banglanewspaper

খোকসা প্রতিনিধি: কুষ্টিয়া সামাজিক প্রতিবন্ধী পুনর্বাসন কেন্দ্রে লালিত পালিত প্রতিবন্ধী ইতি খাতুনের সাথে খোকসা উপজেলার শোমসপুর গ্রামের মৃত শাহাদৎ শেখের ২য় পুত্র মোঃ জিল্লুর রহমানের (৩০) বেশ ঘটা করে বিয়ে হয়। বিয়ের পর অতি আনন্দে অতিবাহিত করেছেন নব দম্পতির প্রথম দিন। 

নতুন পুত্রবধুকে পেয়ে আবেগে আপ্লুত মরিয়ম বেগম নিজের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে সাংবাদিকদের বলেন, পুত্রবধু নয় আমি একটি মেয়ে পেয়েছি। যে ভাবে ডিসি সাহেব ধুমধাম করে আয়োজন করে আমার ছেলে সাথে তার অধীনে লালিত ইতি খাতুনের বিয়ে দিয়েছেন তাতে আমি খুশি হয়েছে। ডিসি সাহেব আমার বিয়াই হয়েছেন। আমি মনে করি আমার পুত্রও তার যোগ্য সঙ্গী পেয়েছে। 

জিল্লুর রহমানের মা মরিয়ম বেগম বলেন, ৫ বছর আগে বার্ধক্য জনিত কারণে স্বামী শাহাদৎ শেখ মারা যাবার পর ৪ ছেলেকে নিয়ে কোনরকম দিন কাটছিল। ২ বছর আগে জিল্লুর খালাতো ভাই শহীদুল ইসলাম ভান্ডারীর ঢাকার কদমতলীর বাসায় মানসিক ভারসাম্যহীন ইতি খাতুন (১৮) এসে খাবার চায়। শহীদুল প্রতিবন্ধী ইতিকে খাবার ও সেবা যত্ন করে সুস্থ করে তোলে। পরবর্তীতে শহীদুল তাকে খালারবাড়ী শোমসপুরে নিয়ে আসলে জিল্লুর মা মরিয়ম বেগম ইতিকে খোকসা উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তার মাধ্যমে কুষ্টিয়া সামাজিক প্রতিবন্ধী পুনর্বাসন কেন্দ্রে পাঠায়। ইতিকে দেখে বাড়ির সকল সদস্যের পছন্দ হওয়ায় মা মরিয়ম বেগম তাকে তার ২য় পুত্র জিল্লুর সাথে বিয়ে দেবার জন্য জেলা প্রশাসকের নিকট আবেদন জানান।

গত বৃহস্পতিবার বিকেলে শোমসপুর জিল্লুর নতুন সংসারের খবর জানতে শোমসপুর ইউনিয়ন ভূমি আফিস সংলগ্ন বাড়িতে সরেজমিনে যেতে পথে দেখা হয় সদ্য বিবাহিত জিল্লুর রহমানের সাথে। পেশায় ভ্যানচালক জিল্লু তখন প্রতিবেশীর খড় বয়ে নিয়ে যাচ্ছিল। 

জিল্লু বলেন, বউ ভাল হয়েছে। ইতিকে বউ হিসেবে পেয়ে আমি খুব খুশি।

জিল্লুর বড় ভাই বেল্লাল শেখের স্ত্রী মোছাঃ হাজেরা খাতুন বলেন, আমার দেবর কাজের ছেলে। সে একজন দক্ষ ভ্যানচালক। আমার জা’ ভালো হয়েছে। তারা সুখে সংসার করবে এমন আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। দেবরের বিয়ে উপলক্ষে বড় বড় মানুষের সাথে দেখা হয়েছে। খুব আনন্দ পেয়েছি।

মানসিক প্রতিবন্ধী নববধু ইতি খাতুন বলেন, আমি খুব খুশি। আমার স্বামী আমাকে খুব ভালোবাসে। শাশুরী, জা এরাও আমাকে ভালোবাসেন। 

জিল্লুর বাড়িতে সদ্য বিবাহিত জিল্লু-ইতি দম্পতির দাম্পত্য জীবনের খোঁজখবর নিতে যাওয়া খোকসা উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা শাম্মী আক্তার যুঁথি বলেন, ইতির সাথে মানিয়ে নিয়ে সংসার করার জন্য জিল্লুর পরিবারের সবাইকে অনুরোধ জানিয়েছি। কোন আসুবিধা হলে আমাকে জানানোর জন্য আমার সেলফোন নম্বর দিয়ে এসেছি

উল্লেখ্য গত রবিবার কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক মো. জহির রায়হান বেশ ধুমধাম করে তিন মেয়েকে বিবাহ দিয়ে মানবতার দৃষ্টান্ত গড়েছেন। দিয়েছেন কণ্যার স্বীকৃতি। সেই তিন কণ্যার মধ্যে ইতি’ও একজন। ইতির স্বামীর বাড়ি কুষ্টিয়ার খোকসা শোমসপুর।
 

