banglanewspaper

তৌহিদুজ্জামান তন্ময়: ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-এর প্রতিষ্ঠাতা ও উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবদুল মান্নান চৌধুরী বলেছেন, বিতার্কিকরা নিজকে আবিষ্কার করেন। এ আবিষ্কার করতে যেয়ে তারা নিজেকে সজ্জল ব্যক্তি, বিনয়ী ব্যক্তি এবং সংস্কৃতিমনা ব্যক্তি হিসেবে গড়ে তোলেন। আমি কোনো সংস্কৃতিমনা ব্যক্তিদের জঙ্গি হতে দেখি নাই। বিতার্কিকরা জঙ্গিবাদে আশ্রয় নেবে এমন ধারণাও আমি পোষণ করিনা। 

বৃহস্পতিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-এর স্থায়ী ক্যাম্পাসে শুরু হওয়া তিনদিন ব্যাপী "ডব্লিউইউবি জাতীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা-২০১৯" উদ্বোধনি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

ড. আবদুল মান্নান চৌধুরী বলেন, বিতর্ক ও বিতার্কিকগণ সমাজ পরিবর্তনের যথেষ্ট ভূমিকা রাখতে পারেন এবং রাখছেন। বিজ্ঞানভিত্তিক এবং যুকিযুক্ত সমাজ সৃষ্টির জন্য বিতার্কিকদের অবদান অনন্য। যারা শিক্ষকতায় ভালো করেছে তারা অবশ্যই খুব ভালো  বিতার্কিক ছিলেন। সংসদ সদস্য হোক আর রাজনৈতিক নেতা হোক তারাও বিতার্কিক হিসেবে দক্ষ। আবার কোনো কোনো সম্পাদক কিংবা পত্রিকার সাংবাদিকরাও বিতার্কিক হিসেবে খুবই সাফল। 

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-এর উপাচার্য বলেন, আমাদের সমর্থতা খুবই সীমিত। কিন্তু আমাদের আন্তরিকতা অন্তহীন। আমাদের বোর্ড অব ট্রাজটিজের সবাই শিক্ষাবিদ। আশ্চর্যজনকভাবে আমাদের বোর্ড অব ট্রাজটিজের নয় সদস্যের মধ্যে সাত সদস্যই পিএইচডি। এই বিশ্ববিদ্যালয়টি শিক্ষানুরাগী মানুষের সংশ্লিষ্টতায় সফলতা লাভ করেছে। 

তিনি আরও বলেন, সারাদেশে ১০৫টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। এরমধ্যে মাত্র ১৫টি বিশ্ববিদ্যালয় তাদের নিজস্ব ক্যাম্পাস রয়েছে। ১৫টির মধ্যে ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ অন্যতম। আমাদের আরও কিছু অর্জন আছে। বিদেশে আমাদের সুনামও রয়েছে। কিছুদিন আগে ১২-১৪ জন শিক্ষক ও শিক্ষার্থী এই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাশ করে যুক্তরাষ্ট্রে পিএইচডি'র জন্য নির্বাচিত হয়েছেন। 

মানুষ তার স্বপ্নের সমান বড় উল্লেখ করে তিনি বলেন, স্বপ্ন দেখতে হবে নিষ্ঠার সাথে তাহলেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন সম্ভব। আমি আমার সহকর্মীদের মাঝে স্বপ্নটাকে সঞ্চায়িত করেছি। 

ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ-এর টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দশম বর্ষপূর্তি উদযাপন উপলক্ষে বাংলাদেশ ডিবেট ফেডারেশনের সহযোগিতায় টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ এই বিতর্ক প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে যা ২৬, ২৭ ও ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ পর্যন্ত চলবে। বত্রিশটি কলেজ এবং আটাশটি বিশ্ববিদ্যালয় এই বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক এম নুরুল ইসলাম এবং বাংলাদেশ গার্মেন্ট বায়িং হাউস এসোসিয়েশনের সভাপতি কাজী ইফতেখার হোসাইন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান মো. মোস্তাফিজুর রহমান। অতিথিরা তাদের বক্তব্যে পেশাগত ও বাস্তব জীবনে বিতর্কের গুরুত্বপূর্ণ দিক তুলে ধরেন। তারা এ ধরনের আয়োজনকে সাধুবাদ জানান এবং নিয়মিত বিরতিতে এই ধরণের অনুষ্ঠান আয়োজনের উপর গুরুত্বারোপ করেন।
 

ট্যাগ: bdnewshour24 ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ অধ্যাপক ড. আবদুল মান্নান চৌধুরী ড. আবদুল মান্নান চৌধুরী বিশ্ববিদ্যালয় ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি