banglanewspaper

অবশেষে সকল দলের সর্বসম্মতিক্রমে পাশ হলো ৮২ বিলিয়ন ডলারের করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত বিল । গত মঙ্গলবার দিনভর আলোচনা শেষে বুধবার ভোর রাতে হাউজ অব কমন্সের বিশেষ অধিবেশনে অনুমোদন পেল দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর প্রস্তাবিত ৮২ বিলিয়ন ডলারের ‘কোভিড-১৯’ এইড প্যাকেজ। আগের দিন নানা বিতর্কের পর বিরোধী দলের জোর আপত্তি উত্থাপন এবং প্রতিবাদের মুখে বিল পাস বাতিল হয়ে যায়।

তবে সিদ্ধান্ত হয়েছে, এ বছরের ৩০ মার্চ থেকে ১৫ দিন অন্তর অর্থমন্ত্রী বিল মনরো করোনাভাইরাস সংক্রান্ত গৃহীত পদক্ষেপের বিবরণী পার্লামেন্টের পরবর্তী ২০ এপ্রিলের অধিবেশন থেকে দেয়া শুরু করবেন। একই সঙ্গে ‘কোভিড-১৯ ইমার্জেন্সি রেসপন্স অ্যাক্ট’-এর অধীনে বিলটি ‘রয়্যাল অ্যাসেন্ট’ বা রাজকীয় অনুমতি প্রাপ্তির দিন থেকে ছয় মাসের মধ্যে সংসদীয় অর্থ কমিটি তাদের অনুসন্ধানে উদ্ঘাটিত বিষয়াবলী আগামী বছরের ৩১ মার্চের অধিবেশনে তুলে ধরবে।

বুধবার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে কনজারভেটিভ নেতা অ্যান্ড্রু শিয়ার বলেন, গত সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী ট্রুডো প্রস্তাবিত ওই বিলের ক্ষেত্রে তার দলের কোনোই আপত্তি ছিল না, তবে তারা প্রায় দু-বছর ধরে ওই বিলের আওতায় ব্যয় ও করারোপের ক্ষেত্রে সরকারকে কোনো ‘ব্লাঙ্কচেক’ দিতে রাজি হননি, যা প্রারম্ভিকভাবে ওই বিলের খসড়ায় সন্নিবেশ করে অনুলিপি আকারে সোমবার তাদের প্রদান করা হয়। তিনি আরও বলেন, ‘কানাডিয়ানরা আমাদের দিকে তাকিয়ে আছে। তাই তাতে ক্ষমতা প্রদান মুখ্য বিষয় হতে পারে না।’

ট্যাগ: bdnewshour24 করোনা