ট্যাগ: banglanewspaper খোকসা

খুলনা
তুর্কি স্থাপত্যের ছোঁয়া আছে ষাটগম্বুজ মসজিদে : তুরস্ক রাষ্ট্রদূত

banglanewspaper

বাংলাদেশে নিযুক্ত তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মুস্তাফা ওসমান তুরান বাগেরহাটে অবস্থিত বিশ্ব ঐতিহ্য ষাটগম্বুজ মসজিদ পরিদর্শন করেছেন।

রোববার (৩১ জুলাই) দুপুরে বেসরকারি একটি শিল্পগোষ্ঠীর আমন্ত্রণে হেলিকপ্টারযোগে বাগেরহাটে আসেন তিনি।

জানা গেছে, আজ রোববার দুপুর ১২টায় হেলিকপ্টারযোগে ঢাকা থেকে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া হয়ে বাগেরহাটে পৌঁছান তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মুস্তাফা ওসমান তুরান। পরে তিনি বিশ্ব ঐতিহ্য ষাটগম্বুজ মসজিদ ভ্রমণ শেষে একইদিন বেলা দেড়টায় হেলিকপ্টারযোগে বাগেরহাট থেকে যশোরের নওয়াপাড়ার উদ্দেশে যাত্রা করেন।

তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মুস্তাফা ওসমান তুরান বলেন, এই মসজিদ ১৫শ শতকের অসাধারণ নিদর্শন। ৬০টি পিলারের ওপর অসংখ্য গুম্বুজে আবৃত্ত মসজিদটি দুর্দান্ত একটি ইসলামিক স্থাপত্য। তুর্কি স্থাপত্যের ছোঁয়া আছে এই মসজিদে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন রাষ্ট্রদূত মুস্তাফা ওসমান তুরানের সঙ্গে তার ছেলে মেহমাদ আলফ তুরান, আকিজ গ্রুপের চেয়ারম্যান সেখ নাসির উদ্দিন, বাগেরহাট অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. হাফিজ আল আসাদ, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ মুছাব্বেরুল ইসলাম, বাগেরহাট জাদুঘরের কাস্টোডিয়ান মো. জায়েদ, সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কেএম আজিজুল ইসলাম প্রমুখ।

ট্যাগ:

খুলনা
পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে যোগ দিতে সাইকেলে রওনা দিলেন 'স্বপ্নবাজ মোকসেদ'

banglanewspaper

যশোর প্রতিনিধি : যশোরের বেনাপোল পৌরসভার পোড়াবাড়ি গ্রাম থেকে স্বপ্নের পদ্মা সেতু স্বচক্ষে দেখতে বাইসাইকেল চালিয়ে রওনা দিয়েছেন স্বপ্নবাজ মোকসেদ আলী (৫০)।

মোকসেদ আলী নামের এই স্বপ্নবাজ পোড়াবাড়ি গ্রামের মৃত পাতলাই সরদারের ছেলে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাঙালির স্বপ্ন ও আবেগের এই পদ্মা সেতু উদ্বোধন অনুষ্ঠানে শামিল হয়ে তিনি ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে থাকতে চান। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাকে বিশ্বের বুকে আরও একবার মাথা উঁচু করে দেওয়া দৃশ্যমান এই পদ্মা সেতু ছুঁয়ে দেখতে নিজের ব্যবহারের পুরাতন বাইসাইকেল নিয়ে তিনি রওনা হয়েছেন।

জানা যায়, ২০ জুন সোমবার ভোর ৫টা ৩০ মিনিটে ফজরের নামাজ শেষ করে যাত্রা করেন মোকসেদ। তিনি বাই-সাইকেলযোগে ইতোমধ্যেই পদ্মা সেতুর খুব কাছেই অবস্থান করছে বলে তার পরিবার সূত্রে জানা গেছে।

এ বিষয়ে বেনাপোলের সুশীল নাগরিক মুক্তিযোদ্ধা সন্তান ফারুক হোসেন উজ্জ্বল বলেন, এই সেতু শুধু বেনাপোলবাসীর নয় সমস্ত বাঙালি ও বাংলার অদম্য স্বপ্ন। ‘পদ্মা বহুমুখী সেতু’ উদ্বোধন কোটি হৃদয়ের আশা আকাঙ্ক্ষার বাস্তব প্রতিফলন। এই সেতু উদ্বোধনের প্রতীক্ষায় এমন কোটি কোটি মোকসেদ তার জ্বলন্ত উদাহরণ। আমি বেনাপোলবাসীর পক্ষ থেকে তার সুস্থতা কামনা করছি এবং তিনি তার স্বপ্ন পূরণ করে সহি-সালামতে ফিরে আসুক সেই কামনা করি।

