banglanewspaper

এই পৃথিবীতে এমন কিছু মানুষ আছেন যাদের কারো প্রেম গাছ নিয়ে, কারো প্রেম প্রাণী নিয়ে। আবার কারো প্রেম মানুষের প্রতি। প্রেম মূলত একটি শাশ্বত ব্যাপার। এক গাছপ্রেমী নারী বাজার থেকে একটি গাছ কিনে এনে বাসায় সেটির যত্ন করতে থাকে। একদিন দুদিন নয় টানা ২ বছর পরিচর্যা করে যা যানলেন তা রীতিমত তাকে হতাশ করেছেন।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করা কেলি উইলকস নামের ঐ নারী ছোট্ট গাছটিকে অনেক পরিচর্যা করতেন। গাছটি বেশ ঝকঝকে চেহারারই ছিল। কিন্তু দু'বছর পেরিয়ে যাওয়ার পর অবশেষে কেলির কাছে উদ্ঘাটিত হল আসল সত্য। তিনি জানতে পারলেন, গাছটি আসলে প্লাস্টিকের তৈরি!

তিনি ফেসবুকে সমস্ত গটনার কথা জানিয়েছেন। তিনি জানান, দু'বছর ধরে গাছটি তাঁর কাছে ছিল। গাছটির জন্য তিনি গর্বিত ছিলেন। ঝকঝকে সবুজ নিখুঁত গাছটিকে তিনি রান্নাঘরের জানলায় রেখে দিয়েছিলেন।

রোজই জল দিতেন গাছটিকে। অন্য কেউ জল দিলেও তিনি রেগে যেতেন। কিন্তু এরপর গাছটিকে অন্য টবে লাগাতে যেতেই তিনি বুঝতে পারেন, গাছটি নকল! প্লাস্টিকের তৈরি।

কেলি জানাচ্ছেন, তিনি গাছটিকে খুবই ভালবাসতেন। নিয়ম করে পরিষ্কার করতেন গাছের পাতাগুলি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত জানা গিয়েছে, গাছটি প্লাস্টিকের। গাছটিকে টবের বাইরে আনতেই দেখা যায়, সেটি থার্মোকলের সঙ্গে লাগানো। এর উপরে ছিল বালি। কেলির মনে হচ্ছে, দু'বছর তিনি একটি মিথ্যের সঙ্গে বাস করেছেন।

পোস্টের তলায় অনেকেই নানা রকম কমেন্ট করেছেন। একজন জানিয়েছেন, কেলির মতো অভিজ্ঞতা অনেকেরই হয়। আর একজন লেখেন, তিনি অফিসে এমন গাছ লাগিয়েছেন, যা দেখে বাকিরা চমৎকৃত। কিন্তু তিনি আসলে প্লাস্টিকের গাছই লাগিয়েছেন।

আমাদের কেলিকে পরামর্শ, তিনি যেন তাড়াতাড়ি নিজের জন্য একটি সত্যিকারের গাছ নিয়ে আসেন। তাহলে আর নিরাশা থাকবে না।

ট্যাগ: bdnewshour24 গাছের যত্ন