banglanewspaper

করোনা সংক্রমণ এড়াতে সারা বিশ্ব একরকম লকডাউন। উদ্দেশ্য একটাই হিউম্যান চেইন সিস্টেম বন্ধ করা। নিঃসন্দেহে মিলেছে সুফল। তবে সংক্রমণ থেকে সহজে রেহাই নেই ধূমপানকারীদের। মদে আসক্তদেরও নেই ছাড়।

ধূমপান বা মদ্যপানকারীদের কোভিড ১৯ সংক্রমণের ভয় রয়েই যাচ্ছে। যার ফলে সংক্রামিত হতে পারে অন্যান্যরাও। ভয়ংকর এই ভাইরাস ঠেকাতে চিকিৎসকরা বারবার বলেছেন, কোনও কিছু খাবার আগে বা হাত মুখে দেওয়ার আগে ভালো করে সাবান বা স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কার করতে। 

শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এমন খাবার খেতে বলা হয়েছে। কোনও পুষ্টি নেই এমন খাবার এড়িয়ে যাওয়ার কথা বলা হয়েছে।

শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা নষ্ট করে ধূমপান। সিগারেট খাওয়ার আগে বারবার হাত ধোওয়া হয় না। এদিকে মারাত্মক এই ভাইরাস বাতাসে বহমান না হলেও ৩ ঘণ্টা পর্যন্ত জীবিত থাকতে পারে। মুখ থেকে লালারস বেরালেও তা থেকে ছড়িয়ে পড়তে পারে সংক্রমণ।



ধূমপানের ফলে নিজের সঙ্গে ক্ষতি হয় অন্যদেরও। আশেপাশের মানুষেরও থেকে যায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা।

গুজব ছড়িয়েছে মদ্যপান করলে মারাত্মক এই ভাইরাস থেকে রেহাই পাওয়া যায়। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, এই ধারণা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। মদ্যপানেও শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায়। ফলে কোভিড–১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত হতেই পারেন মদ্যপানকারী ব্যক্তি।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে সতর্ক করে বলা হয়েছে, করোনা ঠেকাতে ধূমপান ও মদ্যপান থেকে দূরে থাকতে। সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, চীনে করোনায় আক্রান্তদের মধ্যে একটি বড় অংশ ধূমপানে আসক্ত।



অন্যান্যদের চেয়ে চিকিৎসায় তাদের ফল ভালো নয়। তাই করোনা রুখতে পুষ্টিযুক্ত খাবার খাওয়া ও সব সময় পানি পান করতে বলছেন চিকিৎসকরা। সেই সঙ্গে সিগারেট ও মদ ছাড়তেও বলা হয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24