banglanewspaper

একদিনেই প্রায় ৬ হাজার মৃত্যু দেখলো বিশ্ব। ফ্রান্সে ২৪ ঘণ্টায় ১৩৫৫ জন মারা গেল। মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৬০ হাজার। করোনা ভাইরাসের মারণ ছোবলে কবির ভাষায় বিশ্বের দেশে দেশে এখন ‘মৃত্যুর নগ্ন নৃত্য’ চলছে। 

যুক্তরাষ্ট্রের জনস হপকিনস বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী, গতকাল একদিনে ৯ ঘণ্টার জরিপে দেখা গেছে, বিশ্বে প্রতি মিনিটে এখন ৫০ জন আক্রান্ত হচ্ছেন। আর মিনিটে মারা যাচ্ছেন ৪ জন। 

এদিকে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকায় সিঙ্গাপুরে এক মাসের লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। লকডাউনে বিধ্বস্ত স্পেনের অর্থনীতি। স্পেনে ইতোমধ্যে কর্মহীন হয়ে পড়েছেন প্রায় ১০ লাখ লোক। 

বিবিসি, এএফপি ও রয়টার্সসহ আন্তর্জাতিক শীর্ষ সংবাদমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হচ্ছে, করোনা ভাইরাস সংক্রমণের কেন্দ্রস্থল এখনও ইউরোপ। যদিও ধীরে ধীরে সেই কেন্দ্রস্থল হয়ে উঠছে যুক্তরাষ্ট্র। মৃত মানুষের সংখ্যার দিক থেকে প্রথম দুটি দেশই ইউরোপের। সবার ওপরে আছে ইতালি, তারপর স্পেন। এরপর রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।



বাংলাদেশ সময় শুক্রবার রাত সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ওয়ার্ল্ডওমিটারসের তথ্য অনুযায়ী- ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে আক্রান্ত হয়েছে ৬৬ হাজার ৫ জন। আর মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১০ লাখ ৮১ হাজার ৭০ জন। বিশ্বে মোট সুস্থ হয়েছে ২ লাখ ২৭ হাজার ৬৮৫ জন। ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে ৪ হাজার ৯৫৬ জন মারা গেছে। আর বিশ্বে মোট মারা গেছে ৫৮ হাজার ১২৩ জন। 

গত ২৪ ঘণ্টায় ৭৬৬ জনের মৃত্যু হয়েছে ইতালিতে। দেশটিতে মোট মৃত্যু হয়েছে ১৪ হাজার ৬৮১ জনের। স্পেনে ২৪ ঘণ্টায় ৫৮৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। মোট মৃত্যু হয়েছে ১০ হাজার ৯৩৫ জনের।

যুক্তরাষ্ট্রে শুক্রবার ৭৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। মোট মৃত্যু হয়েছে ৬ হাজার ৭৯৯ জনের। মৃতের সংখ্যার দিক থেকে চতুর্থ স্থানে রয়েছে ফ্রান্স। দেশটিতে মোট ৬ হাজার ৫০৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। দেশটিতে শুক্রবার একদিনেই ১৩৫৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

করো রোগী সনাক্তের সংখ্যার দিক দিয়ে এখনও শীর্ষস্থানে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এখন পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছে ২ লাখ ৬৬ হাজার ১৯১ জন। এরপরই আছে ইতালি, দেশটিতে আক্রান্ত ১ লাখ ১৯ হাজার ৮২৭ জন। স্পেনে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১ লাখ ১৭ হাজার ৭১০ জন, জার্মানিতে ৮৯ হাজার ৮৩৮ জন, চীনে ৮১ হাজার ৬২০ জন, ফ্রান্সে ৬৪ হাজার ৩৩৮ জন এবং ইরানে ৫৩ হাজার ১৮৩ জন।

সুস্থ হওয়ার সংখ্যায় সবার ওপরে রয়েছে চীন। চীনে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৭৬ হাজার ৫৭১ জন। স্পেনে সুস্থ হয়েছেন ৩০ হাজার ৫১৩ জন। জার্মানিতে ২৪ হাজার ৫৭৫ জন, ইতালিতে ১৮ হাজার ৭৫৮ ও ইরানেসুস্থ হয়েছেন ১৭ হাজার ৯৩৫ জন।

এদিকে আমাদের প্রতিবেশী দেশ ভারতে এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছে ৭২ জনের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার রাত সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ভারতে মোট করোনা রোগীর সংখ্যা ২ হাজার ৫৬৭ জন। পাকিস্তানে করোনায় এখন পর্যন্ত ৪০ মারা গেছে। মোট আক্রান্ত হয়েছে ২ হাজার ৬৩৭ জন।

ট্যাগ: bdnewshour24