banglanewspaper

যবিপ্রবি প্রতিনিধি: যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (যবিপ্রবি) লেদার টেকনোলজি, ক্লাইমেট চেঞ্জ অ্যান্ড ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট, নার্সিং অ্যান্ড হেল্থ সায়েন্স, বাংলা, ফিজিওথেরাপি অ্যান্ড রিহ্যাবিলিয়েটশন এবং মার্কেটিং বিভাগ খোলার বিষয়ে ইতিবাচক মনোভাব জানিয়েছেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) প্রতিনিধি দল। খুব শিগগিরই এই বিষয়ে ইউজিসি যবিপ্রবিকে আনুষ্ঠানিকভাবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবে। ফলে আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকেই বিভাগ ছয়টিতে ভর্তি কার্যক্রম শুরু করা যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। 

বুধবার দুপুরে ইউজিসির সদস্য অধ্যাপক ড. এম. শাহ্ নওয়াজ আলির নেতৃত্বে প্রতিষ্ঠানটির তিন সদস্যের প্রতিনিধি দল যবিপ্রবিতে এসে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভৌত অবকাঠামো পরির্দশন করেন। প্রতিনিধি দলটি, যবিপ্রবির অবকাঠামোগত উন্নয়ন, গবেষণার সুযোগ ও সামগ্রিক শিক্ষার পরিবেশ দেখে সন্তোষও প্রকাশ করেন। 

পরে ইউজিসির প্রতিনিধি দলটি যবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো: আনোয়ার হোসেনের সঙ্গে তাঁর কার্যালয়ে এক বৈঠকে মিলিত হন। এতে সভাপতিত্ব করেন ইউজিসির সদস্য অধ্যাপক ড. এম. শাহ্ নওয়াজ আলি। যবিপ্রবির ছয়টি বিভাগ খোলার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভৌত অবকাঠামোর উন্নয়ন দেখে আমরা মুগ্ধ। এ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষাক্ষেত্রে আরও বেশি অবদান রাখবে। আমরা মনে করি, বিভাগ ছয়টি খোলার আবশ্যিকতা ও প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভৌত অবকাঠামোগত উন্নয়নসহ সার্বিক বিষয়গুলো ইউজিসিতে জানাবো। 

যবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো: আনোয়ার হোসেন বলেন, "এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং শিক্ষার্থীদের মধ্যে নিবিড় বন্ধন রয়েছে। আর আমাদের বেশির ভাগ শিক্ষকের বয়স পঞ্চাশের নিচে। আমি মনে করি, তাদের দ্বারা উদ্ভাবনী নতুন কিছু করা সম্ভব। যবিপ্রবিকে বিশ্বমানের বিশ্ববিদ্যালয় করতে আমরা অঙ্গীকারাবদ্ধ। এ জন্য ইউজিসির সাহায্য ও সহযোগিতা চাই।"

বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক শেখ আবুল হোসেন, প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন বিপ্লব কুমার বিশ্বাস, বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো: আনিছুর রহমান, কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক শেখ মিজানুর রহমান, অ্যাগ্রো প্রডাক্ট অ্যান্ড প্রসেসিং টেকনোলজির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মৃত্যুঞ্জয় বিশ্বাস, ইউজিসির পরিচালক মো: কামাল হোসেন, যবিপ্রবির রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো: আহসান হাবীব, পরিকল্পনা ও উন্নয়ন দপ্তরের পরিচালক পরিতোষ কুমার বিশ্বাস, প্রধান প্রকৌশলী হেলাল উদ্দিন পাটোয়ারি, ইউজিসির প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো: আমিরুল ইসলাম প্রমুখ।

উল্লেখ্য, বর্তমানে যবিপ্রবিতে সাতটি অনুষদের অধীনে ২২টি বিভাগ রয়েছে। এই ছয়টি বিভাগ যোগ হলে যবিপ্রবিতে বিভাগের সংখ্যা হবে ২৮টি। গত ৩০ জুন বিশ্ববিদ্যালয়ের রিজেন্ট বোর্ডের সভায় বিভাগ ছয়টি খোলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

ট্যাগ: bdnewshour24 যবিপ্রবি