banglanewspaper

ফরহাদ খান, নড়াইল: নড়াইল-২ আসনে দলীয় মনোনয়নের ব্যাপারে আশাবাদী আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় যুব ও ক্রীড়া উপ-কমিটির সদস্য শেখ আমিনুর রহমান হিমুসহ দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকেরা। এ লক্ষ্যে নড়াইলে ব্যাপক কাজ করে যাচ্ছেন তিনি। তৃণমূলের জনপ্রিয় মুখ আমিনুর রহমান হিমু ব্যক্তিগত ভাবে উন্নয়নের পাশাপাশি ‘জনপ্রতিনিধি’ হয়েও জেলার সার্বিক উন্নয়ন করতে চান। ইতোমধ্যে ব্যক্তিগত ভাবে নড়াইলে ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন হিমু। স্বপ্ন দেখেন উন্নত ও সমৃদ্ধশালী নড়াইল গড়ে তোলার।

সেই লক্ষ্যে শিক্ষা, মানবসেবা, প্রতিবন্ধীদের উন্নয়ন, ‘ক্লিন নড়াইল, গ্রিন নড়াইল’, স্বাস্থ্যসেবাসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে উন্নয়ন কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। ভবিষ্যতে নড়াইলে একটি মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল এবং বিশ্ববিদ্যালয় করার পরিকল্পনা আছে তার। এদিকে, ব্যক্তিগত ভাবে উন্নয়নের পাশাপাশি ‘জনপ্রতিনিধি’ হয়েও উন্নয়ন করতে চান হিমু। এ লক্ষ্যে জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দলীয় মনোনয়ন পেতে অবিচল রয়েছেন তিনি। মনোনয়ন পেলে বিজয়ী হবেন বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

হিমু নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন পেশার মানুষের সঙ্গে মতবিনিময়, গণসংযোগ এবং দলীয় কর্মসূচীগুলো পালন করে যাচ্ছেন। তৃণমূল নেতা-কর্মীদের খোঁজখবর রাখার পাশাপশি কেন্দ্রীয় ভাবেও ভূমিকা রাখছেন তিনি। পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ হিসেবে এলাকায় সুনাম রয়েছে হিমুর। এসব উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডকে আরো গতিশীল করতে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমিনুর রহমান হিমুকে নড়াইল-২ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে দেখতে চায় দলীয় নেতাকর্মীসহ নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন পেশার মানুষ। নড়াইলবাসীসহ নেতাকমী ও সমর্থকেরা ইতোমধ্যে আ’লীগ নেতা হিমুর পোস্টার, তোরণ, ব্যানার, লিফলেট ছাড়াও বিভিন্ন প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। 

শিল্পপতি, শিক্ষানুরাগী এবং আ’লীগের কেন্দ্রীয় যুব ও ক্রীড়া উপ-কমিটির সদস্য আমিনুর রহমান হিমু বলেন, নড়াইলের উন্নয়নে ইতোপূর্বে কে কী করেছেন, সেই দোষারোপ করব না। তবে নড়াইল-২ আসন থেকে জনপ্রতিনিধি হওয়ার সুযোগ পেলে জেলার সার্বিক উন্নয়ন করতে চাই। প্রধানমন্ত্রী যদি আমাকে দলীয় মনোনয়ন দেন, জনগণ যদি আমাকে নির্বাচিত করেন; তাহলে ‘নড়াইলের উন্নয়ন’ নিয়ে আর ভাবতে হবে না-একথা দৃঢ়কণ্ঠে বলতে পারি। এক্ষেত্রে ‘নড়াইল-২ আসন হবে উন্নয়নের রোল মডেল’, উন্নয়নের অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত। দুই বছরের মধ্যে নড়াইলের দৃশ্যমান উন্নয়ন সাধিত হবে। আমার স্বপ্ন এলাকার উন্নয়ন। আমি অতিথির পাখির মতো দু’দিনের জন্য আসিনি। আমি উন্নয়ন আর মানুষের কাছাকাছি সবসময় থাকতে চাই। কারণ প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন, এক্ষেত্রে তার মন-মানসিকতার মতো আরো মানুষ প্রয়োজন। যাতে করে সেই এলাকার বেশি উন্নয়ন হয়। প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নের সেই অনুপ্রেরণা থেকে ব্যবসার পাশাপাশি রাজনীতিতে এসেছি। হিমু আরো বলেন, মানবসেবা পরম ধর্ম। মানবসেবা না করলে সমাজ এগোবে কীভাবে। কারণ, আল্লাহ একজনকে দেন, দশজন উপকৃত হয়। আল্লাহ আমাকে দিয়েছেন, সেই সুযোগ ও সম্ভাবনা কাজে লাগানো উচিত। স্বচ্ছল মানুষগুলো মানবসেবা না করলে অন্যরা উপকৃত হবে কীভাবে। মানবসেবা আমার কাছে সম্পদ মনে হয়। আমি যতদিন বেঁচে থাকব, ততদিন মানবসেবা করে যাবো।   

