞ্জের ইনোভেশন ইন পাবলিক সার্ভিসের আওতায় সুন্দরবন সংলগ্ন এলাকায় আকাশলীনা ইকোট্যুরিজম সেন্টার সংলগ্ন রেস্টুরেন্টটি বরাদ্ধ নিয়ে পুরো আকাশলীনা তার বলে প্রচার দিয়েছে। ট্যুরিজম সেন্টারটি নাম আকাশলীনা হওয়া সেই সুযোগটি নিয়েছে প্রতারক আব্দুর রহমান আকাশ। সে বিভিন্ন জায়গায় বলে বেড়িয়েছে আকাশ তার নাম এবং লীনা আমার স্ত্রীর নাম সেই কারনে তার নাম রাখা হয়েছে আকাশলীনা। কিন্তু বাস্তাবে দেখা গেছে ভিন্ন। বিষয়টি প্রশাসনের নজরে আসলে সম্প্রতি রুপসী বাংলার কবি জীবনান্দ দাশের আকাশলীনা কবিতার নামানুসারে এই ট্যুরিজম সেন্টারটির নাম করণ করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

এছাড়ার তার রেস্টুরেন্টে কর্মরত একাধিক কর্মচারীকে বেতন না দিয়ে তাড়িয়ে দিয়েছে বহু অপকর্মের হোতা এই আকাশ। 

আকাশলীনার রেস্টুরেন্টের সাবেক কর্মচারী মুজিবর রহমান, বেতন চাইলে উল্টো টাকা চুরিসহ বিভিন্ন মিথ্যা অপবাদ দিয়ে হয়রানী ও নির্যাতন করে থাকেন। আমার বেতনের ৩ হাজার টাকা পাবো আকাশের কাছে। সে টাকা না দিয়ে বিভিন্নভাবে তালবাহনা করছে। শুধু আমার সাথে না আকাশলীনায় যত কর্মচারী কাজ করেছে তাদের মধ্যে অধিকাংশ কর্মচারির বেতন পায়নি বলে তিনি অভিযোগ করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যক্তি জানিয়েছেন, সুন্দরবন সংলগ্ন এলাকায় জোয়ার মোটেল নামে  বহুতল পাচ তারকা হোটেলের নকশা দেখিয়ে বিভিন্ন ব্যক্তির কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অভিযোগকারীরা আরো বলেন, সে বিলাশ বহুল হোটেলের জমি কেনা হয়েছে বলে একাধিক ব্যক্তির কাছ থেকে শেয়ারের টাকা নিয়েছেন। কিন্তু কোথায় জমি কেনা হয়েছে সেটি কেউ বলতে পারে না। 

এদিকে গত আগস্ট শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের স্বাক্ষরকৃত পত্রের মাধ্যমে জানানো হয়েছে যে, আকাশলীনা ট্যুরিজম সেন্টার সংলগ্ন আব্দুর রহমান আকাশের বরাদ্দ নেওয়া রেস্টুরেন্ট প্রায় বন্ধ থাকার কারণে আকাশলীনায় আসা পর্যটকদেরা বিড়ম্বনার শিকার বলে হচ্ছেন। এর আগে একাধিক বার চিঠি দিলেও তিনি কোন উদ্যোগ নেয়নি বলে জানা গেছে। বকেয়া ভাড়া সাত দিনের মধ্যে পরিশোধ করার জন্য শেষ বারের মতো চিঠি দিয়ে সতর্ক করা হলেও আব্দুর রহমান আকাশ প্রশাসনকে না জানিয়ে নওয়াবেকী এলাকার আসাদ নামে একজনের কাছে হোটেল বরাদ্দ দিয়েছেন।

এদিকে মুন্সিগঞ্জ এলাকায় চুনা নদীর ধারে চর বনায়ন কর্মসূচির নামে জমি দখল করে রেখেছেন এই আব্দুর রহমান আকাশ। এছাড়া তার জোয়ার কটেজে অবৈধ কার্যকালাপ চলে বলে একাধিক ব্যক্তি অভিযোগ করেছেন। 

মুন্সিগঞ্জ এলাকার দাউদ হাজী নামে একজনের কাছ থেকে কয়েক লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নিয়েছে জানা গেছে। এছাড়া তার বিরুদ্ধে নারী কেলেঙ্কিকারীসহ সুন্দরবনের দস্যুদের সাথে সখ্যতা থাকার অভিযোগ রয়েছে। 

এছাড়া আকাশের জোয়ার ইকো কটেজে অনৈতিক কাযকালাপ পরিচালনা করে। গত কয়েক বছর আগে এক শিশুকে নির্যাতনের অভিযোগ রয়েছে।

