banglanewspaper

গাজীপুরের সালনা এলাকায় পারিবারিক কলহের জেরে ভগ্নিপতির ধারালো চাপাতির আঘাতে শ্যালকের মৃত্যু হয়েছে। এসময় ভাইকে বাঁচাতে গিয়ে আহত হয়েছেন নিহতের বোন ও মা।

নিহত আতিকুর রহমান দক্ষিণ সালনা এলাকার আল আমিনের ছেলে।

গুরুতর আহত নিহতের বোন আজনিন আক্তার আঞ্জু ও মা আসমা খাতুনকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, কয়েক বছর আগে গাইবান্ধার মোল্লারচর গ্রামের জাবেদ আলীর ছেলে মুসা আলমের সঙ্গে আজনিন আক্তার আঞ্জুর বিয়ে হয়। বিয়ের পর স্বামীর সঙ্গে আঞ্জু স্থানীয় রাজিয়া খাতুনের বাড়িতে ভাড়ায় বসবাস করে প্রীতি গ্রুপের কারখানায় চাকরি করতেন। চাকরির বেতনের টাকা নিয়ে গেল রাত ১১টার দিকে আঞ্জুর সঙ্গে তার স্বামী মুসা আলমের ঝগড়া বাধে।

এসময় ঝগড়া থামাতে এগিয়ে আসেন আঞ্জুর ভাই আতিকুর রহমান। এক পর্যায়ে মুসা চাপাতি দিয়ে তাদের ওপর চড়াও হন। তার চাপাতির আঘাতে আতিকুর রহমান, বোন আঞ্জু এবং মা আসমা খাতুন গুরুতর আহত হন। তাদের উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যালে নেয়া হয়।

অবস্থা সঙ্কটাপন্ন হওয়ায় সেখান থেকে চিকিৎসকরা আতিকুর রহমানকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। পরে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আতিকুর রহমান মারা যান। এ ঘটনার পর ভগ্নিপতি মুসা আলম পলাতক রয়েছে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সমীর চন্দ্র সূত্রধর জানান, পারিবারিক কলহের জেরে ভগ্নিপতির হাতে শ্যালক খুন হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে, দায়ীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

ট্যাগ: Bdnewshour24 গাজীপুর