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, আ’লীগ নেতা আমিনুর রহমান হিমু ইতোমধ্যে ব্যক্তিগত ভাবে প্রতিবন্ধীদের উন্নয়নে কাজ করেছেন। শিক্ষার মান উন্নয়নে নড়াইলের আমাদা আদর্শ কলেজে ‘বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও গ্রন্থাগার ভবন’ নির্মাণ করে দিয়েছেন। এছাড়া সদরের দারিয়াপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার মান উন্নয়নে তিন লাখ টাকার অনুদান, লোহাগড়ার ঝামারভোগ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বালি ভরাট করে জলাবদ্ধতা দুরকরণ এবং ২০১৭ সালের ৫ আগস্ট লোহাগড়ায় আরএল পাশা সরকারি বিদ্যালয় চত্বরে এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত প্রায় ৩০০ শিক্ষার্থীকে সম্মাননা পদক ও আর্থিক অনুদান দিয়েছেন তিনি। ২০১৮ সালে নড়াইল ও লোহাগড়ার দুই শতাধিক দরিদ্র এসএসসি পরীক্ষার্থীকে ফরমপূরণে আর্থিক সহযোগিতা এবং লোহাগড়া সরকারি আদর্শ কলেজের ৫০ বছর পূর্তি অনুষ্ঠান উপলক্ষ্যে এক লাখ টাকার অনুদান দিয়েছেন।

এদিকে, সদরের চরশালিখায় প্রস্তাবিত ‘বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মসজিদ ও মাদরাসা’ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেছেন তিনি। গত ৯ অক্টোবর অদম্য মেধাবী শিক্ষার্থী তানহা ইসলামের হাতে অনার্স প্রথমবর্ষে ভর্তি ফি চার হাজার ৫১০ টাকাসহ মোট পাঁচ হাজার টাকা দিয়েছেন শিক্ষানুরাগী হিমু। শিক্ষা উপ-বৃত্তির টাকা জমিয়ে এসএসসি ও এইচএসসি পর্যন্ত পড়ালেখা করতে পারলেও আর্থিক অস্বচ্ছলতার কারণে অনার্সে ভর্তি হতে পারছিলেন নড়াইলের লোহাগড়ার মেয়ে তানহা। 

এদিকে, ক্লিন নড়াইল, গ্রিন নড়াইল’ গড়ার লক্ষ্যে ২০১৭ সালে জেলা প্রশাসনকে বৃক্ষরোপনে তিন লাখ টাকার সহায়তা দিয়েছেন হিমু। এছাড়া ঝামারঘোপ সার্বজনীন কালিমন্দির নির্মাণ কাজে প্রায় এক লাখ টাকা প্রদানসহ গত ১০ জানুয়ারি নড়াইল সদরের মুলিয়ায় একটি মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তরসহ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি মসজিদ, মাদরাসা, ঈদগাহসহ বিভিন্ন ধর্মীয় সামাজিক-সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানে আর্থিক সহযোগিতা দিয়েছেন। অন্যদিকে, গত শীত মওসুমে লোহাগড়ার মুক্তিযোদ্ধাসহ তাদের পরিবার-পরিজনের মাঝে এক হাজার ৩৫০ কম্বল উপহারসহ নড়াইলের বিভিন্ন এলাকায় শীর্তাত অসহায় মানুষের মাঝে সাড়ে ছয় হাজার কম্বল প্রদান করেন। গত ৫ মে কালবৈশাখী ঝড়ে নড়াইল সদরের মুলিয়া ইউনিয়নের বনগ্রামের শৈলেন বিশ্বাসের টিনের ঘরটি লন্ডভন্ড হলে গৃহহীন পরিবারকে সাতদিনের মধ্যে ঘর নির্মাণ করে দেন হিমু।

২ মার্চ আ’লীগের যুব ও ক্রীড়া উপ-কমিটির কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কবর জিয়ারতসহ দোয়া এবং মোনাজাত করেন শিক্ষানুরাগী ও সমাজসেবক শেখ আমিনুর রহমান হিমুসহ দলীয় নেতৃবৃন্দ। ২৭ মার্চ নড়াইল মর্ডাণ সিটি লায়ন্স ক্লাবের সভাপতি মনোনীত করা হয় আমিনুর রহমান হিমুকে। গত ১৮ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিলে অনুদান দিয়েছেন শিল্পপতি আমিনুর রহমান হিমু। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে অনুদানের এ চেক তুলে দেন তিনি।  নড়াইল প্রেসক্লাবের দাতাসদস্যও হিমু। 

