banglanewspaper

কিছুদিন ধরে ‘বড়লোকের বিটি লো’র গানের লাইনের সঙ্গে পাঞ্জাবি শব্দ জুড়ে বাদশার ‘গেন্দা ফুল’ মিউজিক ভিডিও নিয়ে বিতর্ক তুঙ্গে। গানটির মূল সৃষ্টা, বীরভূমের লোকশিল্পী রতন কাহারের নাম না ব্যবহার করা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রশ্ন তোলেন অনেকেই।

রতন কাহার বাবু নিজেও জানান, ‘বড়লোকের বিটি লো’ গানটি তার লেখা এবং গানের সুরও তার করা। এছাড়াও বিভিন্ন মাধ্যমে বিষয়টি নিয়ে লেখালিখি হয়। এই বিতর্কের খবর বাদশার কানেও পৌঁছায়। আর এরপরই মঙ্গলবার রাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় লাইভ ভিডিওতে আসেন গায়ক বাদশা নিজেই। এমনকি নিজের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলেও তিনি তার বক্তব্য তুলে ধরেন।

বাদশা বলেন, ‘গেন্দা ফুল গানটি প্রকাশ করার পর একটি বিতর্ক তৈরি হয়েছে। বিশেষ করে সোশ্যাল মিডিয়াতে। ভিডিওতে আমি বাংলা লোকসংগীতের দুটো লাইন ব্যবহার করেছি। যেটা আমি বাংলা লোকসংগীত বলেই জানতাম। পরে জানতে পারি, গানটি লিখেছেন একজন বিখ্যাত এবং বর্ষীয়ান বাঙালি লোকশিল্পী রতন কাহার। এরপর আমি এর আগে এই গানের ওপর প্রকাশিত ভিডিগুলো খুঁজে দেখি, সেখানে কোথাও রতন কাহারের নাম উল্লেখ ছিল না। যে আর্টিস্ট সোসাইটি রয়েছে, সেখানে আমি খোঁজ নিই। সেখানেও ওনার নাম আমরা পাইনি। কিন্তু তারপরেও বিভিন্ন লোকজনের মাধ্যমে আমরা জানতে পারি এই গানটি রতন কাহারের। আমি নিজে পাঞ্জাবি। যেমন আমাদের একটা সুন্দর সংস্কৃতি আছে, তেমন বাঙালিদেরও রয়েছে। আমি সব রকম সংস্কৃতিকেই শ্রদ্ধা করি। এক শিল্পী হিসাবেও আরেকজন শিল্পীকে সম্মান করি। জেনেশুনে আমি এই ভুলটি করিনি।’

ট্যাগ: bdnewshour24