banglanewspaper

বিশ্বজুড়ে স্যামসাংয়ের গ্যালাক্সি সিরিজের ফোন ব্যবহারকারীরা একটি রহস্যজনক  বার্তা পেয়েছেন। যার ফলে ব্যবহারকারীরা অনেকেই দুশ্চিন্তায় পড়ে যায়। ওই বার্তায় ‘ওয়ান’ (1) সংখ্যাটির নিচে আরেকটি ওয়ান লেখা ছিল। অনেকেই এ বার্তার অর্থ বুঝতে না পেরে টুইটারে এ নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। কেউ কেউ ফোন হ্যাকড হয়েছে বলে উদ্বেগ জানান।

স্যামসাংয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এ ঘটনায় দুশ্চিন্তার কিছু নেই। ফোন হ্যাকড হয়নি। তাদের ফাইন্ড মাই মোবাইল অ্যাপ থেকে নোটিফিকেশন আকারে যাওয়া ওই বার্তাটি অনিচ্ছাকৃতভাবে পাঠানো হয়েছে। তাদের অভ্যন্তরীণ পরীক্ষা-নিরীক্ষার সময় অনিচ্ছাকৃতভাবে ওই বার্তা গ্যালাক্সি সিরিজের ফোন ব্যবহারকারীদের ডিভাইসে চলে গেছে।

প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট দ্য ভার্জ জানিয়েছে, স্যামসাংয়ের ফাইন্ড মাই মোবাইল সেবাটি স্যামসাংয়ের ডিভাইস ব্যবহারকারীদের দূর থেকে ফোনের অবস্থান শনাক্ত করা, স্যামসাং ক্লাউডে তথ্য সংরক্ষণ, স্থানীয় তথ্য মুছে ফেলার মতো নানা সুবিধা দেয়। সেবাটি থেকে রহস্যময় বার্তা পেলে আঁতকে ওঠা স্বাভাবিক।

বিশ্বজুড়ে ডিভাইস ব্যবহারকারীদের এমন অদ্ভুত বার্তা দেওয়ার ঘটনা একেবারে নতুন কিছু নয়। গত বছরে ওয়ানপ্লাসের পক্ষ থেকেও তাদের ফোন ব্যবহারকারীদের কাছে এমন বার্তা গিয়েছিল। তারা বলেছিল, সফটওয়্যার আপডেট-বিষয়ক পরীক্ষা করতে গিয়ে চীনা অক্ষর বার্তা চলে গিয়েছিল।

স্যামসাংয়ের ক্ষেত্রে ওই ভুতুড়ে বার্তা পাঠানোর তিন ঘণ্টা পর স্যামসাং অফিশিয়াল ইউকে সাপোর্ট চ্যানেল টুইটারে বিষয়টি তুলে ধরে। তারা বিষয়টিকে ভুল হিসেবে স্বীকার করে বলে, অনিচ্ছাকৃতভাবে অভ্যন্তরীণ পরীক্ষা চালানোর সময় ওই বার্তা চলে যায়। যারা এ ধরনের বার্তা পেয়েছেন, তাদের ডিভাইসে কোনো প্রভাব পড়বে না। এ ঘটনার জন্য ক্ষমাও চেয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

ট্যাগ: bdnewshour24 স্যামসাং রহস্যময় বার্তা