banglanewspaper

করোনা ভাইরাসে বিপর্যস্ত ব্রিটেন। দেশটির চলমান পরিস্থিতি সামালাতে হিমশিম অবস্থা। যা দিনদিন আরও অবনতি হচ্ছে। ক্রমাগত বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছে ৮৮১ জন। এ নিয়ে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭ হাজার ৯৭৮ জন।  
 
এদিকে আক্রান্তের সংখ্যায় ব্রিটেন আট নম্বরে। সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা ৬৫ হাজার ৭৭ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছে ৪ হাজার ৩৪৪ জন। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে ১৩৫ জন। 
 
এছাড়া ব্রিটেনে বর্তমানে ৫৬ হাজার ৯৬৪ জন আক্রান্ত রয়েছে। তাদের মধ্যে ৫৫ হাজার ৪০৫ জন চিকিৎসাধীন, যাদের অবস্থা স্থিতিশীল। বাকি ১ হাজার ৫৫৯ জনের অবস্থা গুরুতর, যাদের অধিকাংশই আইসিউতে রয়েছে।
 
এদিকে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর স্বেচ্ছা আইসোলেশনে ছিলেন। কিন্তু তার মধ্যে করোনার লক্ষণ ব্যাপক আকারে দেখা দেয়ার রবিবার রাতে তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে অবস্থার অবনতি ঘটায় তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়েছে।
 
সেন্ট্রাল লন্ডনের সেন্ট থমাস হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ব্রিটিশ এই প্রধানমন্ত্রীর অবস্থা স্থিতিশীল আছে বলে জানিয়েছে ১০ নং ডাউনিং স্ট্রিট। তবে তাকে এখনও ভেন্টিলেটর দেয়ার দরকার হয়নি বলে জানানো হয়েছে। দেশটির এই সঙ্কটে ভারপ্রাপ্ত প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডমিনিক রাব।
 
বুধবার (৮ এপ্রিল) বিকেলে ব্রিটিশ অর্থমন্ত্রী ঋষি শৌনাক এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, বরিস জনসন হাসপাতালের বিছানায় উঠে বসছেন। প্রধানমন্ত্রী মেডিক্যাল কর্মীদের সঙ্গে ইতিবাচক সাড়া দিচ্ছেন।



ঋষি শৌনাক জানান, প্রধানমন্ত্রী চমৎকার সেবা পাচ্ছেন। তিনি বলেন, ‘হাসপাতালের সর্বশেষ খবর অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী আইসিইউতে রয়েছেন। সেখানে তার অবস্থার উন্নতি হচ্ছ।’ তিনি বলেন, ‘আমি আপনাদের বলতে পারি তিনি বিছানায় উঠে বসেছেন এবং চিকিৎসাকর্মীদের সঙ্গে ইতিবাচক সাড়া দিচ্ছেন।’ অর্থমন্ত্রী ঋষি শৌনাক

উল্লেখ্য, চীনের উহান শহর থেকে তিন মাস আগে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব হয়। কিন্তু এখনও নিয়ন্ত্রণের লক্ষণ দৃশ্যমান নয়। ইতোমধ্যে করোনায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে সারাবিশ্ব। শুধু গত ২৪ ঘণ্টায়ই বিশ্বজুড়ে এতে ৭ হাজার ২৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯৫ হাজার ৬৯২ জন।

এছাড়া বিশ্বজুড়ে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৬ লাখ ৩ হাজার ৭৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছে ৮৫ হাজার ১০ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে ৩ লাখ ৫৬ হাজার ৩৩৭ জন। 
 
সবমিলিয়ে, বর্তমানে ১১ লাখ ৫১ হাজার ২৮১ জন আক্রান্ত রয়েছে। তাদের মধ্যে ১১ লাখ ২ হাজার ১৫৪ জন চিকিৎসাধীন, যাদের অবস্থা স্থিতিশীল। আর ৪৯ হাজার ১২৭ জনের অবস্থা গুরুতর, যাদের অধিকাংশই আইসিউতে রয়েছে।

ট্যাগ: bdnewshour24