banglanewspaper

আগামী ১ এপ্রিল এইচএসসি ও সমমানের যে পরীক্ষা হওয়ার কথা রয়েছে সে ব্যাপারে এখনই কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি শিক্ষা মন্ত্রণালয়। তবে পরিস্থিতি অনুযায়ী আরও কাছাকাছি সময়ে গিয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

সোমবার দুপুরে সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই কথা জানান।

দীপু মনি বলেন, ‘আমরা এখনই ১ এপ্রিল এইচএসসি পরীক্ষার ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত নিইনি। আমরা অবস্থা পর্যবেক্ষণ করছি। সতর্কতামূলক যা যা করার দরকার আমরা তাই করব।’

মন্ত্রী জানান, বৈশ্বিক ও দেশের পরিস্থিতি অনুযায়ী এই পাবলিক পরীক্ষার ব্যাপারে যথাযথ সিদ্ধান্ত নেবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। 

শিক্ষার্থীদের বাড়িতে থাকা নিশ্চিত করার তাগিদ

শিক্ষামন্ত্রী জানান, অভিভাবকসহ বিভিন্ন মহলের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান দুই সপ্তাহ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তবে শিক্ষার্থীরা যেন ছুটির দিনগুলোতে বাড়িতে থাকে সে বিষয়টি অভিভাবকদের নিশ্চিত করতে হবে।

দীপু মনি বলেন, ‘স্কুল-কলেজ বন্ধ মানে এই নয় যে সে সর্বত্র ঘুরে বেড়াতে পারবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করা হয়েছে সতর্কতামূলক ব্যবস্থার জন্য। যাতে সংক্রমণ না হয় তাই সেটি মাথায় রেখে অভিভাবকরা যেন ঘরেই রাখেন।’

শিক্ষার্থীরা ঘরে আছে কি না এ ব্যাপারে সরকার থেকেও পদক্ষেপ নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

বৈজ্ঞানিক গাইডলাইন মেনে চললে এই ধরনের সিদ্ধান্ত এখনো নেয়ার প্রয়োজন না থাকলেও শিক্ষক অভিভাবকসহ বিভিন্ন মহলের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানান মন্ত্রী।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে জনসমাগম ছাড়া শুধু বৃক্ষরোপণের কর্মসূচিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পালিত হবে বলে জানান শিক্ষামন্ত্রী।

মন্ত্রী জানান, সামনে গ্রীষ্ম ও রোজার ছুটি। পরিস্থিতি অন্যরকম হয়ে গেলে এই বন্ধের তালিকা দীর্ঘও হতে পারে।

স্বায়ত্তশাসিত বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে যারা এখনো পরীক্ষা নিচ্ছে তাদেরকেও ব্যাপারটি বিবেচনা করতে বলেন শিক্ষামন্ত্রী।

ট্যাগ: bdnewshour24 করোনা করোনা ভাইরাস