banglanewspaper

খান মোঃ আসাদ উল্লাহ, ববি প্রতিনিধি: উপাচার্য বিহীন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা কার্যক্রমে স্থবিরতা দেখা দেওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক ড. এ কে এম মাহবুব হাসানকে অতিরিক্ত দায়িত্ব দিয়ে ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য করা হয়েছে।

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের টানা ৩৫ দিনের দীর্ঘ আন্দোলনের মুখে তৎকালীন উপাচার্য অধ্যাপক ড. এস এম ইমামুল হক কে বাধ্যতামূলক ছুটিতে পাঠান বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মহামান্য রাষ্ট্রপতি জনাব মো: আব্দুল হামিদ।

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৭ মে ভিসির মেয়াদ শেষ হয়। শেষ কার্য দিবসেও বিতর্কিত ভিসি আইন ভঙ্গ করে তার পছন্দের ব্যাক্তিদের পদোন্নতির কাগজে স্বাক্ষর করেন, যা বিশ্ববিদ্যালয় ইতিহাসে নজির বিহীন ঘটনা।এছারাও অর্থের বিনিময় অর্ধশত লোককে দৈনিক ভিত্তিতে চাকরি দিয়েছেন।

উপাচার্যের ছুটি কালিন সময় ২৬ মে পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার ভিসি মহোদয়ের রুটিন দায়িত্ব পালন করেন। তার কাজের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মন জয় করে ফেলেন। শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন দাবী মেনে নেয় এবং অন্য অন্য দাবী পালনে আশ্বাস দেয়।শিক্ষার্থী- শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সাথে সুসম্পর্ক তৈরী করে বিশ্ববিদ্যালয় সার্বিক উন্নয়নে মনোনিবেশ করেন।এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ শিক্ষা বান্ধব হয়ে উঠে।

২৭ মে উপাচার্যের মেয়াদ ৪ বছর পূর্ণ হলে এই দায়িত্ব ট্রেজারার কে আর দেওয়া হয়নি, তাই উপাচার্য বিহীন বিশ্ববিদ্যালয় একাডেমিক ও প্রশাসনিক কাজে স্থবিরতা দেখা দেয়।অনিশ্চিত হয়ে পরে প্রশাসনিক কার্যক্রম।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম ও প্রশাসনিক কার্যক্রমের কথা বিবেচনায় রেখে কতৃপক্ষ গতকাল (মঙ্গলবার) ২৫ জুন নতুন উপাচার্য নিয়োগ না হওয়া পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর ড. এ কে এম মাহবুব হাসান কে উপাচার্য’র হিসেবে অতিরিক্ত দায়িত্ব দিয়ে একটি চিঠি ইস্যু করে।

এই খবর বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় ছড়িয়ে পরলে শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে আনন্দ উল্লাস লক্ষ্য করা যায়।

ট্যাগ: bdnewshour24 বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য