banglanewspaper

পিরোজপুর প্রতিনিধি: বরিশাল-খুলনা মহা সড়কের পিরোজপুরের কচাঁ নদীর উপরে বেকুটিয়ায় ৮ম বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতুর নির্মাণ কাজ করেছে চয়না রেলওয়ে ১৭ ব্রিজ গ্রুপ কো.লি. প্রতিষ্ঠান। সেতুর নির্মাণ কাজে এই প্রতিষ্ঠান ৫৭ জন চীনের নাগিরক বিভিন্ন পদে কাজ করেছে পিরোজপুরের কুমরিমারা এলাকায় থেকে। তাই তাদের করোনা ভাইরাসের প্রকপ থেকে মুক্ত রাখতে ও করোনা ভাইরাস বিষয়ে সচেতনতা তৈরির জন্য নিয়মিত ডাক্তারী পরীক্ষা করছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে। 

এরই ধারাবাহিকতায় আজ সোমবার জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে দুই জন ডাক্তারের একটি মেডিকেল টিম পিরোজপুর সদর উপজেলার কুমিরমারা এলাকায় সেতু নির্মাণ কাজে নিয়োজিত চীনের নাগরিকের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে। 

এ বিষয়ে মেডিকেল ক্যাম্পের চিকিৎসক ডা.সানজিদা আজাদ সিফা জানান, কুমরিমারা চায়না ব্রেরাকে যারা অবস্থিত আছে তাদের কেউই এই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে এমন কোন তথ্য নেই বা লক্ষন নেই। এছাড়া তাদের ভিতরে কেউ কোন অসুস্থ নন। এমনকি এই করোনা ভাইরাস প্রভাব বিস্তারের সময় কেউ এই স্থান থেকে চীনে কেউ যায়নি এবং কেউ চীন থেকে আসেনি।  

মেডিকেল ক্যাম্পের চিকিৎসক ডা. তারিক আজিজুল্লাহ জানান, সিভিল সার্জনের নিদের্শে এদের সাথে কথা বলে জানাগেলে তাদের তেমন কোন সমস্য নেই। তাই তাদের নিয়মিত চলাফেরার জন্য মাক্স ব্যবহার সহ করোনা ভাইরাসের প্রকপ তকে রক্ষার জন্য বিভিন্ন পরামর্শ দিয়েছি। এছাড়া করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত এমন কোন লক্ষন দেখা দিলে পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে তাদের জন্য আলাদা বিভাগ খোলা হয়েছে বলেও তাদের জানানো হয়েছে। 

বেকুটিয়া সেতু নির্মানের প্রোজেক্ট কো-অর্ডিনেটর  ওয়াং চেঙ্ক উইং জানান, এখানে যারা কাজ করছে তারা ডিসেম্বর মাস থেকে কাজ করছে। এখান থেকে কেউ চীনে যায়নি এবং কেউ নতুন করে আসেনি। তাদের এখানে কেউ অসুস্থ হয়নি এখনো। করোনা ভাইরাস রোধে তার সকলে নিয়ম মেনে চলাফেরা করছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 করোনা ভাইরাস পিরোজপুর চীন নাগরিক স্বাস্থ্য পরীক্ষা