banglanewspaper

শরীয়তপুর প্রতিনিধি: শরীয়তপুর জেলার নড়িয়া উপজেলার ডিঙ্গামানিক ইউনিয়নের থিরপাড়া গ্রামের আমানুল্লাহ বেপারী ছেলে ইতালী প্রবাসী আল-আমিন বেপারী (৩৮) ও একই ইউনিয়নের করন হোগলা গ্রামের করিম লস্করের ছেলে রাকিব লস্কর (২৪) নামে ২ জনের ওপর সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ডিঙ্গামানিক গ্রামস্থ রাজন চোকদারের মুদি দোকানের সামনে পাকা রাস্তায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আল-আমিন বেপারী বাদী হয়ে নড়িয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।

আহত আল-আমিন বেপারী বলেন, আমি ও আমার শ্যালক রাকিব লস্কর (২৪) ডিঙ্গামানিক গ্রামস্থ রাজন চোকদারের মুদি দোকানের সামনে পাকা রাস্তার ওপর দিয়ে নিজ বাড়ি যাওয়ার সময় ডিঙ্গামানিক গ্রামের আবুল মোড়লের ছেলে অলিল মোড়ল, দক্ষিণপাড়া গ্রামের জাহাঙ্গীর খানের ছেলে রাব্বি খান ও জাহিদ খান, ডিঙ্গামানিকের আরশাদুল খানের ছেলে রাজকু খান ও শাওন খান, পন্ডিতসার গ্রামের জসিম সহ ১০/১২ অজ্ঞাত সন্ত্রাসী ক্রিকেট খেলায় বিরোধকে কেন্দ্র করে আমাদের গালিগালাজ শুরু করে।

এ সময় রাকিব প্রতিবাদ করলে তাকে বাশের লাঠি ও লোহার রড় দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। আমি এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা আমার ওপর হামলা করে পিটিয়ে আমার হাতের হাড় ভেঙে ফেলে। এসময় আমার সঙ্গে থাকা বাড়ির কাজের জন্য ব্যাংক থেকে উত্তোলিত ২ লাখ টাকা ও গলায় থাকা ৫০ হাজার টাকা মূল্যের স্বর্নের চেইন এবং হাতে থাকা সাড়ে ১২ হাজার টাকা মূল্যের আরও একটি স্বর্নের চেইন নিয়ে যায়। এসময় আমাদের চিৎকার শুনে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা আমাদের প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে চলে যায়। পরে স্থানীয়রা আমাদের উদ্ধার করে নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এরপর কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য আমাদের ঢাকায় প্রেরণ করে। এ ব্যাপারে আমি ন্যায় বিচারের জন্য নড়িয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছি।

এ ব্যাপারে আহতের স্বজনরা বলেন, আমাদের পরিবারের সদস্যদের ওপর হামলা করেও সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে এলাকায় ঘুরে বেড়াচ্ছে। অবিলম্বে আইনের আওতায় এনে তাদের শাস্তি দাবি করছি।

অপর দিকে অভিযুক্তদের বক্তব্যের জন্য বারবার চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায় নি।

ট্যাগ: bdnewshour24 সন্ত্রাসী হামলা