banglanewspaper

আলফাজ সরকার আকাশ, শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি: দুই মেয়ে পরীক্ষার্থী। তাদের পড়ালেখার খরচসহ সংসার চলে টেনেটুনে। তারপরও  হাসি ছিলো কৃষক ফরিদের মুখে। মেয়েরা পড়ালেখা করে দেশের জন্য কাজ করবে। পরিবারের একটু সুখের আশায়  রাতদিন এবারের লিচু বাগানের পরিচর্যা করে আসছিলেন গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার উজিলাব গ্রামের সিরাজ উদ্দিনের পুত্র কৃষক শেখ ফরিদ।

কিন্তু মাত্র কয়েক মিনিটের শিলা বৃষ্টিতে আজ সেই কৃষকের স্বপ্ন মাটি হয়ে গেলো। গত ২৭ ফেব্রুয়ারি বিকাল সাড়ে তিনটায় শ্রীপুরে হঠাৎ শিলা বৃষ্টি হয়। এতে ওই কৃষকের ২৫০ টি লিচু গাছের শুধু মুকুল ঝরেই শেষ হয়নি বরং গাছের ডালপালা ভেঙ্গে চুরমার হয়ে যায়। সেই সাথে মাটি হয়ে গেলো ফরিদের বেঁচে থাকার স্বপ্ন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ঝড় ও শিলা বৃষ্টিতে গাছের ডালপালা ভেঙ্গে খন্ড খন্ড হয়ে পড়ে আছে। পাশেই বসে কাঁদছে স্বপ্ন মাটি হওয়া শেখ ফরিদ। ঝড়ের ২০ মিনিট আগেও তরতাজা গাছ গুলোতে পরিচর্যায় ব্যস্থ ছিলেন তিনি। গাছে ধরা মুকুল গুলো আজও তার চোখে ভাসে। হঠাৎ ঝড়ে সব যেন এলোমেলো হয়ে গেছে ওই কৃষকের।

কৃষক শেখ ফরিদ জানান, আকস্মিক শিলা বৃষ্টি ও  ঝড়ে  আমি নিঃস্ব হয়ে গেছি। লিচু বাগানই ছিলো আমার একমাত্র সহায় সম্বল। আমার প্রায় কয়েক লাখ টাকা নষ্ট হয়েছে । বিআরডিবি থেকে নেয়া ডিপটিওবয়েল এ সিজনে সাড়ে ১৫ হাজার টাকা দিয়েছি। ২০০ বিঘা জমিতে সেঁচ দিতাম। কিন্তু ধানের চারা নষ্ট হওয়াই সেঁচ বন্ধ রয়েছে। এখন যদি সরকারি সহায়তা না হয় তবে সংসারসহ বেঁচে থাকাটা অসম্ভব হবে আমার।

শেখ ফরিদের মত টেবিরবাড়ী গ্রামের কবির মৃধার ৩০০ লিচু গাছ, একই গ্রামের রুহুল আমিনের ১০০ গাছসহ অনেক কৃষকের বাগান এ  ঝড় ও শিলা বৃষ্টিতে নষ্ট হয়ে গেছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মুয়ীদুল হাসান জানান, শিল্পায়নের ফলে প্রকৃতি আজ কৃষিতে বিরুপ মনোভাব দেখাচ্ছে। পরিবেশ দুষনের সাথে সাথে  অতি বৃষ্টি বা আকস্মিক শিলা বৃষ্টি ও  ঝড়ে  নষ্ট হচ্ছে কৃষি ফসল ও গাছপালা। গত ২৭ ফেব্রুয়ারী এ উপজেলায় বয়ে যাওয়া আকস্মিক শিলা বৃষ্টি ও  ঝড়ে কৃষির ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে। আমরা এ সকল ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকের তালিকা তৈরী করে উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠাবো। তাদের জন্য কোন প্রণোদনা বরাদ্ধ থাকলে তারা  এ ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পারবে। এছাড়াও এ সকল কৃষকদের জন্য সরকারি কোন সহায়তা থাকলে পুনরায় তারা পুর্বের অবস্থানে ফিরে আসতে পারবে বলে আমি মনে করি।

উল্লেখ্য: গত ২৭ ফেব্রুয়ারি বিকাল সাড়ে তিনটায় শ্রীপুরে হঠাৎ শিলা বৃষ্টি দেখা দেয়। উপজেলার তেলিহাটি, মাওনা, বরমী, কাওরাইদ, রাজাবাড়ী, গোসিংগাসহ প্রায় সকল এলাকায় ঝড়ো হওয়ার সাথে শিলা বৃষ্টি পড়তে দেখা গেছে। শিলা বৃষ্টিতে গাছপালা, বিদ্যুতের তার, রাস্তার পাশে থাকা বিলবোর্ড, বাড়ীর চালসহ কৃষি ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। বিভিন্ন স্থানে গাছ উপড়ে পড়ে যাতায়াত ব্যবস্থা সাময়িক ভাবে বিঘœতার সৃষ্টি হয়। 
 

ট্যাগ: bdnewshour24 শ্রীপুর শিলাবৃষ্টি