banglanewspaper

আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ পোকামাকড়রের সন্ধানে ধানের জমিতে পুঁতে রাখা গাছের ডালে এসে বসেছে পাখি। আদমদীঘির বিভিন্ন এলাকার ধানক্ষেতে এখন  গাছের ডাল বা বাঁশের কঞ্চি চোখে পড়ে। পাখির মাধ্যমে পোকা দমনের এ পদ্ধতির নাম পার্চিং।

ধানক্ষেতের মাঝে ১৫ থেকে ২০ হাত দূরে দূরে গাছের ডাল পোঁতা। সেখানে কিছুক্ষণ পরপরই উড়ে এসে বসছে আর ক্ষেতের পোকা ধরে খাচ্ছে নানা জাতের পাখি। এভাবে কীটনাশক ছাড়া সহজেই দমন হচ্ছে পোকা। পোকা দমনের পরিবেশবান্ধব এই পদ্ধতির নাম পার্চিং। পাখি বসে এমন উঁচু ডাল বা খুঁটির নাম পার্চ। আর পার্চ থেকেই পার্চিং নামের উদ্ভব।

পোকা দমনের এই পদ্ধতি দেশের নানা জায়গায় এর আগে ব্যবহৃত হলেও আদমদীঘির সান্তাহারে এর পরীক্ষামূলক ব্যবহার শুরু গত কয়েক বছর যাবৎ । এখন উপজেলায় এবার ১২ হাজার ৫০০ হেক্টর জমির মধ্যে ৯ হাজার ৫০০ হেক্টর জমিতে এই পদ্ধতি ব্যবহৃত হচ্ছে। অর্থাৎ শতকরা ৭৫ ভাগেরও বেশি কৃষিজমিতে পার্চিং পদ্ধতি ব্যবহৃত হচ্ছে।

উপজেলা কৃষি বিভাগের কর্মকর্তাদের দাবি, পোকা দমনে এই পদ্ধতি শতকরা ৭৫ থেকে ৮০ ভাগ কার্যকর। এ কারণে প্রতি একরে কীটনাশক খাতে চাষিদের খরচ কমেছে ৮০০ টাকারও বেশি। পাশাপাশি কৃষকেরা এই পদ্ধতি ব্যবহার শুরুর পর পাখির সংখ্যাও উল্লেখযোগ্য হারে বেড়েছে। উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে ধানক্ষেতে পার্চিং পদ্ধতির ব্যবহার দেখা গেছে। আমনের জমিতে পুঁতে দেওয়া গাছের ডাল ও বাঁশের কঞ্চিতে ফিঙে, শালিক, বক, বুলবুলিসহ নানা জাতের পাঁখি এসে বসছে। একটু পরপর ডাল থেকে জমির মধ্যে ঢুকে যাচ্ছিল পাখিগুলো।

যে জমিতে পোকা বেশি সেই জমিতে পাখির আনাগোনাও বেশি। এই পদ্ধতির সাফল্যের হার কেমন? এমন প্রশ্নের উত্তরে সান্তাহার এলাকার দায়িত্বপ্রাপ্ত উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. খাদেমুল মাসুদ বলেন, ‘বেশ ভালো’।

তিনি বলেন, আগে পোকামাকড় দমনে প্রচুর কীটনাশক খরচ হতো। এখন পার্চিং পদ্ধতির আওতায় যেসব জমি রয়েছে  সেসব জমিতে কীটনাশক প্রায় লাগছেই না। নাম মাত্র কীটনাশক ব্যবহার করছে তারা এতে  খরচও কমে গেছে।

তিনি আরও বলেন, ‘কীটনাশকের ব্যবহার কম হওয়ায় ইদানীং পাখির সংখ্যাও বেড়েছে। জমিতে বক, শালিক, ফিঙে সহ হরেক রকমের পাখির মেলা বসে।’

উপজেলা কৃষি অফিসের উপসহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ অফিসার সাইফুল ইসলাম বলেন, পার্চিং পদ্ধতির মাধ্যমে শতকরা ৭৫ থেকে ৮০ ভাগ পোকা দমন হয়।

তিনি বলেন, জমিতে ধানের চারা রোপণের পর মাজরা পোকা, পাতা মোড়ানো পোকা, চুঙ্গি পোকা, শিষ কাটা লেদা পোকাসহ নানান পোকা আক্রমণ করে। এসব পোকা আবার পাখিদের প্রিয় খাবার। পার্চিং পদ্ধতি ব্যবহারের কারণে পাখিরা পোকামাকড় খেয়ে ফেলে। এ পদ্ধতির ফলে জমিতে কীটনাশকের ব্যবহার তিন ভাগের দুই ভাগ কমে গেছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো.কামরুজ্জামান জানান, এ পদ্ধতি অবলম্বন করলে কিটনাশক খরচ কমবে পরিবেশও রক্ষা হবে। সান্তাহার ইউনিয়ন এলাকার কৃষক রুবেল, শফির হোসেনসহ বেশ কয়েকজনের সাথে কথা বললে তারা বলেন, এই পদ্ধতি পরিবেশবান্ধব বলে পাখির সংখ্যা আগের থেকে বাড়ছে। এতে পরিবেশের উপকার হচ্ছে। জীববৈচিত্র্যও রক্ষা পাচ্ছে। কীটনাশকের অপব্যবহার রোধে এই পদ্ধতি গোটা বগুড়া তথা উত্তরাঞ্চলে  ছড়িয়ে দেওয়া প্রয়োজন।