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার ঈশানগাতি গ্রামের সন্তান হিমু ব্যবসার পাশাপাশি রাজনীতিবিদ, সমাজসেবক ও শিক্ষানুরাগী হিসেবে জেলায় ব্যাপক পরিচিত। ঢাকার মহাখালীতে অবস্থিত ‘সুরাইয়া গ্রুপ’ এর চেয়ারম্যান ও এমডি। এ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে গড়ে তুলেছেন বহু মানুষের কর্মসংস্থান। ব্যবসায়িক কাজে দেশে-বিদেশে ব্যস্ত থাকার পাশাপাশি রাজনীতি ও মাতৃভূমির টানে ছুটে আসেন নড়াইলের মাটি ও মানুষের কাছে। 
 

ট্যাগ: bdnewshour24 নড়াইল

খুলনা
কুষ্টিয়ায় আরও ১৭ মৃত্যু

banglanewspaper

কুষ্টিয়া করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ১১ জন করোনা পজিটিভ ছিল এবং ৬ জন করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন।

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে শুক্রবার সকাল ৮টার মধ্যে তাদের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মেজবাউল আলম।

তিনি জানান, বর্তমানে হাসপাতালে ১৭৯ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী এবং ৫৭ জনের উপসর্গসহ মোট ২৩৬ জন ভর্তি রয়েছে।

এদিকে পিসিআর ল্যাব এবং জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় ১৭৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৫৭ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৩২ দশমিক ২০ শতাংশ।

ট্যাগ:

খুলনা
বিধিনিষেধের মধ্যে ইজিবাইকে পিকআপের ধাক্কায় নিহত ৬

banglanewspaper

সারা দেশে শুরু হওয়া ১৪ দিনের কঠোরতম বিধিনিষেধের মধ্যেই বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলায় পিকআপভ্যানের ধাক্কায় ইজিবাইকের ৬ যাত্রী নিহত হয়েছে। এতে আহত হয়েছে আরও একজন। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শুক্রবার (২৩ জুলাই) সকাল সোয়া ৭টার দিকে উপজেলার ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে বৈলতলী প্রাইমারি স্কুল এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ফকিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইদুল আনাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

ওসি জানান, পণ্যবোঝাই একটি পিকআপ মোংলার দিকে যাচ্ছিল। এসময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ইজিবাইককে চাপা দেয় পিকআপটি। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান ইজিবাইকের ৬ যাত্রী। তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের নাম পরিচয় জানা যায়নি। 

এ ব্যাপারে বাগেরহাট ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক গোলাম সরোয়ার জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ৬ জনকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগে একজনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছে এলাকাবাসী।

ট্যাগ:

খুলনা
কুষ্টিয়ায় ১০০টি অক্সিজেন সিলিন্ডারের ব্যবস্থা করলেন হানিফ

banglanewspaper

করোনা মহামারি পরিস্থিতি জটিল আকার ধারণ করায় নিজের নির্বাচনী এলাকায় ১০০টি অক্সিজেন সিলিন্ডারের ব্যবস্থা করে দিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া-৩ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য মাহবুবউল আলম হানিফ।

জানা যায়, গত ৬ ও ৭ মে ব্যবসায়ীদের সহযোগিতায় প্রায় এক কোটি টাকা বাজেটে কুষ্টিয়া মহিনি মিল মাঠ ও শেখ রাসেল স্টেডিয়ামে ১১ হাজার অসহায় কর্মহীন মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়। সেই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মাহবুবউল আলম হানিফ। খাদ্য বিতরণ কর্মসূচিতে এক কোটি টাকার পুরোটা খরচ হয়নি। এখান থেকে উদ্বৃত্ত টাকা দিয়েই মূলত ১০০টি অক্সিজেন সিলিন্ডারের ব্যবস্থা করেন আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।


কুষ্টিয়ায় করোনা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। সেখানে অক্সিজেন ছাড়া অন্যান্য চিকিৎসাসামগ্রীর ব্যবস্থা করবেন বলেও আশ্বস্ত করেন মাহবুবউল আলম হানিফ।