আশালীনার রাঁধুনী আনোয়ার বেগম বলেন, আকাশলীনা নিজের বলে পরিচয় দিতে অনেক টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এছাড়া জোয়ারের বড় মোটেল করবে একথা বলে অনেক ব্যক্তির কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। আমি আকাশলীনা রেস্টুরেন্টের রাধুঁনী আমার বেতন, খাওয়া দেবে শর্তে চাকরী দিয়ে গত কয়েকমাস বেতন দেয়নি। আকাশের কাছে ৩ মাসের বেতন ১০ হাজার টাকা পাবো। এছাড়া আকাশলীনার রাধূনী সাইদ, মুজিবর রহমান, আব্দুল হাইয়ের বেতন না পেয়ে চাকরি ছেড়ে চলে গেছে।

জোয়ারের পরিচালক আব্দুর রহমান আকাশ বলেন, সরকারি জায়গা দখলের কোন ব্যাপার নেই এটি চর বনায়ন কর্মসূচীর জন্য স্থানীয় চেয়ারমানের কাছ থেকে অনুমোদ নেওয়া হয়েছে। আমার এখানে কাজ করা কোন কর্মচারী আমার কাছে টাকা পাবে না। আর আকাশলীন নামটি খুলনা বিভাগীয় কমিশনার স্যারের দেওয়া এটি আমার নামের সাথে কোন সংশ্লিষ্টা নেই। জোয়ার মোটেলের নাম করে আমার কারো কাছ থেকে টাকা নেয়নি। রেস্টুরেন্টটি আমি নিজেই চালাচ্ছি কারো কাছে বরাদ্দ দেয়নি।

সাতক্ষীরা শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামরুজ্জামান বলেন, সরকারি জমি দখলের বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে বিভিন্ন মানুষের সাথে প্রতারণার বিষয়টি জেনেছি। অনেকে আমার কাছে অভিযোগ করেছে। আকাশলীনার নাম খুলনা বিভাগীয় কমিশনার স্যার দিয়েছেন। আকাশলীনা ট্যুরিজম সেন্টার সংলগ্ন আব্দুর রহমান আকাশের বরাদ্দ নেওয়া রেস্টুরেন্ট বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এটি উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে থেকে পরিচালনা করা হবে।
 

ট্যাগ:

খুলনা
কুষ্টিয়ায় আরও ১৭ মৃত্যু

banglanewspaper

কুষ্টিয়া করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ১১ জন করোনা পজিটিভ ছিল এবং ৬ জন করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন।

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে শুক্রবার সকাল ৮টার মধ্যে তাদের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মেজবাউল আলম।

তিনি জানান, বর্তমানে হাসপাতালে ১৭৯ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী এবং ৫৭ জনের উপসর্গসহ মোট ২৩৬ জন ভর্তি রয়েছে।

এদিকে পিসিআর ল্যাব এবং জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ১৭৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৫৭ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৩২ দশমিক ২০ শতাংশ।

ট্যাগ:

খুলনা
বিধিনিষেধের মধ্যে ইজিবাইকে পিকআপের ধাক্কায় নিহত ৬

banglanewspaper

সারা দেশে শুরু হওয়া ১৪ দিনের কঠোরতম বিধিনিষেধের মধ্যেই বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলায় পিকআপভ্যানের ধাক্কায় ইজিবাইকের ৬ যাত্রী নিহত হয়েছে। এতে আহত হয়েছে আরও একজন। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শুক্রবার (২৩ জুলাই) সকাল সোয়া ৭টার দিকে উপজেলার ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে বৈলতলী প্রাইমারি স্কুল এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ফকিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইদুল আনাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

ওসি জানান, পণ্যবোঝাই একটি পিকআপ মোংলার দিকে যাচ্ছিল। এসময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ইজিবাইককে চাপা দেয় পিকআপটি। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান ইজিবাইকের ৬ যাত্রী। তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের নাম পরিচয় জানা যায়নি। 

এ ব্যাপারে বাগেরহাট ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক গোলাম সরোয়ার জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ৬ জনকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগে একজনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছে এলাকাবাসী।

ট্যাগ:

খুলনা
কুষ্টিয়ায় ১০০টি অক্সিজেন সিলিন্ডারের ব্যবস্থা করলেন হানিফ

banglanewspaper

করোনা মহামারি পরিস্থিতি জটিল আকার ধারণ করায় নিজের নির্বাচনী এলাকায় ১০০টি অক্সিজেন সিলিন্ডারের ব্যবস্থা করে দিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া-৩ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য মাহবুবউল আলম হানিফ।

জানা যায়, গত ৬ ও ৭ মে ব্যবসায়ীদের সহযোগিতায় প্রায় এক কোটি টাকা বাজেটে কুষ্টিয়া মহিনি মিল মাঠ ও শেখ রাসেল স্টেডিয়ামে ১১ হাজার অসহায় কর্মহীন মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়। সেই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মাহবুবউল আলম হানিফ। খাদ্য বিতরণ কর্মসূচিতে এক কোটি টাকার পুরোটা খরচ হয়নি। এখান থেকে উদ্বৃত্ত টাকা দিয়েই মূলত ১০০টি অক্সিজেন সিলিন্ডারের ব্যবস্থা করেন আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।


