banglanewspaper

বেনাপোল প্রতিনিধি : করোনার কারণে সব দোকান পাট বন্ধ থাকলেও বেনাপোলের ছোট আঁচড়া রেললাইন মোড়ে রিপন নামে ব্যক্তির চায়ের দোকান ২৪ ঘন্টা খোলা রাখার অভিযোগ উঠেছে। এতে জনমনে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। সরকার ঘোষিত ছুটির কারণে বেনাপোল এলাকার সব দোকানপাট বন্ধ থাকলেও, উক্ত দোকান খোলা থাকায় ওই দোকানে সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত মানুষের ভিড় লক্ষ্য করা যায়। এতে যদি সেখানে কোন করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি প্রবেশ করে তাহলে তা ভয়াবহ রুপ নিতে পারে বলে এলাকাবাসী অভিযোগ করেছে। 

এলাকাবাসীরা জানান, ছোট আঁচড়ার এ মোড়টা গ্রামের ভিতরে হওয়ায় স্বাভাবিক ভাবে এখানে মানুষের আনাগোনা অনেক বেশি। যে কারণে এমন জনবহুল এলাকায় করোনা আতঙ্কে সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত দোকান খোলা রাখা সত্যি একটা রিস্কের ব্যাপার। রিপন নামে ব্যক্তি নিজেকে পুলিশের সোর্স পরিচয় দিয়ে এখানে দীর্ঘদিন যাবত মাদকের ব্যবসা এবং এই করোনা আতঙ্কেও স্বগর্বে দোকানদারি করে যাচ্ছে। পুলিশ সোর্স বিধায় সব দোকানে প্রশাসন অভিযান চালালেও তার দোকান থেকে যাচ্ছে ধরা ছোঁয়ার বাইরে। অনেক সময় দেখা যায় তার দোকানের সামনে পুলিশের পিক্যাপ রেখে পুলিশকে তার দোকানে আড্ডা দিতে। এলাকার অন্য কোন দোকানদার দোকান খুললে সে পুলিশকে খবর দিয়ে দোকান বন্ধ করিয়ে দেয়। তাহলে আইন সবার জন্য সমান হলে তার দোকান কেন খোলা থাকবে প্রশ্ন তাদের।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক গ্রামবাসী জানান, এখানে অনেক ঘনবসতি। আশেপাশে কয়েকটি স্কুলও রয়েছে, করোনার কারণে সেগুলো বন্ধ। কিন্তু রিপনের চায়ের দোকান অনেক রাত অবধি খোলা থাকে। এ দোকানে দিনে রিপনের স্ত্রী ও রাতে রিপন দোকানদারি করে। প্রশাসন সকল চায়ের দোকানের সামনের চেয়ার, বেঞ্চ সরিয়ে দিলেও পুলিশ ঐ দোকানের বেঞ্চ উল্টে দেয়নি। বরং প্রতি রাতে পোর্ট থানা পুলিশের পিক্যাপ ভ্যান ঐ চা দোকানের সামনে রেখে চা খাচ্ছে। দোকানের পিছনে একটি বড় খাট, পাশে লম্বা বেঞ্চ ও কয়েকটি প্লাস্টিকের চেয়ার আছে। চারিপাশ বাঁশের চটার রেলিং করে ঘেরা। সামনে রেলিং এর দরজা ঠেলে ২৪ ঘন্টা দোকানদারি করছে। এতে এলাকাবাসী আতঙ্কগ্রস্থ বলে তিনি জানান। 

সবার দোকান বন্ধ তার মধ্যে পুলিশের সোর্স পরিচয়ে একজন দোকান খুলছে, এক জায়গায় দুই নিয়ম চালু থাকায় জনমনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।                   

শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পুলক কুমার মন্ডল সাংবাদিকদের বলেন, আমি থানার ওসির সঙ্গে আলাপ করে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

ট্যাগ: bdnewshour24