banglanewspaper

নিজস্ব প্রতিবেদক : ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ এ উচ্চশিক্ষায় বাংলা ভাষা ও সাহিত্য পাঠের প্রয়োজনীয়তার উপর সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার (৯ মার্চ) বিশ্ববিদ্যালয়ের ধানমন্ডি ক্যাম্পাস অডিটরিয়ামে বিশ্ববিদ্যালয়টির বাংলা সাহিত্য ও ভাষা বিভাগ 'বাংলাদেশের উচ্চশিক্ষায় বাংলা ভাষা ও সাহিত্য পাঠের প্রয়োজনীয়তা' শীর্ষক সেমিনারের আয়োজন করে। 

ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ এর উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবদুল মান্নান চৌধুরীর সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি হিসেবে আলোচনা করেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু চেয়ার অধ্যাপক ও জাতীয় জাদুঘরের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সভাপতি লোকবিজ্ঞানী অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান। প্রধান আলোচক হিসেবে ছিলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান খান, অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ড. এম. নূরুল ইসলাম ও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার মোর্শেদা চৌধুরী। 

প্রধান অতিথি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু চেয়ার অধ্যাপক ও জাতীয় জাদুঘরের বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সভাপতি লোকবিজ্ঞানী অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান বলেন, সৃষ্টিকর্তা যাকে যে ভাষায় তৈরি করেন সে ভাষা তার জন্য অমূল্য রতন। বর্তমানে ডাক্তাররা মেডিকেল প্রেসক্রিপশনও বাংলায় লিখতে চান না, অথচ যশোরের ডা: জদির উদ্দীন আহমদ ৭৫০ পৃষ্ঠার সার্জারি বিষয়ে বই লিখেছেন। রবীন্দ্রনাথ যা বলেননি, বঙ্কিমচন্দ্র যা বলেননি, রাজা রাম মোহন যা বলনি সেই কথাটা বলেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান- 'ফাঁসির মঞ্চে যাবার সময় বলবো, আমি বাঙালি বাংলা আমার দেশ, বাংলা আমার ভাষা'। অতএব বঙ্গবন্ধু যে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি এটিই তাঁর প্রমাণ। তিনি জীবনের সর্বক্ষেত্রে বাংলা ভাষাকে বিস্তৃত করার অনুরোধ জানান। 

ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ এর উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবদুল মান্নান চৌধুরী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার পর থেকে যে বিভ্রান্তিগুলো ছিল তা আমরা এখন কাটিয়ে উঠতে পেরেছি। এখন শক্ত হয়ে দাঁড়াবার একটা সময় এসেছে। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা বিভাগ প্রবর্তনের জন্য উদ্যোগ নিয়েছিলাম কিন্তু আমাদের নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থার কাছ থেকে কোনও রকম সহযোগীতা আমরা পায়নি। তবে ভবিষ্যতে আমরা পাবো বলে আশা রাখছি। বাংলা ভাষার প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে সবাইকে উদ্বুদ্ধ হওয়ার অনুরোধ করেন তিনি। 

অনুষ্ঠানের প্রধান আলোচক রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান খান বলেন, পৃথিবীর কোনও অঞ্চলের মানুষেরই কিন্তু ভাষা ছাড়া চলে না। পৃথিবীর সকল ভাষাই গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের দেশের নাম বাংলাদেশ, আর আমাদের ভাষার নাম বাংলা ভাষা। কিন্তু দুঃখের বিষয় আমাদের সভা-সেমিনার, বক্তৃতা আয়োজন করতে হয় অন্য ভাষায়। আমাদের ভেবে দেখতে হবে বাংলা ভাষায় উচ্চ শিক্ষা বা পাঠদান দেওয়া সম্ভব নাকি সম্ভব না? এটা ভেবে দেখার সময় এসেছে। 

তিনি বলেন, বাংলা ভাষা বিকশিত হয়নি, আজ বাংলা ভাষার অবস্থা হয়েছে মরণদশা। ঢাকা শহরে একটু চোখ খুলে দেখতেই দেখতে পাবেন-বাংলা ভাষায় লেখা লেখা সাইনবোর্ডে কত ভুল, ব্যানার-ফেস্টুনে ভুল। এমনকি টেলিভিশনের স্ক্রলেও অসংখ্য ভুল। আমরা প্রাতিষ্ঠানিক সনদ অর্জন করাটাকেই মনে করি শিক্ষা অর্জন করা। কারণ আমাদের শিক্ষা অর্জনের উদ্দেশ্য হচ্ছে জীবিকা অর্জন। আমাদের শিক্ষার মূল অর্জন জ্ঞান অর্জন না হওয়ার কারণে আজকে বাংলা ভাষার এ অবস্থা। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ও প্রতিষ্ঠানের ইংরেজি নাম ব্যবহারের মানুষিকতা পরিহার করে বাংলা নাম ব্যবহারের পরামর্শ দেন অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান খান।

সেমিনারে ডীন, বিভাগীয় প্রধান, শিক্ষক ও বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।  

 

 

ট্যাগ: bdnewshour24 ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবদুল মান্নান চৌধুরী অধ্যাপক ড. আবদুল মান্নান চৌধুরী ড. আবদুল মান্নান চৌধুরী