(২২ জুন) বুধবার সকালে মোকসেদ আলী মুঠোফোনে জানান, আমি স্বপ্নের পদ্মা সেতু থেকে মাত্র ২৫ কিলোমিটার দূরে আছি। তার পুরাতন সাইকেল সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমার সাইকেল পুরানো হলে কী হবে খুব চলে। পদ্মা সেতু সম্পর্কে কিছু বলতে বললে তিনি বলেন, আমার বহু দিনের স্বপ্ন আমি সামনে দাঁড়িয়ে স্বচক্ষে আমার নিজের টাকায় বানানো পদ্মা সেতু দেখব।

প্রধানমন্ত্রীকে কিছু বলতে চান কি না এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমি অশিক্ষিত মানুষ তেমন কথা বলতে পারি না, আমি শুধু দোয়া করি তিনি যেন আরও অনেক দিন বেঁচে থাকেন’।

ট্যাগ:

খুলনা
কুষ্টিয়ায় আরও ১৭ মৃত্যু

banglanewspaper

কুষ্টিয়া করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ১১ জন করোনা পজিটিভ ছিল এবং ৬ জন করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন।

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে শুক্রবার সকাল ৮টার মধ্যে তাদের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মেজবাউল আলম।

তিনি জানান, বর্তমানে হাসপাতালে ১৭৯ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী এবং ৫৭ জনের উপসর্গসহ মোট ২৩৬ জন ভর্তি রয়েছে।

এদিকে পিসিআর ল্যাব এবং জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ১৭৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৫৭ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৩২ দশমিক ২০ শতাংশ।

ট্যাগ:

খুলনা
বিধিনিষেধের মধ্যে ইজিবাইকে পিকআপের ধাক্কায় নিহত ৬

banglanewspaper

সারা দেশে শুরু হওয়া ১৪ দিনের কঠোরতম বিধিনিষেধের মধ্যেই বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলায় পিকআপভ্যানের ধাক্কায় ইজিবাইকের ৬ যাত্রী নিহত হয়েছে। এতে আহত হয়েছে আরও একজন। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শুক্রবার (২৩ জুলাই) সকাল সোয়া ৭টার দিকে উপজেলার ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে বৈলতলী প্রাইমারি স্কুল এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ফকিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইদুল আনাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

ওসি জানান, পণ্যবোঝাই একটি পিকআপ মোংলার দিকে যাচ্ছিল। এসময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ইজিবাইককে চাপা দেয় পিকআপটি। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান ইজিবাইকের ৬ যাত্রী। তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের নাম পরিচয় জানা যায়নি। 

এ ব্যাপারে বাগেরহাট ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক গোলাম সরোয়ার জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ৬ জনকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগে একজনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছে এলাকাবাসী।

ট্যাগ:

খুলনা
কুষ্টিয়ায় ১০০টি অক্সিজেন সিলিন্ডারের ব্যবস্থা করলেন হানিফ

banglanewspaper

করোনা মহামারি পরিস্থিতি জটিল আকার ধারণ করায় নিজের নির্বাচনী এলাকায় ১০০টি অক্সিজেন সিলিন্ডারের ব্যবস্থা করে দিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া-৩ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য মাহবুবউল আলম হানিফ।

জানা যায়, গত ৬ ও ৭ মে ব্যবসায়ীদের সহযোগিতায় প্রায় এক কোটি টাকা বাজেটে কুষ্টিয়া মহিনি মিল মাঠ ও শেখ রাসেল স্টেডিয়ামে ১১ হাজার অসহায় কর্মহীন মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়। সেই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মাহবুবউল আলম হানিফ। খাদ্য বিতরণ কর্মসূচিতে এক কোটি টাকার পুরোটা খরচ হয়নি। এখান থেকে উদ্বৃত্ত টাকা দিয়েই মূলত ১০০টি অক্সিজেন সিলিন্ডারের ব্যবস্থা করেন আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।


কুষ্টিয়ায় করোনা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। সেখানে অক্সিজেন ছাড়া অন্যান্য চিকিৎসাসামগ্রীর ব্যবস্থা করবেন বলেও আশ্বস্ত করেন মাহবুবউল আলম হানিফ।

এদিকে কুষ্টিয়ায় করোনা পরিস্থিতি খুবই নাজুক। পরিস্থিতি বিবেচনায় কঠোর লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে পু‌রো জেলায়। প্রতিদিন সেখানে করোনা রোগীর সংখ্যা বাড়ায় অক্সিজেনের প্রয়োজনীয়তা বাড়ছে। ক্রমবর্ধমান এই করোনা রোগীদের অক্সিজেন সরবরাহ করতে কুষ্টিয়ার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে বেশ বেগ পেতে হচ্ছে। এই অবস্থায় সাংসদ মাহবুবউল আলম হানিফের উদ্যোগে সরবরাহকৃত অক্সিজেন সিলিন্ডার অনেক উপকারে আসবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

ট্যাগ: