banglanewspaper

মজিবুর রহমান, কেন্দুয়া (নেত্রকোণা) প্রতিনিধি: নেত্রকোণার কেন্দুয়ায় বিদেশ ফেরত ব্যক্তিকে সালিশ বৈঠকে বসায় সালিশকারীদেরকে বাধ্যতামূলক হোম কোয়ারান্টাইনে থাকার নিদের্শনা দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। একই সাথে বিদেশ ফেরত জৈনক মোজাম্মেল হকে ২০ হাজার টাকা জরিমানাসহ হোম কোয়ারান্টাইনে থাকার নিদের্শনা দেন ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী হাকিম ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার আল-ইমরান রুহুল ইসলাম। 

শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার বিদ্যাবল্লভ বাজারে এ ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়। সূত্রে জানা যায়, উপজেলার গড়াডোবা ইউনিয়নের চিকনী গ্রামের জনৈক মোঃ মোজাম্মেল হক দুইদিন আগে সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফেরেন এবং সে অবাধে হাট- বাজারে ও এলাকার মানুষের সাথে মেলামেশা এবং স্থানীয়দের চা-নাস্তা খাওয়াচ্ছেন। শুক্রবার ১০টরি দিকে বিদ্যাবল্বভ বাজারের হাশেমের দোকান ঘরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের বিষয় নিয়ে সালিশ বৈঠক বসে।

ওই সালিশে সদ্য বিদেশ ফেরত মোজ্জাম্মেল হকে রাখেন সালিশকারীরা। এই বিষয়টি খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আল-ইমরান রুহুল ইসলাম ঘটনাস্থলে দ্রুত ছুটে যান এবং ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা বিদেশ ফেরত মোজ্জাম্মেল হকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা ও সালিশকারী প্রায় ৫০ জনকে বাধ্যতামূলক হোম কোয়ারান্টাইনে থাকার নিদের্শনা রায় প্রদান করেন।

এছাড়াও যারা মোজাম্মেল হকের সংস্পর্শে এসেছে তাদের তালিকা করে রায়ের বিষয়টি কার্যকর করার জন্য স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান বাবলুকে নিদের্শনা দেন আদালত। বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে ভ্রাম্যমান আদালতের নাজির আব্দুল বারী বলেন তাকে মোবাইল কোর্টের দন্ডবিধির ২৬৯ ও ২৯১ ধারায় ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ট্যাগ: bdnewshour24 হোম কোয়ারান্টাইন