banglanewspaper

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে আইন বিভাগের ৫০ জনের বেশি শিক্ষার্থী ভর্তি করায় সিটি ইউনিভার্সিটির উপচার্য অধ্যাপক ড. শাহ-ই-আলমকে তলব করেছেন আপিল বিভাগ।

আগামীকাল বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে আদালতে হাজির হয়ে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে। এ সংক্রান্ত মামলার শুনানি নিয়ে আজ মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার বিচারপতির আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে আবেদনের বার কাউন্সিলের পক্ষে ছিলেন এ ওয়াই মশিউজ্জামান, সিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এ এম আমিন উদ্দিন।

এ বিষয়ে আইনজীবী এ ওয়াই মশিউজ্জামান বলেন, ইউজিসির বিধান হলো ৫০ জনের বেশি ভর্তি করানো যাবে না। কিন্তু তারা বেশি ভর্তি করিয়েছে। এ কারণে ১৯ ফেব্রুয়ারি উপাচার্যকে তলব করেছেন। তাকে এসে ব্যাখ্যা দিতে হবে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, এলএলবি কোর্সে প্রতি সেমিস্টারে ৫০ জনের বেশি শিক্ষার্থী ভর্তি করানো যাবে না, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) এমন বিধান রয়েছে। কিন্তু ইউজিসির সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে ৫০ জনের বেশি শিক্ষার্থী বার কাউন্সিলের পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার জন্য সিটি ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা আবেদন করে। কিন্তু তাদের ৫০ জনের বেশি নিতে রাজি হয়নি বার কাউন্সিল। এরপর ২৫ শিক্ষার্থী হাইকোর্টে রিট করেন।

এরপর ২৪ অক্টোবর হাইকোর্ট সিটি ইউনিভার্সিটি থেকে আইন বিষয়ে উত্তীর্ণ হওয়া ২৫ শিক্ষার্থীকে আইনজীবী তালিকাভুক্তির পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার জন্য রেজিস্ট্রেশন ও ফরম পূরণের সুযোগ দিতে বার কাউন্সিলকে নির্দেশ দেন। এ আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করা হলে আদালত আজকে এ আদেশ দেন।

ট্যাগ: bdnewshour24 সিটি ইউনিভার্সিটি