banglanewspaper

কেন্দুয়া (নেত্রকোণা) প্রতিনিধি: কেন্দুয়া থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ রাশেদুজ্জামান আবারো নেত্রকোণা জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ নির্বাচিত হয়েছেন।

সোমবার (১৩ জানুয়ারি) নেত্রকোনা জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে গত বছরের ডিসেম্বর মাসের ‘মাসিক অপরাধ সভা’ অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় সভাপতিত্ব করেন নেত্রকোনা জেলা পুলিশ সুপার মোঃ আকবর আলী মুন্সী। সভায় পুলিশ সুপার আকবর আলী মুন্সি তার হাতে পুরস্কার তুলে দেন। উপজেলার সার্বিক আইনশৃংখলা দক্ষতার সাথে নিয়ন্ত্রণসহ ডিসেম্বর মাসের কৃতিত্বপূর্ণ কাজের জন্য তাকে শ্রেষ্ঠ ওসি নির্বাচিত করা হয়। 

এর আগে গত বছর জুলাই ও অক্টোবর মাসেও তিনি জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার ইনচার্জ নির্বাচিত হয়েছিলেন। গতকাল পুরস্কার বিতরণের সময় জেলার অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তা উপস্থিত। গত বছর ২৪ মে ওসি মুহাম্মদ রাশেদুজ্জামান নেত্রকোণার কেন্দুয়া থানায় যোগদান করেন। এর আগে তিনি ডিএমপির তেজগাঁও শিল্পা ল থানায় অফিসার ইনচাজ (তদন্ত) ও অপরাধ অপারেশন হিসেবে কর্মরত ছিলেন। 

ওসি মুহাম্মদ রাশেদুজ্জামান পড়া-লেখা শেষ করে ২৭ তম আউটসাইট ক্যাডেটে উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে যোগদান করেন। পরে তিনি পদোন্নতি পেয়ে ডিএমপির তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় অফিসার ইনচাজ (তদন্ত) হন। ঢাকায় কর্মময়জীবনে নানা অপরাধ দমনে ব্যাপক সফলতা স্বাক্ষর রেখেছেন। তার সাহসিক অভিযান ও কর্মকান্ডের জন্য একাধিকবার কেতাব প্রাপ্ত হন। তার গ্রামের বাড়ি জামালপুর জেলার ইসলামপুর উপজেলায়।

কেন্দুয়া থানায় যোগদানের পরে তিনি বেশ কয়েকটি আলোচিত ঘটনার ক্লু উদঘাটন, মাদক নিয়ন্ত্রণ, প্রতারক গ্যাঙ্গ, কিশোর গ্যাঙ্গ ও বহুল আলোচিত প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে প্রশ্নপত্র ফাঁসের গ্যাঙ্গ আবিস্কারসহ উপজেলার প্রতিটি বাজারের নিরাপত্তার স্বার্থে সিসি ক্যামেরা স্থাপনে অগ্রনী ভূমিকা পালন এবং ওয়ারেন্ট তামিলসহ সার্বিক অপরাধ দমনে বেশ সুনাম অর্জন কুড়িয়েছেন।

ওসি মুহাম্মদ রাশেদুজ্জামান বলেন, কাজের মূল্যায়নে সবাই খুশি হয়। আমিও তাই। জেলা পুলিশ সুপার মহোদয় আমার কাজের যে মূল্যায়ন করছেন ভবিষ্যতে সেই ধারা বজায়ে রাখতে সচেষ্ট থাকবো।

ট্যাগ: bdnewshour24 কেন্দুয়া