banglanewspaper

বিয়ের পরেই নববধূকে যাতে দ্রুত এবং একাধিক সন্তান জন্ম দেওয়ার ওপর চাপ না দেওয়া হয়, তার জন্য উদ্যোগ নিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। বউ-শাশুড়িদের নিয়ে তারা সম্মেলনের আয়োজন করতে যাচ্ছে। জন্ম নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি এতে পরিবার কল্যাণের বিষয়টিও জোর দেওয়া হবে বলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে।

সেইসঙ্গে দারিদ্র্যসীমার নীচে বসবাসকারী দম্পতির সচেতনতা বাড়াতে ও আর্থিক সহায়তার ওপরও জোর দিচ্ছে মোদী সরকার।

নতুন নিয়মে বলা হয়েছে সরকারের গাইডলাইন মেনে সন্তানের জন্ম দিলে মিলবে ১০ থেকে ১৯ হাজার রুপির ইনসেনটিভ বা উৎসাহ ভাতা। যদিও সেক্ষেত্রে দু’টির বেশি সন্তানের জন্ম দেওয়া চলবে না বলেই কড়া শর্ত রেখেছে কেন্দ্রীয় সরকার। জন্মহার বেশি, গোটা ভারতে এমন সাতটি রাজ্যের ১৪৬টি জেলায় এই কর্মসূচিতে জোর দেওয়া হলেও কম-বেশি গোটা দেশেই তা পালন করা হবে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জগৎপ্রকাশ নাড্ডা।

বিয়ের দুই বছর পর ছেলে সন্তান হলে মিলবে ১০ হাজার রুপি উৎসাহ ভাতা। মেয়ে হলে মিলেবে ১২ হাজার। আবার দুই সন্তানের মধ্যে একটি ছেলে ও একটি মেয়ের জন্ম দিলে মিলবে ১৭ হাজার। দু’টি মেয়ে সন্তানের জন্ম দিলে কেন্দ্র ওই দম্পতিকে দেবে ১৯ হাজার রুপি।

গোটা বিশ্বের মধ্যে জনসংখ্যার ভিত্তিতে ভারতের স্থান দ্বিতীয়। চীনের পরেই। তাই জন্ম নিয়ন্ত্রণ এবং পরিবার কল্যাণের ওপর জোর দিচ্ছে কেন্দ্র।

ট্যাগ: banglanewspaper জন্ম নিয়ন্ত্রণ