banglanewspaper

বাংলাদেশের স্টার্টআপগুলোর মধ্যে একটি  ‘স্টার্টআপ ওয়ার্ল্ড কাপ ২০২০’ চূড়ান্ত পর্বে অংশ নেয়ার সুযোগ পাচ্ছে। এজন্য আঞ্চলিক পর্বের আয়োজন করা হয়েছে। এই পর্বের বিজয়ী একটি স্টার্টআপ যুক্তরাজ্যের সিলিকন ভ্যালিতে আয়োজিত স্টার্টআপ ওয়ার্ল্ড কাপে অংশ নিতে পারবে। বিজয়ী হতে পারলে এক মিলিয়ন মার্কিন ডলার পুরস্কার জেতার সুযোগ আছে।

রবিবার রাজধানীর কারওয়ান বাজারে সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে স্টার্টআপ ওয়ার্ল্ড কাপ নিয়ে বিস্তারিত জানাতে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। 

ফেনক্স ভেঞ্চার ক্যাপিটালের জেনারেল পার্টনার ও ইজেনারেশন গ্রুপের চেয়ারম্যান শামীম আহসান সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত জানান। এই নিয়ে দ্বিতীয়বারে মতো স্টার্টআপ ওয়ার্ল্ড কাপে অংশ নেয়ার সুযোগ পেলো বাংলাদেশ।

শামীম আহসান বলেন, আমরা আন্তর্জাতিক প্রচার, আন্তর্জাতিক মেন্টরশিপ ও বিশাল অংকের পুরস্কার পেতে আগ্রহী উদ্ভাবনী সল্যুউশনের স্টার্টআপদেরকে প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে জোরালো আহ্বান জানাচ্ছি। যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালিতে চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় দেশকে তুলে ধরতে বাংলাদেশের স্টার্টআপ ইকোসিস্টেমের জন্য এটি একটি অসাধারণ সুযোগ।

ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স কর্পোরেশন বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার ওয়েন্ডি ওয়ার্নার বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নে যেসব প্রাথমিক ধাপের উদ্যোগ উল্লেখযোগ্য অবদান রাখতে পারে তাদের সহায়তার মাধ্যমে আইএফসি বাংলাদেশের স্টার্টআপ ইকোসিস্টেমকে শক্তিশালী করতে কাজ করছে। স্টার্টআপ খাত থেকে নতুন মেধাকে খুঁজে পেতে স্টার্টআপ ওয়ার্ল্ডকাপ একটি দারুন সুযোগ। আমরা প্রত্যাশা করি বাংলাদেশি তরুণরা উদ্ভাবনী উদ্যোগের মাধ্যমে উন্নয়ন শূন্যতা‌ পূরণে ডিজিটাল প্রযুক্তিকে ব্যবহার করবে এবং নতুন বাজার তৈরি করবে। সকল অংশগ্রহণকারীদের প্রতি আমার শুভ কামনা রইলো।

আইসিটি ডিভিশনের অতিরিক্ত সচিব ও আইডিয়া প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক সৈয়দ মজিবুল হক বলেন, দেশে স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম তৈরিতে সরকার জোরালো ভাবে কাজ করছে ও স্টার্টআপ বাংলাদেশ আইসিটি ভিত্তিক উদ্যোক্তা তৈরিতে সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাচ্ছে। এই ইভেন্টের ফলে স্টার্টআপরা ইনভেস্টরদের সাথে যোগাযোগের একটা সূত্র পাবে এবং এর ফলে দেশীয় স্টার্টআপরা উৎসাহিত হবে। স্টার্টআপ ওয়ার্ল্ড কাপ ২০২০ সফলভাবে সম্পন্ন করার জন্য স্টার্টআপ বাংলাদেশ থেকে সর্বোচ্চ সহযোগিতা করা হবে।

অনুষ্ঠানে আরোউপস্থিত ছিলেন ইজেনারেশন গ্রুপের নির্বাহী ভাইস চেয়ারম্যান এসএম আশরাফুল ইসলাম, চালডালের সিইও জিয়া আশরাফ এবং টাই ঢাকার সভাপতি রুবাবা দৌলা।

আগামী ৩১ জানুয়ারির মধ্যে আগ্রহী প্রতিযোগিরা বাংলাদেশ পর্বে অংশ নিতে পারবে। বাংলাদেশের সেরা ১০ স্টার্টআপগুলো স্থানীয় চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় পিচ করার সুযোগ পাবে। ৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশের চূড়ান্ত প্রতিযোগিতা। বিজয়ী একটি দল সিলিকন ভ্যালিতে অনুষ্ঠিত স্টার্টআপ ওয়ার্ল্ড কাপ ২০২০ এর আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার সুযোগ পাবে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, ভেঞ্চার ক্যাপিটাল অ্যান্ড প্রাইভেট ইক্যুইটি অ্যাসিাসিয়েশন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, আই এফ সি এবং সিলিকন ভ্যালি-ভিত্তিক ভেঞ্চার ক্যাপিটাল প্রতিষ্ঠান পেগাসাস টেক ভেঞ্চারের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে প্রতিযোগিতাটি।

ট্যাগ: bdnewshour24 স্টার্টআপ ওয়ার্ল্ড কাপ