এদিকে কুষ্টিয়ায় করোনা পরিস্থিতি খুবই নাজুক। পরিস্থিতি বিবেচনায় কঠোর লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে পু‌রো জেলায়। প্রতিদিন সেখানে করোনা রোগীর সংখ্যা বাড়ায় অক্সিজেনের প্রয়োজনীয়তা বাড়ছে। ক্রমবর্ধমান এই করোনা রোগীদের অক্সিজেন সরবরাহ করতে কুষ্টিয়ার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে বেশ বেগ পেতে হচ্ছে। এই অবস্থায় সাংসদ মাহবুবউল আলম হানিফের উদ্যোগে সরবরাহকৃত অক্সিজেন সিলিন্ডার অনেক উপকারে আসবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

ট্যাগ:

খুলনা
লকডাউনের চতুর্থ দিনে খুলনায় ৬০ মামলা

banglanewspaper

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে দেশে সর্বাত্মক লকডাউন চলছে। করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ নিশ্চিতকরণে খুলনা নগরীতেও প্রশাসন রয়েছে কঠোর অবস্থানে। 

সেই ধারাবাহিকতায় শনিবার (১৭ এপ্রিল) লকডাউনের চতুর্থ দিনেও কঠোর অবস্থানে ছিল প্রশাসন। এদিন খুলনা জেলাজুড়ে অভিযান পরিচালনা করে ৬০টি মামলায় ৩৮ হাজার সাতশো টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসনের মিডিয়া সেলের সূত্রে জানা যায়, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেনের নির্দেশে এবং অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইউসুপ আলীর তত্ত্বাবধানে এদিন সমগ্র খুলনা জেলায় কোভিড-১৯ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ব্যাপক অভিযান পরিচালিত হয়।

খুলনা মহানগরে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটদের নেতৃত্বে দিনব্যাপী মোট ছয়টি টিম অভিযান পরিচালনা করে ৪৪ মামলায় ২৬ হাজার চারশো টাকা জরিমানা করা হয়।

এছাড়া বটিয়াঘাটা, দাকোপ, পাইকগাছা ও দিঘলিয়া উপজেলায় অভিযান পরিচালনা করেন স্ব-স্ব উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী কমিশনাররা (ভূমি)। এসব অভিযানে উপজেলায় মোট ১৬ মামলায় ১২ হাজার তিনশো টাকা জরিমানা করা হয়। ‘সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন, ২০১৮’ এবং ‘দণ্ডবিধি, ১৮৬০’ এর সংশ্লিষ্ট ধারার বিধান মোতাবেক অর্থদণ্ড প্রদান করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটরা।

মোবাইল কোর্ট পরিচালনায় সহযোগিতা করেন পুলিশ, আনসার, এপিবিএন ও র‍্যাবের সদস্যরা। করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ নিশ্চিতকরণে জেলা প্রশাসনের এমন উদ্যোগ অব্যাহত থাকবে।

ট্যাগ:

খুলনা
শৈত্যপ্রবাহে চুয়াডাঙ্গায় জনজীবন বিপর্যস্ত

banglanewspaper

চুয়াডাঙ্গার ওপর দিয়ে টানা শৈত্যপ্রবাহ বয়ে চলায় ভোগান্তিতে পড়েছেন এ অঞ্চলের নিম্ন আয়ের মানুষ। চলতি সপ্তাহ ধরে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহ বয়ে চলছে এ জেলার ওপর দিয়ে। উত্তর থেকে বয়ে আসা হিমেল বাতাসে শীতের তীব্রতা আরও বেশি অনুভূত হচ্ছে।  

বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টায় জেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৭ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

চুয়াডাঙ্গার ওপর দিয়ে বয়ে যাচ্ছে তীব্র থেকে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ। কুয়াশা আর ঠান্ডা বাতাসে জনজীবন একেবারে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে।

চুয়াডাঙ্গা আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সামাদুল ইসলাম জানান, বুধবার সকাল ৯ টায় জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিলো ৭ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এদিকে শীতে দরিদ্র ও ছিন্নমূল মানুষ গরম কাপড়ের অভাবে কষ্টে দিনযাপন করছে। রেল স্টেশনের প্লাটফর্মে শীতের রাত কষ্টে পার করছে দরিদ্র ও ছিন্নমূল মানুষগুলো। জেলায় শৈত্যপ্রবাহ আরও বেশ কয়েক দিন থাকতে পারে। ঠান্ডা বাতাসের কারণে মানুষের দুর্ভোগ বেশি।

রোদের প্রখরতা না থাকায় ও বাতাসের গতিবেগ বেশি থাকায় শীতের তীব্রতা বেশি অনুভূত হচ্ছে।

ট্যাগ: