banglanewspaper

হুবেই প্রদেশে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার কারণে আরোপ করা কঠোর বিধিনিষেধ বুধবার তুলে নিয়েছে চীন। দেশটির অভ্যন্তরে নতুন করে আর কেউ আক্রান্ত না হওয়ায় দীর্ঘ এক মাসের লকডাউনের পর তারা এ নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলো।

তবে জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন জানায়, দেশটিতে বিদেশ থেকে আসা আরও ৪৭ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এদিকে দেশে বিদেশ থেকে আসা লোকের আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, চীনে বিদেশ থেকে আসা মোট ৪৭৪ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এদের অধিকাংশই চীনের নাগরিক। তারা বিদেশ থেকে দেশে ফিরেছে।

বুধবার স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জানান, চীনে করোনাভাইরাসে আরো ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ৩ জনই হুবেই প্রদেশের বাসিন্দা। গতবছরের শেষের দিকে সেখানে প্রথম করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়।

চীন মঙ্গলবার হুবেই প্রদেশে জনগণের চলাচলে আরোপ করা লকডাউন তুলে নেয়ার ঘোষণা দেয়। প্রদেশটিতে ৫ কোটিরও বেশি জনসংখ্যা রয়েছে। ফলে সুস্থ থাকলে এখন থেকে বাসিন্দারা চলাচলের সুযোগ পাবে। এছাড়া সেখানের কতিপয় বিমানবন্দর ও রেল স্টেশন খুলে দেয়া হয়েছে।

আগামি ৮ এপ্রিল থেকে উহান নগরীর বাসিন্দারা চলাচলের সুযোগ পাবেন। চীনের এ নগরীতেই প্রথম এ ভাইরাস ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে।

হুবেই প্রদেশ গত জানুয়ারী মাসে শাটডাউনের ঘোষণা দিলেও পরে করোনাভাইরাসে আত্রান্তের সংখ্যা হ্রাস পাওয়ায় পর্যায়ক্রমে তারা মানুষ চলাচলে বিধিনিষেধ শিথিল করে এবং সাম্প্রতিক দিনগুলিতে লোকজন তাদের কর্মে ফিরে যায়।

তবে দেশটির শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো এখনও বন্ধ রয়েছে।

চীনে করোনাভাইরাসে ৮১ হাজার ২০০ লোক আক্রান্ত এবং ৩ হাজার ২৮১ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত মাস থেকেই চীনে করোনাভাইরাসে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা নাটকীয়ভাবে কমে এসেছে।

ট্যাগ: bdnewshour24 করোনাভাইরাস