banglanewspaper

শিক্ষক-অভিভাবকসহ বিভিন্ন মহলের দাবির প্রেক্ষিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান দুই সপ্তাহের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হলেও করোনা নিয়ে পরিস্থিতি ভয়াবহ হলে দীর্ঘ হতে পারে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি।

সোমবার দুপুরে সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা.দীপু মনি। 

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতি বদলালে আবারো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হবে। তবে সামনেই যেহেতু রোজা এবং গ্রীষ্মের ছুটি রয়েছে যদি পরিস্থিতি অন্যরকম হয়ে যায় তাহলে এই বন্ধের সঙ্গে সেই বন্ধ জোড়া লেগে সময়টা দীর্ঘ হতে পারে।’

বৈজ্ঞানিক গাইডলাইন মেনে চললে এখনই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের দরকার না থাকলেও শিক্ষক অভিভাবকসহ বিভিন্ন মহলের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

গত ৩১ ডিসেম্বর চীন থেকে ছড়াতে শুরু করা নভেল করোনাভাইরাস ইতোমধ্যে প্রায় দেড়শ দেশে পৌঁছেছে। বিশ্বজুড়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করা প্রাণঘাতী এই ভাইরাসে এখন পর্যন্ত এক লাখ ৬৪ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ৬ হাজার ৪৭০ জন।

এই পরিস্থিতিতে অনেক দেশ সীমান্ত বন্ধ করে চলাফেরায় বিধিনিষেধ ও ভ্রমণ সতর্কতা জারি করেছে। বিদেশ ফেরতদের কোয়ারেন্টাইনে থাকার বাধ্যবাধকতা দেওয়া হয়েছে। 

ইউরোপ, আমেরিকার বিভিন্ন দেশের মত দক্ষিণ এশিয়ার দেশ শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তান এবং ভারতও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এক সম্পাহের বেশি সময় আগে ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথমবারের মত করোনাভাইরাস রোগী শনাক্ত হওয়ার পর এই নিয়ে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে আতঙ্ক বাড়তে শুরু করে। অনেকেই শিশুদের নিরাপত্তার স্বার্থে স্কুল বন্ধের দাবি তোলেন। তবে সরকারের তরফ থেকে এতদিন বলা হচ্ছিল, বাংলাদেশে এখনও সেই পরিস্থিতি হয়নি।

এর মধ্যে সোমবার আইইডিসিআরের ব্রিফিংয়ে বাংলাদেশে আরও তিনজনের মধ্যে নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ার কথা জানানো হয়। প্রায় একই সময়ে সচিবালয়ে ব্রিফিংয়ে এসে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত জানান শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। 

দীপু মনি বলেন, ‘শুধুমাত্র যাতে সুরক্ষিত থাকা যায় এই প্রেক্ষিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের ঘোষণা করা হয়েছে। শিক্ষক-অভিভাবক এবং মন্ত্রিপরিষদের সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সাময়িক বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।’

বিশ্বব্যাপী মহামারীরূপ নেয়া করোনা থেকে সুরক্ষিত থাকতে শিক্ষার্থীরা বেড়ানো কিংবা জনসমাগমে যাতে না যায় সেই বিষয়টি অভিভাবকদের নিশ্চিত করতেও জোর দিয়েছেন মন্ত্রী। 

দীপু মনি বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের দিনগুলোতে সব শিক্ষার্থীকে নিজ নিজ বাড়িতে থাকতে হবে। এ বিষয়টি অভিভাবকদের নিশ্চিত করতে হবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে আর শিক্ষার্থীরা বাইরে ঘোরাফেরা করবে- তা করা যাবে না।

ট্যাগ: bdnewshour24 করোনা