banglanewspaper

বাংলাদেশে নতুন করে নভেল করোনাভাইরাসের কোনো রোগী শনাক্ত হয়নি। এছাড়া সুস্থ হয়েছেন আরও চারজন।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে কারও মৃত্যু বা আক্রান্তের তথ্য না আসায় আক্রান্তের সংখ্যা ৪৮ এবং মৃতের সংখ্যা আগের মতই পাঁচজন আছে বলে জানিয়েছে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট- আইইডিসিআর।

ইনস্টিটিউটের শনিবার দুপুরে এক ভার্চুয়াল ব্রিফিংয়ে করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিস্থিতি তুলে ধরেন প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

সেব্রিনা বলেন, নতুন করে কারো শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত করা হয়নি। সুতরাং গতকাল পর্যন্ত যে ৪৮ জনের শরীরে করোনা শনাক্তের কথা বলা হয়েছিল সংখ্যাটা তাই আছে। এছাড়া আক্রান্তের মধ্যে আরও চারজন সুস্থ হয়েছেন। সবমিলিয়ে মোট ১৫ জন করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হলেন।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরের শেষ দিন চীনের উহান শহরে প্রথমে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এরপর সেখানে ভয়াবহ আকার ধারণ করে ভাইরাসটি।

উহান থেকে ভাইরাসটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে। ইতোমধ্যে ১৯৮টির মতো দেশ ও অঞ্চলে ভয়াবহ আকার ধারণ করে ভাইরাসটি। এসব দেশ ও অঞ্চলে ইতোমধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয় ২৭ হাজারেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আর আক্রান্তের সংখ্যাও প্রায় ছয় লাখ।

গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। সেদিন তিনজনের শরীরে করোনা শনাক্ত করা হয়েছে বলে জানায় আইইডিসিআর। এরপর আরও ৪৮ জনের শরীরে করোনা পাওয়া যায়। তাদের মধ্যে পাঁচজন মারা যায়।

গত ২৪ ঘণ্টার দেশে নতুন করে আর কারো শরীরে করোনা শনাক্ত হয়নি বলে তথ্য জানানো হয় আইইডিসিআরের পক্ষ থেকে।

সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, এখন পর্যন্ত যারা সুস্থ হয়েছেন তাদের মধ্যে নয়জন পুরুষ এবং ছয়জন নারী।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ৯০ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ৪৭ জন।

ঢাকার বাহিরে চট্টগ্রামেও করোনা পরীক্ষা করা যাবে বলে জানান সেব্রিনা।

ট্যাগ: bdnewshour24