banglanewspaper

চীন থেকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের কারণে মুজিববর্ষ উদযাপনে বিদেশি অতিথিদের আগমনে প্রভাব ফেলবে বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন। তবে এ ব্যাপারে সরকার যথেষ্ট সজাগ ও সতর্ক রয়েছে বলে জানান তিনি।

শনিবার দুপুরে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন মন্ত্রী।

গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ শনাক্ত করা হয়। নিউমোনিয়ার মত লক্ষণ নিয়ে নতুন এ রোগ ছড়াতে দেখে চীনা কর্তৃপক্ষ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে সতর্ক করে।

১১ জানুয়ারি করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। উহান প্রদেশে ভয়াবহ রূপ দেখানো করোনা পরে ছড়িয়ে পড়ে বিশ্বব্যাপী। ইতোমধ্যে বিশ্বের ৮৭টি দেশ ও অঞ্চলে করোনা ছড়িয়ে পড়েছে। এসব দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৩৪৪৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছে লক্ষাধিক মানুষ। করোনার এমন বিস্তারে সারাবিশ্বে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

আগামী ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী পালন অনুষ্ঠানে অংশ নিতে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বিভিন্ন দেশের অনেক অতিথিকে।

সারাবিশ্বে করোনা আতঙ্ক বিরাজ করায় তা বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত বিদেশিদের আগমনে প্রভাব ফেলবে কিনা তা জানতে চাওয়া হয় পরারাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে।

জবাবে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘করোনাভাইরাসের ফলে সারা বিশ্বে আতঙ্ক বিরাজ করছে। এ কারণে মুজিববর্ষ উদযাপনে বিদেশি অতিথি আগমনে এর প্রভাব পড়বে। তবে সরকার এ ব্যাপারে যথেষ্ট সজাগ ও সতর্ক রয়েছে।’

করোনার প্রভাবে মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত বিদেশি অতিথিদের কারও সফরসূচি এখন পর্যন্ত বাতিল হয়নি বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

এ সময় সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন, সিলেট সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগ: bdnewshour24 মুজিববর্ষ