banglanewspaper

করোনাভাইরাসের কারণে স্থবিরতা নেমে এসেছে বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনে। কোথাও নেই কোনো স্বীকৃত। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর এমন অবস্থা আর দেখেনি ক্রীড়াঙ্গন। খেলাধুলাবিহীন সময়ের পুরোটাই কাটাতে হচ্ছে গৃহবন্দী অবস্থায়।

এমতাবস্থায় নিজেদের মনোরঞ্জনের পাশাপাশি সবাইকে সচেতন করার লক্ষ্যে ‘স্টে এট হোম’ চ্যালেঞ্জ শুরু করেছেন লিওনেল মেসি, উসাইন বোল্ট, নেইমার জুনিয়ররা। যার অংশ হিসেবে টয়লেট পেপার নিয়ে নানান কারিকুরি করে সেগুলোর ভিডিও প্রকাশ করছেন ক্রীড়াবিদরা।

এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক বোলিং কোচ ইয়ান পন্ট। তিনি ‘স্টে এট হোম’ চ্যালেঞ্জ মানছেন পুরোপুরি। একইসঙ্গে সকলকে করোনাভাইরাস (নভেল কোভিড-১৯) এর ব্যাপারে সচেতন করার লক্ষ্যে বের করেছেন ‘কোভিড-১৯ একাদশ’।

পুরোপুরি মজার ছলে করা এই একাদশটিতে তিনি এমন এগারোজনের নাম খানিক ঘুরিয়ে ধরেছেন, যাদের নামের সঙ্গে মেলানো যায় করোনাভাইরাসের উপসর্গ। যেমন ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক মার্কাস ট্রেসকোথিকের নাম লিখেছেন ‘মার্কাস চেস্টোকফিক’। বুকে কফ জমা যে করোনার একটি উপসর্গ- তা বোঝানোর জন্যই এমনটা লিখেছেন পন্ট।

এমন করে আরও দশ ক্রিকেটারের নাম লিখেছেন ৫৮ বছর বয়সী এ ইংলিশ কোচ। সবচেয়ে মজার করে লিখেছেন নিউজিল্যান্ডের অলরাউন্ডার কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের নাম। যা বদলে রাখা হয়েছে কলিন ডি ‘স্টেএটহোম’।

এছাড়া মার্ক বাউচারকে মাস্ক বাউচার কিংবা কোর্টনি ওয়ালশের নাম লেখা হয়েছে কোর্টনি হ্যান্ড ওয়াশ হিসেবে। আর ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে বানিয়ে দিয়েছেন ভাইরাস কোহলি।


ইয়ান পন্টের কোভিড-১৯ একাদশ

১/ মার্কাস চেস্টোকফিক (মার্কাস ট্রেসকোথিক, ইংল্যান্ড)
২/ আইসোলেশন উল হক (ইনজামাম উল হক, পাকিস্তান)
৩/ ভাইরাস কোহলি (বিরাট কোহলি, ভারত)
৪/ অ্যালান ক্লোজড বর্ডার (অ্যালান বোর্ডার, অস্ট্রেলিয়া)
৫/ হানসি করোনযে (হানসি ক্রুনিয়ে, দক্ষিণ আফ্রিকা)
৬/ কলিন ডি স্টেএটহোম (কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম, নিউজিল্যান্ড))
৭/ ইউসেফ ডিসটেন্স (ইউসুফ পাঠান, ভারত)
৮/ মাস্ক বাউচার (মার্ক বাউচার, দক্ষিণ আফ্রিকা)
৯/ বিষেন স্টে ইন বেডি (বিষেন সিং বেদি, ভারত)
১০/ কোর্টনি হ্যান্ড ওয়াশ (কোর্টনি ওয়ালশ, ওয়েস্ট ইন্ডিজ)
১১/ কোয়ারেন্টিনো বেস্ট (টিনো বেস্ট, ওয়েস্ট ইন্ডিজ)

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে কোচিং করানোর বেশ ভালো অভিজ্ঞতাই রয়েছে পন্টের। ২০১০-১১ মৌসুমে তিনি প্রথমবারের মতো আসেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের বোলিং কোচ হিসেবে। এরপর ২০১২ ও ২০১৩ সালের বিপিএলে ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটরসের হেড কোচ ছিলেন পন্ট।

ট্যাগ: bdnewshour24 করোনাভাইরাস করোনা