banglanewspaper

পোল্ট্রি প্রানিজ আমিষের অন্যতম যোগান দাতা  হলেও পোল্ট্রি ফিড সম্পর্কে নানা প্রকার নেতিবাচক সংবাদের ভিড়ে এ পুষ্ঠির যোগান অনেকটা বাঁধাগ্রস্থ হচ্ছে। নেতিবাচক সংবাদগুলির অবৈজ্ঞানিক ও তথ্যবিভ্রাট জাতিকে পূনরায় মেধা শুণ্য করার হীন ষডযন্ত্র কিনা নতুন করে ভাবতে হবে।

সুপারশপ ও খুচরা মুরগি বিক্রিতে স্বাস্থ্যসম্মত পরিবেশ নিশ্চিত করা পুরোপুরি সম্ভব না হলেও পরিবেশ সম্মতভাবে জবাই, সংরক্ষণ ও মানসম্মত ফিড নিশ্চিতে প্রাণী সম্পদ অফিস কাজ করে যাচ্ছে। এ প্রক্রিয়া আরও জোরদার করার জন্য জেলা প্রশাসন, বিএসটিআই ও জাতীয় ভোক্তা সংরক্ষণ অধিপ্তর ও ক্যাব কাজ করে যাচ্ছে।

সে কারনে পোল্ট্রি মাংশ খাওয়া নিয়ে বিভ্রান্ত না হয়ে এখাতে স্বাস্থ্যকর পরিবেশ নিশ্চিত, মানসম্মত ফিড নিশ্চিত করার পাশাপাশি ভোক্তা পর্যায়ে সচেতনতা বাড়ানোর তাগিদ প্রদান করা হয়েছে। খুচরা মুরগি বিক্রেতা, খামারী, পোল্ট্রি ফিড বিক্রেতাদের এ বিষয়ে মাঠ পর্যায়ে নজরদারি ও তদারকি আরও বাড়ানোর জন্য দায়িত্বশীল প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতি দাবি জানিয়েছেন কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) চট্টগ্রাম।

একই সাথে সুপারশপ গুলিতে ড্রেসড (প্রক্রিয়াজাতকৃত) মুরগি গুলি মানসম্মত জবাই খানায় প্রক্রিয়াজাত হচ্ছে কিনা এবং সেখানে নিরাপদ খাদ্যের যাবতীয় অনুসরনীয় বিধানগুলি পুরোপুরি মেনে চলা হচ্ছে কিনা সে বিষয়ে সুপারশপ ও মুরগি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের পরিবেশিত মুরগির মান সরেজমিনে তদারকি করা এবং যথাযথ মানহীন খাদ্য-পণ্য বাজারজাত করলে তার বিরুদ্ধে প্রয়েজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এ লক্ষ্যে প্রাথমিক ভাবে চট্টগ্রামে নগরীতে প্রক্রিয়াজাতকৃত মুরগি বিক্রিতে নিয়োজিত সুপারশপে সরবরাহকারী, খামারী, ফিড বিক্রেতাদের প্রাণী সম্পাদ অফিস ও ক্যাব প্রতিনিধি সমন্বয়ে সরেজমিনে পরিদর্শন করা হবে। ২৭ জানুয়ারি ২০১৯ইং নগরীর খুলসীতে জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ক্যাব’র পোল্ট্রি সেক্টরে সুশাসন প্রকল্পের উদ্যোগে জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তার সাথে অনুষ্ঠিত অ্যাডভোকেসী সভায় উপরোক্ত সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়।

ইউকে এইড, বৃটিশ কাউন্সিলের সহায়তায় প্রকাশ প্রকল্পের কারিগরী সহযোগিতায় পোল্ট্রি সেক্টরে সুশাসন প্রকল্প, কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) চট্টগ্রাম আয়োজনে সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মোহাম্মদ রেয়াজুল হক জসিম, আলোচনায় অংশনেন ক্যাব কেন্দ্রিয় কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট এস এম নাজের হোসাইন, থানা পশু সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ জাকিয়া আকতার, ভেটেরিনারী সার্জন ডাঃ সেতু ভুষণ দাস, ক্যাব চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাধারন সম্পাদক কাজী ইকবাল বাহার ছাবেরী, ক্যাব দক্ষিন জেলা সভাপতি আলহাজ্ব আবদুল মান্নান, মহানগর সাধারন সম্পাদক অজয় মিত্র শংকু, ক্যাব পাঁচলাইশের সেলিম জাহ্ঙ্গাীর, ক্ষুদ্র খামারী নাজিম উদ্দীন, সুলতানা পারভীন লিপি, বাসকেট’র আলী আকবর, স্বপ্নের মোহাম্মদ রাকিব হোসাইন, দৈনিক পূর্বদেশ’র স্টাপ রির্পোটার এম এ হোসেন প্রমুখ।

সভায় নিরাপদ খাদ্য বিষয়ে তৃণমূল পর্যায়ে গণসচেতনতা সৃষ্ঠির লক্ষ্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, নগরীর হাট-বাজার, প্রান্তিক খামারী পোল্ট্রি খাদ্য বিক্রেতা, খুচরা মুরগি বিক্রেতা পর্যায়ে আরও সচেতনতামুলক কর্মসুচির আয়োজন করা, খুচরা মুরগি বিক্রিতে স্বাস্থ্যসম্মত মডেল বিক্রয় কেন্দ্র স্থাপনে উৎসাহিত করতে বেশ কিছু উদ্যোগ নেবার সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়।

একই সাথে তৃণমূল পর্যায়ে মুরগি উৎপাদনকারী খামার, মুরগির খাদ্য উৎপাদনকারী, খুচরা মুরগি বিক্রেতাদের কর্মকান্ড পর্যবেক্ষনের জন্য মাঠ পর্যায়ে প্রাণী সম্পাদ অফিস ও ক্যাব যৌথ পরিদর্শন কার্যক্রম পরিচালনা করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

এছাড়াও পোল্ট্রি সেক্টরে নিরাপদ খোদ্য নিশ্চিত করতে জেলা প্রশাসন, জেলা প্রাণী সম্পদ অফিস ও বিএসটিআই এর ভ্রাম্যমান আদালত, জাতীয় ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরের বাজার তদারকি আরও জোরদার করার দাবি জানানো হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

ট্যাগ: bdnewshour24 সুপারশপ খুচরা বাজার মুরগির মান চট্রগ্রাম ক্যাব