banglanewspaper

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের খবরে উদ্বেগ জানিয়েছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। এ ভাইরাস প্রতিরোধে সবাইকে সতর্ক হয়ে চলার পরামর্শ দেন তিনি। এছাড়া আদালতে ভীড় ঠেকাতে কি করা প্রয়োজন সে বিষয়ে সিনিয়র আইনজীবীদের পরামর্শ চেয়েছেন প্রধান বিচারপতি।

সোমবার (৯ মার্চ) আপিল বিভাগের কার্যক্রম শুরু হলে প্রধান বিচারপতি রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেলকে উদ্দেশ্য করে এসব কথা বলেন। 

পরে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, প্রধান বিচারপতি সমস্ত আইনজীবীদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, আপিল বিভাগের এজলাসসহ চেয়ার টেবিল প্রতিদিন সকাল বেলা ডেটল দিয়ে সাফ করা হবে। সবাই হুশিয়ার থাকবেন।

তিনি বলেছেন, আমাদের বেশি উদ্বিগ্ন হওয়ার কারণ নাই। কিন্তু সরকার এবং চিকিৎসকদের পক্ষ থেকে যে সব নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে, তা স্টিকলি ফলো করা। যেমন হ্যান্ডশেক না করা, যতখানি সম্ভব ভীড় এড়িয়ে চলা। তখন একজন আইনজীবী বলেছিলেন আদালত ছুটি দিয়ে দেওয়া হোক। তখন প্রধান বিচারপতি বললেন না, সেটার প্রয়োজন নাই। এ সময় একজন বললেন স্কুলগুলি ছুটি দিয়ে দেওয়া হোক। প্রধান বিচারপতি বললেন না সেটারও দরকার নেই। সরকারের নির্দেশ মোতাবেক পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার দিকে আমাদের নজর দিতে হবে। খাওয়ার আগে পরে হাত ধোয়া, হাচি কাশি থেকে দূরে থাকা। যথা সম্ভব বেশি জনসমাগমের ভিতর না থাকা।

করোনা ভাইরাস চিহ্নিত হওয়ার পরপরই বাজারে স্যানিটাইজার ও মাস্ক সংকট নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করেন প্রধান বিচারপতি। 

এদিকে গতকাল রোববার (৮ মার্চ) বিকেলে আইইডিসিআরে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ইতালি থেকে দেশে আসা দুই বাংলাদেশির শরীরে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) পাওয়া গেছে। এছাড়া তাদের সংস্পর্শে আসা আরও একজন এই ভাইরাসের সংক্রমণের শিকার হয়েছেন। রক্তের নমুনা সংগ্রহের পর পরীক্ষা করে তাদের শরীরে এই ভাইরাসের উপস্থিতি নিশ্চিত হওয়া গেছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 প্রধান বিচারপতি