banglanewspaper

বাগেরহাট প্রতিনিধি: মোংলা বন্দরে নেপালের বাণিজ্য সম্পর্কিত বৈঠকে সাংবাদিকদের দাওয়াত দিয়েও মূল সভা কক্ষে প্রবেশ করতে না দেওয়া ও সংবাদ সংগ্রহে বাঁধা দেয়ায় বন্দরের সকল সংবাদ বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন স্থানীয় সংবাদকর্মীদের সংগঠন মোংলা প্রেস ক্লাব। 

বৃহস্পতিবার (৫ মার্চ) সকাল সাড়ে ১০ টায় বন্দর কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে নেপালের শিল্প, বাণিজ্য ও সরবরাহ বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের সচিব ড. বাইকুনথা আয়ালের সংবাদ সংগ্রহের জন্য সাংবাদিকদের আমন্ত্রণ জানানো হয়।

বুধবার (৪ মার্চ) মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল শেখ মো. আবুল কালাম আজাদের পক্ষে সাবাদিকদের আমন্ত্রণ জানান বন্দরের উপ-সচিব মো. মাকরুজ্জামান। আমন্ত্রণে স্থানীয় প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সংবাদকর্মীরা বৃহস্পতিবার সকালে বন্দরের প্রশাসনিক ভবনের সভা কক্ষে প্রবেশ করতে গেলেই সকলকে আটকে দেন বন্দরের বোর্ড ও গণসংযোগ কর্মকর্তা এবং চেয়ারম্যানের ব্যক্তিগত সচিব মো. মাকরুজ্জামান। 

দাওয়াত দিয়ে সভা কক্ষে প্রবেশে কেন বাঁধা ও অসহযোগীতা জানতে চাইলে উপ-সচিব মো. মাকরুজ্জামান এ সময় সাংবাদিকদের বলেন, এটা চেয়ারম্যান (রিয়ার এডমিরাল শেখ মো. আবুল কালাম আজাদ) স্যারের সিদ্ধান্ত, আমার কি করার আছে? এ সময় সাংবাদিকেরা ওই বৈঠকের ছবি ও ভিডিও ফুটেজ নিতে চাইলেও তারও অনুমতি দেয়নি চেয়ার‌্যমান রিয়ার এডমিরাল শেখ মো. আবুল কালাম আজাদ। 

এদিকে চেয়ারম্যানের এমন সিদ্ধান্ত ও আচরণে ক্ষোভ জানিয়ে মোংলা প্রেস ক্লাবে বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় জরুরী সভায় বসেন স্থানীয় সংবাদকর্মীরা।

প্রেস ক্লাব সভাপতি এইচ, এম দুলালের সভাপিতত্বে অনুষ্ঠিত সভায় সিনিয়র সাংবাদিক ও প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি এম,এ মোতালেব বলেন, ‘আমার ৩২ বছরের সাংবাদিকতায় বিগত চেয়ারম্যানদের আমলে এমনটি দেখিনি’।

প্রেস ক্লাবের জরুরী সভায় বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যানের এমন আচরণে ক্ষোভ জানিয়ে সভাপতি এইচ দুলাল বলেন, ‘সাংবাদিকদের ডেকে নিয়ে ছবি তুলতে ও সভাস্থলে ঢুকতে না দেওয়ায় আমরা এর নিন্দা জানাই’। পরে সভায় বন্দর কর্তৃপক্ষের সকল ধরণের সংবাদ বর্জনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। জরুরী এ সভায় স্থানীয় সকল সংবাদ কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগ: bdnewshour24 বাগেরহাট