banglanewspaper

দলে ফিরেই সেঞ্চুরি পেলেন সৌম্য সরকার, অন্যদিকে ফর্ম ধরে রেখে ইমরুল কায়েস পূর্ণ করলেন শতক। তাই জিম্বাবুয়ের করা ২৮৬ রানের পথটা হয়ে গেল সহজ। মাত্র ৩ উইকেট হারিয়ে ৪৭ বল আগেই জয় নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ। ৭ উইকেটের এই জয়ে তিন ম্যাচের সিরিজ ৩-০তে জিতে সফরকারীদের হোয়াইটওয়াশ করলো টাইগাররা।

চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বড় সংগ্রহ দাঁড় করে জিম্বাবুয়ে। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শন উইলিয়ামসের হার না নামা ১২৯ রানের সঙ্গে ব্রেন্ডন টেলরের ৭৫ রানে ভর দিয়ে নির্ধারিত ৫০ ওভারে সফরকারীরা ৫ উইকেটে করে ২৮৬ রান। কঠিন এই লক্ষ্য সৌম্যর ১১৭ ও ইমরুলের ১১৫ রানের ঝলমলে দুটো ইনিংসে সহজেই পেরিয়ে গেছে বাংলাদেশ।

ইনিংসের প্রথম বলে লিটন দাস রানের খাতা খোলার আগে আউট হলেও সৌম্য-ইমরুলের ব্যাটে লড়াইয়ে ফেরে স্বাগতিকরা। দ্বিতীয় উইকেটে তারা গড়েন ২২০ রানের জুটি। তাদের আউটের পর মুশফিকুর রহিম (২৮*) ও মোহাম্মদ মিঠুন (৭*) নিশ্চিত করেন দলের জয়।

ঝড়ো সেঞ্চুরিতে দলের জয়ে অবদান রাখায় সৌম্যর হাতে উঠেছে ম্যাচসেরার পুরস্কার। আর সিরিজসেরা? ব্যাট হাতে রানের বৃষ্টি ঝরানো ইমরুল জিতেছেন পুরস্কারটি।

আরেকটি সেঞ্চুরি ইমরুলের

সৌম্য সরকারের পর সেঞ্চুরির উৎসবে মাতলেন ইমরুল কায়েস। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ছন্দে থাকার ফায়দা তুলে নিয়ে এক ম্যাচ বিরতি দিয়ে পেলেন দ্বিতীয় সেঞ্চুরির দেখা।

প্রথম ওয়ানডে খেলেছিলেন ওয়ানডে ক্যারিয়ারের সর্বোচ্চ ১৪৪ রানের ইনিংস। চট্টগ্রামে পরের ম্যাচেও সেঞ্চুরির সম্ভাবনা জাগিয়েছিলন তিনি। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত ফিরতে হয় ৯০ রানে। তবে সিরিজের শেষ ম্যাচে ভুল করেননি ইমরুল। চমৎকার ব্যাটিংয়ে তুলে নিয়েছেন ৫০ ওভারের ম্যাচের চতুর্থ সেঞ্চুরি। ওয়েলিংটন মাসাকাদজার বলে আউট হওয়ার আগে এই ওপেনার ১১২ বলে করেন ১১৫ রান। চমৎকার ইনিংসটি তিনি সাজিয়েছেন ১০ চার ও ২ ছক্কায়।

দুর্দান্ত সেঞ্চুরির পর সৌম্যর বিদায়

অসাধারণ এক ইনিংস খেলে আউট হয়েছেন সৌম্য সরকার। জিম্বাবুয়ের বোলারদের ওপর ঝড় বইয়ে তুলে নিয়েছেন ওয়ানডে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ইনিংস। শেষ পর্যন্ত ১১৭ রানে থেমেছেন তিনি হ্যামিল্টন মাসাকাদজার বলে।

মাসাকাদজার বলে লং অনে বিগ শট খেলতে চেয়েছিলেন সৌম্য, কিন্তু তার ব্যাটের নিচের দিকে লেগে বল উঠে যায় উপরে। ভাসতে থাকা কঠিন ক্যাচটি সীমানার একটু আগে থেকে তালুবন্দি করেন ডোনাল্ড তিরিপানো। যাতে ভাঙে সৌম্যর সঙ্গে ইমরুল কায়েসের গড়া ২২০ রানের জুটি। তার আগেই অবশ্য দেশের মাটিতে যেকোনও উইকেটে সর্বোচ্চ রানের জুটি গড়ার রেকর্ড গড়ে ফেলেন তারা।

ফিরেই সৌম্যর সেঞ্চুরি

ওয়ানডে দলে ফেরাটা সেঞ্চুরিতে রাঙিয়ে নিলেন সৌম্য সরকার। প্রথম দুই ওয়ানডেতে উপেক্ষিত থাকার জবাবটা দিলেন তিনি দারুণভাবে। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি পূরণ করার উৎসবটা তাই একটু আলাদাই ছিল তার।

হাফসেঞ্চুরির পর আরও ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছিলেন সৌম্য। প্রথম ফিফটি করতে যেখানে খেলেছেন ৫৪ বল, সেখানে পরের ফিফটি করতে লেগেছে তার মাত্র ২৭ বল। ৮১ বলে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি করেছেন তিনি ৮ চার ও ৪ ছক্কায়।

ট্যাগ: bdnewshour24 ইমরুল টাইগার সৌম্য সরকার