banglanewspaper

রাজু, জাবি প্রতিনিদি :  ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা ও মহাসমারোহের মধ্যে দিয়ে ‘জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় দিবস’ পালিত হয়েছে। ২০০০ সাল থেকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তপক্ষ এ দিনটিকে ‘বিশ্ববিদ্যালয় দিবস’ হিসেবে পালন শুরু করে।

১৯৭০-১৯৭১ শিক্ষাবর্ষে ৪ জানয়ারি অর্থনীতি, ভূগোল, গণিত ও পরিসংখ্যান-এই চারটি বিভাগে ভর্তিকত (প্রথমব্যাচে) ১৫০জন ছাত্র নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা শুরু হলেও ১৯৭১ সালের ১২ জানুয়ারি তৎকালীন পূর্ব পাকিস্থানের গভর্নর ও বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর রিয়ার অ্যাডমিরাল এস এম আহসান এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শুভ উদ্বোধন করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম উপাচার্য ছিলেন বিশিষ্ট রসায়নবিদ অধ্যাপক ড. মফিজ উদ্দিন আহমদ। দিবসটি পালন উপলক্ষে ক্যাম্পাস সাজানো হয়েছে বর্ণিল সাজে। বিজনেস স্টাডিজ অনষদ চত্বরে সকাল দশটায় উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের কর্মসূচি উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনী ভাষণে উপাচার্য সবাইকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্মবার্ষিকীর শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।

উপাচার্য বলেন,  স্বাধীনতার সমান বয়সী এ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ৪৯ বছরে শিক্ষা ও গবেষণায় বহুমূখী সাফল্য অর্জনের অধিকারী হয়েছে। দেশ-বিদেশে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীগণ মান সম্পন্ন গবেষণা এবং উচ্চপদে আসীন হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম বদ্ধি করেছেন। উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের দেশ-জাতির কল্যাণে আত্মনিয়োগের আহবান জানান।

উদ্বোধনী অনষ্ঠানের পর উপাচার্যের নেতত্বে একটি বর্ণাঢ্যআনন্দ শোভাযাত্রা বের হয়ে সেলিম আল দীন মুক্তমে  গিয়ে শেষ হয়। শোভাযাত্রায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মো. আমির হোসেন, প্রো- উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. মো. নূরুল আলম, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক শেখ মো. মনজরুল হক, বিভিন্ন অনষদের ডিন, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্টধার, বর্তমান ও প্রাক্তন  ছাত্র-শিক্ষক, কর্মকতা ও কর্মচারিগণ অংশগ্রহণ করেন। আনন্দ শোভাযাত্রার পর সেলিম আল দীন মক্তমে  শিক্ষার্থী কল্যাণ ও পরামর্শদান কেন্দ্রের আয়োজনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এরপর পর্যায়ক্রমে অধ্যাপক ড. হারুন অর রশীদ খানের পরিচালনায় বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী পুতুলনাট্যপ্রদর্শনী, ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের উদ্যোগে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, ‘রইম মাইম একাডেমি’ পরিবেশিত মক অভিনয়: হৃদয়ে বাংলাদেশ ও অসাম্পধদায়িক বাংলাদেশ এবং সবশেষে ‘নকশীকাঁথা ব্যান্ডের’ সঙ্গীতানুষ্ঠান অনুিষ্ঠত হয়। 

ট্যাগ: bdnewshour24 জাবি

শিক্ষাঙ্গন
নোবিপ্রবিতে সাপ আতঙ্ক, ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধার অভিযান

banglanewspaper

হলের ভেতর কদিন পর পর সাপের দেখা মেলায় আতঙ্ক বিরাজ করছে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল জুড়ে।

সোমবার (১ আগস্ট) দুপুরে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা হল প্রভোস্ট ড. মহিনুজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে এ ঘটনায় রোববার (৩১ আগস্ট) রাতভর হল গেইটের বাইরে অবস্থান নিয়ে ছিল হলের শিক্ষার্থীরা। ফায়ার সার্ভিস টিমের বিশেষ অভিযানে চলছে সাপ উদ্ধার কার্যক্রম।

জানা যায়, রোববার (২১ জুলাই) রাত ১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা হলের তৃতীয় তলায় দুটি সাপ দেখা যায়। এর আগে একই তলায় জুতার মধ্যে সাপ উদ্ধার করা হয়। গভীর রাতে বিদ্যুৎ না থাকায় সাপ আতঙ্কে আতঙ্কিত হয়ে হলের বাইরে অবস্থান নেয় শিক্ষার্থীরা। পরবর্তীতে হল কর্তৃপক্ষের সাপ নিধনের আশ্বাসে হলে ফিরে যায় শিক্ষার্থীরা।

এ ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় ঠিকমতো পরিষ্কারের অভাবে সন্ধ্যার পর বিষাক্ত সাপ ঝোপঝাড় থেকে বেরিয়ে আসছে প্রতিনিয়ত। আবাসিক হল, রাস্তাঘাটসহ বিভিন্ন স্থানে অবাদে ঘুরে বেড়াচ্ছে এসব সাপ। সাপের এই উপদ্রব বাড়ায় বেশি অনিরাপদ হয়ে পড়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলের নিচ তলার কক্ষ ও বাথরুমগুলো। গরমের কারণে সন্ধ্যার পর প্রায়ই জায়গায় দেখা মিলছে সাপের।

বিশ্ববিদ্যালয়ে সাপের এই উপদ্রব বাড়ায় আতঙ্কে আছেন শিক্ষার্থীরা। হলে অবস্থানরত কয়েকজন শিক্ষার্থী আরটিভিকে জানান, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে দ্রুত পদক্ষেপ না নিলে, যেকোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন তারা।

এদিকে সাপ থেকে শিক্ষার্থীদের নিরাপদ করতে উদ্ধার অভিযানে আসে ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম।

এ বিষয়ে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা হল প্রভোস্ট ড. মহিনুজ্জামান বলেন, সাপ আতঙ্ক থেকে রক্ষার্থে সারারাত আমরা হল প্রভোস্টসহ সহকারী প্রভোস্টবৃন্দ আবাসিক শিক্ষার্থীদের সঙ্গে হলে অবস্থান করেছি। আজ সোমবার সকালে ফায়ার সার্ভিস টিম এনে সম্পূর্ণ হলে সাপ উদ্ধার অভিযান চালানো হয়েছে। এ সময় কোন সাপ পাওয়া যায়নি। সবশেষে হলের আশপাশে ভালো মত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করা হয়েছে। একই সঙ্গে প্রয়োজন মত কার্বলিক এসিড ছিটানো হয়েছে।

ট্যাগ:

শিক্ষাঙ্গন
এসএসসি পরীক্ষার রুটিন প্রকাশ

banglanewspaper

বন্যার কারণে স্থগিত হওয়া এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার রুটিন প্রকাশিত হয়েছে। আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে লিখিত পরীক্ষা শুরু হবে। শেষ হবে ১ অক্টোবর।

রোববার (৩১ জুলাই) মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রয়ক ও আন্তঃশিক্ষা বোর্ড পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণ কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক এস এম আমিরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ রুটিন প্রকাশিত হয়।

প্রকাশিত রুটিনে দেখা গেছে, প্রতিটি পরীক্ষা সকাল ১১টা থেকে শুরু হয়ে দুপুর ১টা পর্যন্ত চলবে। এ ছাড়া বিকেলে কোনো পরীক্ষা আয়োজন করা হবে না। এমসিকিউ পরীক্ষার সময় ২০ মিনিট এবং রচনামূলক পরীক্ষার সময় ১ ঘণ্টা ৪০ মিনিট। পরীক্ষাকেন্দ্রে ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষার্থীদের প্রবেশ করতে হবে।