ট্যাগ: Banglanewspaper সান্তাহার

রাজশাহী
অনৈতিক কাজে জড়িত থাকায় হোটেল থেকে আটক ৮

banglanewspaper

পাবনা শহরের বাস টার্মিনাল এলাকায় একটি আবাসিক হোটেলে অভিযান চালিয়ে ম্যানেজারসহ ৮ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

রোববার (৩১ জুলাই) বিকেলে পাবনা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তবে আটককৃতদের পরিচয় প্রকাশ করেনি পুলিশ।

পাবনা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন জানান, আটককৃতদের বিরুদ্ধে অনৈতিক কাজের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে।

তিনি আরও জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আজ রোববার দুপুরে শহরের বাস টার্মিনাল এলাকার বলাকা আবাসিক হোটেলে অভিযান চালানো হয়। এ সময় আটজনকে আটক করা হয়।

ট্যাগ:

রাজশাহী
বিয়ের পর স্টক বিজনেস করছেন কলেজপড়ুয়া মামুন, পদোন্নতি শিক্ষিকার

banglanewspaper

নাটোরে যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পরিচয়ের ৬ মাস পর বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন এক কলেজছাত্র ও শিক্ষিকা। তবে সব নেতিবাচকতাকে পেছনে ফেলে বিয়ের বিষয়টি প্রকাশ করেছেন তারা।

রোববার (৩১ জুলাই) সকাল থেকে এ ঘটনায় নিয়ে ফেসবুকে চলছে আলোচনা-সমালোচনা। বর্তমানে তারা নাটোর শহরের একটি ভাড়া বাড়িতে বসবাস করছেন।

দম্পতিরা হলেন, নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলা বাসিন্দা মামুন হোসেন (২২) ও খাইরুন নাহার (৪০)।মামুন হোসেন নাটোর এন এস সরকারি কলেজের ডিগ্রি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।

জানা গেছে, বিয়ে পর থেকে বেশ কিছুদিন ধরে মামুন হোসেন স্টক বিজনেস শুরু করেছেন। একই সঙ্গে পাট, ধান, গম, সরিষাসহ অপচনশীল কৃষিপণ্য নিয়ে কাজ করছেন তিনি। অন্যদিকে তার স্ত্রী খুবজীপুর এম হক ডিগ্রি কলেজের পদোন্নতি পেয়ে সহকারী অধ্যাপক হয়েছেন।

কলেজছাত্র মামুন বলেন, প্রায় সাত মাস আগে আমরা দুজন বিয়ে করেছি। এ বিষয়ে কে কি বলল সেগুলো মাথায় না নিয়ে নিজেদের মতো সংসার গুছিয়ে নিয়েছি। তবে আমি তার কলেজের ছাত্র নই। আমি নাটোর এন এস সরকারি কলেজের ডিগ্রি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। আর আমার স্ত্রী খুবজীপুর মোজাম্মেল হক ডিগ্রি কলেজের সহকারী অধ্যাপক। আমাদের বিয়ের সময় সে প্রভাষক ছিলেন। প্রায় দুই মাস আগে পদোন্নতি পেয়ে সহকারী অধ্যাপক হয়েছেন।

উল্লেখ্য, গুরুদাসপুর উপজেলার খুবজীপুর এম হক ডিগ্রি কলেজের সহকারী অধ্যাপক মোছা. খাইরুন নাহার। তার রাজশাহীর বাঘায় প্রথম বিয়ে হয়েছিল। পারিবারিক কলহে সংসার বেশি দিন টেকেনি তার। তবে ওই ঘরে একটি সন্তান রয়েছে। পরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ২০২১ সালের ২৪ জুন তাদের পরিচয় হয় মামুন হোসেনের সঙ্গে। এরপর থেকে গড়ে ওঠে প্রেমের সম্পর্ক। একপর্যায়ে ২০২১ সালের ১২ ডিসেম্বরে বিবাহবন্ধনে আবন্ধ হন তারা। তবে সপ্তাহখানেক আগে তাদের বিয়ের বিষয়টি এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে।

ট্যাগ:

রাজশাহী
পাবনায় বাসচাপায় একই পরিবারে প্রাণ গেল তিনজনের

banglanewspaper

পাবনার সাঁথিয়ায় বাস চাপায় একই পরিবারের তিনজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও ৪ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) রাত ৭টার দিকে উপজেলার কাশিনাথপুরের ঢাকা-পাবনা মহাসড়কের করিয়াল এলাকায় এঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- কাশিনাথপুরের দুর্গাপুরের মৃত আব্দুল লতিফের ছেলে আবু সাইদ (৫৫), তার ছেলে তাউহিদ (৪) ও আবু সাঈদের ভাই আমির হামজার মেয়ে রোজা। আহতদের নাম-ঠিকানা জানা যায়নি।

সাঁথিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসিফ মোহাম্মদ সিদ্দিুকুল ইসলাম দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, তারা পরিবারসহ করিয়াল এলাকায় দাওয়াত খেয়ে ভ্যানযোগে বাড়ি ফিরছিল। এসময় মহাসড়কে ওঠার সময় পাবনা থেকে ঢাকাগামী সি-লাইন পরিবহন চাপা দেয়। এতে ভ্যানটির সবাই আহত হয়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে রাতে তাদের অবস্থার অবনতি হলে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। হাসপাতালে নেয়ার পথে দুইজন এবং হাসপাতালে পৌছানোর আরও একজন মারা যান।

এবিষয় মাধপুর হাইয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম আবদুল কাসেম আজাদ জানান, আমরা পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে ভ্যানটি উদ্ধার করেছি। অভিযুক্ত বাস ও বাসের কাউকে পাওয়া যায়নি। নিহতদের পক্ষে কেউ অভিযোগ দিলে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

ট্যাগ:

রাজশাহী
ধূমপান করায় ষষ্ঠ শ্রেণির ৩ শিক্ষার্থী বহিষ্কার

banglanewspaper

ধূমপান করার অভিযোগে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ সরকারি মডেল হাই স্কুলের ষষ্ঠ শ্রেণির তিন শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাইফুল মালেক সই করা এক নোটিশে এ তথ্য জানানো হয়। সেই নোটিশে উল্লেখ করা হয় ওই তিন শিক্ষার্থী ধূমপান করেছে ও তা প্রমাণিত হওয়ায় তাদের বহিষ্কার করা হলো।

অনেকেই বলছেন, অভিযুক্ত ওই শিক্ষার্থীদের বোঝানো উচিত ছিলো। এভাবে প্রকাশ্যে নোটিশ তাদের মানসিকভাবে অনেকটাই বিপর্যস্ত করবে। প্রয়োজনে তাদের অভিভাবকদের জানানো উচিত ছিলো।

নোটিশে বলা হয়, বিজ্ঞপ্তি নম্বর ৩১ এর অনুচ্ছেদ ৩ এর সিদ্ধান্ত মোতাবেক ওই তিন শিক্ষার্থী ধূমপান করায় এবং বিষয়টি প্রমাণিত হওয়ায় তাদের শ্রেণি কার্যক্রম থেকে বহিষ্কার করা হলো।

নোটিশে আরও বলা হয়, ভবিষ্যতে সংশোধন হলে অভিভাবকের স্বীকারোক্তি সাপেক্ষে এবং বিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষের কাছে সত্য বলে প্রতীয়মান হলে শ্রেণিতে পাঠদানের বিষয়টি বিবেচনা করা হবে।

এ বিষয়ে শিবগঞ্জ সরকারি মডেল হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক সাইফুল মালেক আরটিভি নিউজকে বলেন, ওই তিন শিক্ষার্থী ধূমপান করায় তাদের বহিষ্কার করা হয়েছে। তবে শিক্ষার্থীদের একান্তে বোঝানো হয়েছিলো কিনা এমন প্রশ্নে কোনো উত্তর না দিয়ে ফোন কেটে দেন।

এ বিষয়ে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আবদুর রশিদের বলেন, বিষয়টি জানা নেই। শিক্ষার্থীদের বহিষ্কারের বিষয়টি খোঁজ নিবেন।

ট্যাগ:

রাজশাহী
গাঁজাসহ দুই বোন গ্রেপ্তার

banglanewspaper

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার নাগরকান্দি প্রতাপবাজু গ্রামে গাঁজাসহ দুই বোনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

মঙ্গলবার (১৪ জুন) বিকেল ৩টার দিকে ওই গ্রাম থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, উপজেলার নাগরকান্দি প্রতাপবাজু গ্রামের মৃত মীর আলী প্রামাণিকের মেয়ে বকুল বেগম (৫২) ও শিউলি বেগম (৪৮)।

র‌্যাব-১২ বগুড়ার ভারপ্রাপ্ত কোম্পানি কমান্ডার নজরুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, আজ মঙ্গলবার বিকেলে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে শিবগঞ্জের নাগরকান্দি প্রতাপবাজু গ্রাম থেকে দুই কেজি ৭০০ গ্রাম গাঁজা ও নগদ টাকাসহ বকুল এবং শিউলিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

তিনি আরও জানান, গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে শিবগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

ট্যাগ: