banglanewspaper

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় মাদকের চালান নিয়ে অনুপ্রবেশের সময় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যদের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ৩ রোহিঙ্গা মাদক পাচারকারী নিহত হয়েছে। আহত হয়েছেন আরও ৩ জন বিজিবি সদস্য। ঘটনাস্থল থেকে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা, অস্ত্র ও বুলেট উদ্ধার করা হয়েছে।

শুক্রবার মধ্যরাতে টেকনাফ ২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের আওতাধীন লেদা বিওপির ছুরিখাল পয়েন্ট দিয়ে মাদকের চালান আসার গোপন খবরে অভিযানে নামে বিজিবির একটি বিশেষ টহল দল। দলটি পোস্টের অদূরে কৌশলী অবস্থান নেয়।

কিছুক্ষণ পরই ৫-৬ জন লোক একটি কাঠের নৌকাযোগে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশ ভূখণ্ডে অনুপ্রবেশের চেষ্টাকালে বিজিবি জওয়ানরা তাদের চ্যালেঞ্জ করে। তখন নৌকা থেকে নেমে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকালে বিজিবি ধাওয়া দেয়। এবার পাচারকারীরা বিজিবিকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। তাতে নায়েক মঞ্জুর রহমান, সিপাহী খোরশেদ ও মাহমুদুল হাসান আহত হন।

এর পর আত্মরক্ষার্থে বিজিবিও পাল্টা গুলি ছোড়া শুরু করে। এক পর্যায়ে ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালিয়ে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তিনজনসহ ইয়াবার বস্তা, দুটি দেশীয় তৈরি বন্দুক, দুই রাউন্ড তাজা কার্তুজ, খালি খোসা ও কিরিচ উদ্ধার করে বিজিবি সদস্যরা।

গুলিবিদ্ধ তিনজনকে প্রথমে চিকিৎসার জন্য টেকনাফ উপজেলা হাসপাতালে পরে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

মৃতদেহগুলো ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। 

এ ব্যাপারে তদন্ত সাপেক্ষে মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছেন টেকনাফ ২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সাল হাসান খান (পিএসসি)।

ট্যাগ: bdnewshour24