banglanewspaper

পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে কোন নীতিমালার আলোকে পিএইচডি কিংবা সমমানের ডিগ্রি অনুমোদন দেয়া হচ্ছে সে বিষয়টি তদন্ত করে জানাতে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনকে (ইউজিসি) নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। আগামী ৯০ দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে। একইসঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষকের পিএইডি ডিগ্রি জালিয়াতির ঘটনা তদন্ত করে ঢাবি উপাচার্যকে প্রতিবেদন দাখিল করতে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (৪ ফেব্রুয়ারি) এ সংক্রান্ত এক রিটের শুনানি শেষে বিচারপতি এএফআর এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

এছাড়া পিএইচডি ডিগ্রি প্রদানে থিসিসের প্রস্তাব চূড়ান্ত হওয়ার আগে জালিয়াতির ঘটনা রোধে তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার করে যাচাই-বাছাই কেন করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়েছে। শিক্ষাসচিব বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যসহ বিবাদীদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি জালিয়াতি রোধে পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশ কেন দেয়া হবে না রুলে তাও জানতে চাওয়া হয়েছে।

এদিন রিটের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মনিরুজ্জামান লিংকন। আর রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যার্টনি জেনারেল আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।

আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করে মনিরুজ্জামান লিংকন বলেন, ‘দেশের পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে কোন নীতিমালার আলোকে পিএইচডি বা সমমানের ডিগ্রি প্রদান করা হচ্ছে তা জানানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।'

তিনি আরও বলেন, ‘আগামী তিন মাসের (৯০ দিন) মধ্যে এ বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও বিশ্ববিদ্যালয়েট মঞ্জুরি কমিশনকে প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পিএইচডি জালিয়াতি বিষয়ে উপাচার্যকে দুই মাসের মধ্যে প্রতিবেদন জমার নির্দেশ দিয়েছেন।'

গত ২২ জানুয়ারি এ সংক্রান্ত একটি রিট দায়ের করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনিরুজ্জামান লিংকন। 

ট্যাগ: bdnewshour24 ইউজিসি হাইকোর্ট