১৫ সেপ্টেম্বর বাংলা (আবশ্যিক) প্রথমপত্র, সহজ বাংলা প্রথমপত্র, ১৭ সেপ্টেম্বর বাংলা (আবশ্যিক) দ্বিতীয়পত্র, সহজ বাংলা দ্বিতীয়পত্র, ১৯ সেপ্টেম্বর ইংরেজি (আবশ্যিক) প্রথমপত্র, পরদিন ২০ সেপ্টেম্বর ইংরেজি (আবশ্যিক) দ্বিতীয়পত্র, ২২ সেপ্টেম্বর গণিত, ২৪ সেপ্টেম্বর পদার্থ বিজ্ঞান (তত্ত্বীয়), বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা, ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং, পরদিন গার্হস্থ্য বিজ্ঞান (তত্ত্বীয়)।

২৫ সেপ্টেম্বর কৃষি শিক্ষা, সংগীত, আরবি, সংস্কৃত, পালি, শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া, চারু ও কারুকলা (তত্ত্বীয়), ২৬ সেপ্টেম্বর রসায়ন (তত্ত্বীয়), পৌরনীতি ও নাগরিকতা এবং ব্যবসায় উদ্যোগ, পরদিন ২৭ সেপ্টেম্বর ভূগোল ও পরিবেশ, ২৮ সেপ্টেম্বর জীববিজ্ঞান (তত্ত্বীয়) ও অর্থনীতি, ২৯ সেপ্টেম্বর হিসাববিজ্ঞান এবং ১ অক্টোবর উচ্চতর গণিত (তত্ত্বীয়) পরীক্ষার মাধ্যমে এসএসসি পরীক্ষা শেষ করা হবে।

এর আগে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা ১৯ জুন থেকে শুরু হওয়ার কথা ছিল। তবে সিলেট, সুনামগঞ্জসহ কয়েকটি অঞ্চলে ভয়াবহ বন্যা শুরু হওয়ায় ১৭ জুন পরীক্ষা স্থগিতের ঘোষণা আসে।

ট্যাগ:

শিক্ষাঙ্গন
এখন পুরুষদের কোটা দেওয়ার সময় এসেছে : শিক্ষামন্ত্রী

banglanewspaper

দেশে এখন পুরুষদের কোটা দেওয়ার সময় এসেছে বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

সোমবার (২৫ জুলাই) বিকেলে রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। এডুকেশন চ্যাম্পিয়ন নেটওয়ার্কের উদ্বোধন উপলক্ষে ওই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে মালালা ফাউন্ডেশন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, নারী শিক্ষায় একটা সময় ৩০ শতাংশ কোটা ছিল। এখন অনেক এগিয়েছি। গত কয়েক বছরে কোটা ছাড়াই নারীরা পুরুষদের চেয়ে এগিয়ে আছে। এখন পুরুষদের কোটা দেওয়ার সময় এসেছে।

তিনি বলেন, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৭০ শতাংশই নারী। কাজেই পুরুষরা যেন অন্য সবকিছুর পাশাপাশি পড়াশোনাও করে, সেজন্য তাদের উদ্বুদ্ধ করতে হবে।

বিজ্ঞান শিক্ষা ও গবেষণায় নারীরা পিছিয়ে আছে বলে মন্তব্য করে দীপু মনি বলেন, সমাজ পরিবেশ করে দিলে বিজ্ঞান চর্চায়ও নারীদের অবদান রাখা সম্ভব। সেটা আমাদের করতে হবে।

মালালা ফাউন্ডেশনের বাংলাদেশি প্রতিনিধি মোশাররফ হোসেন তানসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন মালালা ফাউন্ডেশনের এডুকেশন চ্যাম্পিয়ন পিপলস ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রাম ইমপ্লিমেন্টেশনের (পপি) নির্বাহী পরিচালক মোর্শেদ আলম সরকার, ক্যাম্পেইন ফর পপুলার এডুকেশনের (ক্যাম্পে) প্রধান ড. মঞ্জুর আহমেদ, ফ্রেন্ডশিপের নির্বাহী পরিচালক রুনা খান ও মালালা ফাউন্ডেশনের গ্লোবাল প্রোগ্রাম ডিরেক্টর ইসা মিয়া।

ট্যাগ:

শিক্ষাঙ্গন
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিদ্যুৎ ব্যয় শতকরা ২৫ ভাগ কমানোর নির্দেশ

banglanewspaper

দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও সংশ্লিষ্ট অফিসে শতকরা ২৫ ভাগ বিদ্যুৎ ব্যয় এবং শতকরা ২০ ভাগ জ্বালানি খরচ কমানোর নির্দেশনা দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)।

রোববার (২৪ জুলাই) মাউশির উপপরিচালক (সাধারণ প্রশাসন) অধ্যাপক বিপুল চন্দ্র বিশ্বাস স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তি থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

এতে বলা হয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে চলমান পরিস্থিতি বিবেচনায় বিদ্যুৎ-জ্বালানি সাশ্রয়ের লক্ষ্যে নিম্নোক্ত নির্দেশনা প্রদান করা হলো।

নির্দেশনাগুলো হলো-

মাউশি ও তার অধীনস্থ সব অফিস, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিদ্যুতের ব্যবহার ২৫ শতাংশ কমাতে হবে। প্রতিষ্ঠানপ্রধানরা বিষয়টি নিশ্চিত করবেন। এ সংক্রান্ত একটি সাশ্রয়ী প্রতিবেদন প্রতি মাসের ৩ তারিখের মধ্যে এ অধিদপ্তরের মনিটরিং অ্যান্ড ইভালুয়েশন উইংয়ে পাঠাতে হবে।

শিক্ষক-কর্মকর্তার গাড়ির জ্বালানি সংক্রান্ত মাসিক প্রাপ্যতা থেকে ২০ শতাংশ হ্রাস করতে হবে।

যেসব সভা-অনুষ্ঠান অনলাইনে করা সম্ভব সেসব অনুষ্ঠান সশরীরে আয়োজন পরিহার করতে হবে।

কর্মকর্তাদের রুমের এয়ার কন্ডিশনারের (এসি) তাপমাত্রা ২৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস নির্ধারণ করতে হবে।

এ ছাড়াও উল্লেখিত নির্দেশনা অনুযায়ী বিদ্যুৎ ও জ্বালানির ব্যবহার সঠিকভাবে করা হচ্ছে কি না, তা তদারকি করার জন্য প্রত্যেক অফিস ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মনিটরিং টিম গঠন করতে হবে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, নির্দেশনা অনুযায়ী এ অধিদপ্তরের আওতাধীন সব অফিস ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বিদ্যুৎ ও জ্বালানির ব্যবহার সঠিকভাবে করা হচ্ছে কি না, তা তদারকিপূর্বক একটি সাশ্রয়ী প্রতিবেদন প্রতি মাসের ৩ তারিখের মধ্যে মাউশির মনিটরিং অ্যান্ড ইভালুয়েশন উইংয়ে পাঠাতে নির্দেশক্রমে অনুরোধ জানানো হলো।

ট্যাগ:

শিক্ষাঙ্গন
‘বিএনপি-জামায়াতের একটি অংশ বিদেশে বসে অপতৎপরতা চালাচ্ছে’

banglanewspaper

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, ‌যারা ধর্মের দোহাই দিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করতে চায়, যারা নির্বাচনকে সামনে রেখে দেশকে অস্থিতিশীল করতে চায়, তারা বিভিন্ন ভুল তথ্যের ভিডিও ছড়িয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করছে। বিএনপি-জামাত-শিবিরের বিরাট একটি অংশ বিদেশে বসে এসব অপতৎপরতা চালাচ্ছে।

শনিবার (২৩ জুলাই) সকাল ১০টায় চাঁদপুর সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে নদী ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে অনুদানের চেক বিতরণ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

দীপু মনি বলেন, সবাইকে সচেতন হতে হবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোনও তথ্য যাচাই না করে আমরা অন্য কারও কাছে না দিই।

অনুষ্ঠানে নদী ভাঙন কবলিত ১০১টি পরিবারের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর পুনর্বাসন খাত থেকে ৫৬ লাখ টাকার চেক বিতরণ করেন শিক্ষামন্ত্রী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদিপ্ত রায়, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নূরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, ভাইস চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী বেপারী প্রমুখ।

ট্যাগ: