banglanewspaper

ঐতিহাসিক ৭ মার্চ বাঙালির আত্মগৌরবের। এ দিনের জাতির জনকের ভাষণ বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও মুক্তির মূলমন্ত্র। এই ভাষণ ইতোমধ্যে জাতিসংঘ বিশ্ব ঐতিহ্যের দলিল হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে।

ঐতিহাসিক এ দিবসটিকে আরও স্মৃতিময় করতে ‘৭ মার্চ ভবন’ নামে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) একটি ভবন করা হয়েছে। সেখানে ৭ মার্চ জাদুঘরও রয়েছে।

শনিবার সকালে ‘৭ মার্চ ভবন’ উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনকালে তিনি ৭ মার্চ জাদুঘর পরিদর্শন করেন। এসময় পরিদর্শন বইয়ে নিজের মতামত লেখেন। এতে তিনি উল্লেখ করেন, ইতিহাসেকে স্মরণ করলে ভবিষ্যতকে সুন্দরভাবে গড়ে তোলা যায়।

সেখানে বঙ্গবন্ধু-কন্যা লিখেছেন, ‘রোকেয়া হলে ৭ মার্চ ভবনে ঐতিহাসিক ৭ মার্চের উপর যে জাদুঘর নির্মাণ করা হয়েছে, তা পরিদর্শন করে আমি আনন্দিত। কারণ ইতিহাসেকে স্মরণ করলে ভবিষ্যতকে সুন্দরভাবে গড়ে তোলা যায়।’

‘৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭১ সালে রেসকোর্স ময়দানে বাঙালি জাতিকে মুক্তিযুদ্ধের প্রস্তুতি গ্রহণ করার আহ্বান জানিয়েছিলেন। আর সেই ভাষণই প্রকৃত পক্ষে আমাদের স্বাধীনতার ঘোষণা।’

‘ইউনেস্কো ৭ মার্চের ভাষণকে বিশ্ব ঐতিহ্যের দলিল হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে। বাঙালি জাতি আজ সম্মান পেয়েছে, আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেয়েছে। বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে। আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এবং সকল শিক্ষক, কর্মচারী ও ছাত্রছাত্রীদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আমি এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী হিসেবে গর্ববোধ করি’ যোগ করেন প্রধানমন্ত্রী।

ট্যাগ: banglanewspaper জাদুঘর