কুষ্টিয়ায় করোনা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। সেখানে অক্সিজেন ছাড়া অন্যান্য চিকিৎসাসামগ্রীর ব্যবস্থা করবেন বলেও আশ্বস্ত করেন মাহবুবউল আলম হানিফ।

এদিকে কুষ্টিয়ায় করোনা পরিস্থিতি খুবই নাজুক। পরিস্থিতি বিবেচনায় কঠোর লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে পু‌রো জেলায়। প্রতিদিন সেখানে করোনা রোগীর সংখ্যা বাড়ায় অক্সিজেনের প্রয়োজনীয়তা বাড়ছে। ক্রমবর্ধমান এই করোনা রোগীদের অক্সিজেন সরবরাহ করতে কুষ্টিয়ার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে বেশ বেগ পেতে হচ্ছে। এই অবস্থায় সাংসদ মাহবুবউল আলম হানিফের উদ্যোগে সরবরাহকৃত অক্সিজেন সিলিন্ডার অনেক উপকারে আসবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

ট্যাগ:

খুলনা
লকডাউনের চতুর্থ দিনে খুলনায় ৬০ মামলা

banglanewspaper

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে দেশে সর্বাত্মক লকডাউন চলছে। করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ নিশ্চিতকরণে খুলনা নগরীতেও প্রশাসন রয়েছে কঠোর অবস্থানে। 

সেই ধারাবাহিকতায় শনিবার (১৭ এপ্রিল) লকডাউনের চতুর্থ দিনেও কঠোর অবস্থানে ছিল প্রশাসন। এদিন খুলনা জেলাজুড়ে অভিযান পরিচালনা করে ৬০টি মামলায় ৩৮ হাজার সাতশো টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসনের মিডিয়া সেলের সূত্রে জানা যায়, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেনের নির্দেশে এবং অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইউসুপ আলীর তত্ত্বাবধানে এদিন সমগ্র খুলনা জেলায় কোভিড-১৯ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ব্যাপক অভিযান পরিচালিত হয়।

খুলনা মহানগরে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটদের নেতৃত্বে দিনব্যাপী মোট ছয়টি টিম অভিযান পরিচালনা করে ৪৪ মামলায় ২৬ হাজার চারশো টাকা জরিমানা করা হয়।

এছাড়া বটিয়াঘাটা, দাকোপ, পাইকগাছা ও দিঘলিয়া উপজেলায় অভিযান পরিচালনা করেন স্ব-স্ব উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী কমিশনাররা (ভূমি)। এসব অভিযানে উপজেলায় মোট ১৬ মামলায় ১২ হাজার তিনশো টাকা জরিমানা করা হয়। ‘সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন, ২০১৮’ এবং ‘দণ্ডবিধি, ১৮৬০’ এর সংশ্লিষ্ট ধারার বিধান মোতাবেক অর্থদণ্ড প্রদান করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটরা।

মোবাইল কোর্ট পরিচালনায় সহযোগিতা করেন পুলিশ, আনসার, এপিবিএন ও র‍্যাবের সদস্যরা। করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ নিশ্চিতকরণে জেলা প্রশাসনের এমন উদ্যোগ অব্যাহত থাকবে।

ট্যাগ:

খুলনা
শৈত্যপ্রবাহে চুয়াডাঙ্গায় জনজীবন বিপর্যস্ত

banglanewspaper

চুয়াডাঙ্গার ওপর দিয়ে টানা শৈত্যপ্রবাহ বয়ে চলায় ভোগান্তিতে পড়েছেন এ অঞ্চলের নিম্ন আয়ের মানুষ। চলতি সপ্তাহ ধরে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহ বয়ে চলছে এ জেলার ওপর দিয়ে। উত্তর থেকে বয়ে আসা হিমেল বাতাসে শীতের তীব্রতা আরও বেশি অনুভূত হচ্ছে।  

বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টায় জেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৭ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

চুয়াডাঙ্গার ওপর দিয়ে বয়ে যাচ্ছে তীব্র থেকে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ। কুয়াশা আর ঠান্ডা বাতাসে জনজীবন একেবারে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে।

চুয়াডাঙ্গা আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সামাদুল ইসলাম জানান, বুধবার সকাল ৯ টায় জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিলো ৭ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এদিকে শীতে দরিদ্র ও ছিন্নমূল মানুষ গরম কাপড়ের অভাবে কষ্টে দিনযাপন করছে। রেল স্টেশনের প্লাটফর্মে শীতের রাত কষ্টে পার করছে দরিদ্র ও ছিন্নমূল মানুষগুলো। জেলায় শৈত্যপ্রবাহ আরও বেশ কয়েক দিন থাকতে পারে। ঠান্ডা বাতাসের কারণে মানুষের দুর্ভোগ বেশি।

রোদের প্রখরতা না থাকায় ও বাতাসের গতিবেগ বেশি থাকায় শীতের তীব্রতা বেশি অনুভূত হচ্ছে।

ট্যাগ: