banglanewspaper

নাগরপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার সহবতপুর ইউনিয়নের নন্দপাড়া গ্রামের ২১ বছরের এক যুবকের শরীরে করোনা ভাইরাসের জীবানু পাওয়া গিয়েছে আজ।

এতে করে উপজেলায় মোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা হল ৩ জন। টাঙ্গাইল জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা হলো ১০ জন।

আজ শুক্রবার ১৭ এপ্রিল ২০২০ রাত অনুমানিক ১১.১৫ মিনিটে নাগরপুরে তৃতীয় করোনা রোগী সনাক্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হয় প্রশাসন ও উপজেলা প.প কর্মকর্তা। সদর হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়,উপজেলার সহবতপুর ইউনিয়নের নন্দপাড়ার গ্রামের ২১ বছর বয়সী এই ব্যক্তির নমুনায় আইইডিসিআর এর পরিক্ষায় পজিটিভ রিপোর্ট আসে। নাগরপুর সদর হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, আজ মোট ৩ জন সন্দেহভাজদের নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআর এ প্রেরন করা হলে এতে ২১ বছর বয়সী নন্দপাড়ার এক পুরুষ রোগীর নমুনায়  পজিটিভ রিপোর্ট আসে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায় আক্রান্ত ২১ বছর বয়সী এই যুবকটি এরিস্টোফার্মা ওষুধ কোম্পানির ফ্যাক্টরীতে চাকুরী করতেন। গত শুক্রবার সে বাড়িতে আসে। ভূঞাপুরে যে রোগী করোনা আক্রান্ত হয়ে শনাক্ত হয়েছে সে তার সহকর্মী ছিল এবং একই জায়গায় চাকুরী করতো।

এর আগে ১২ ও ১৪ এপ্রিল ২০২০ তারিখে আইইডিসিআর এর রিপোর্ট হাতে পেয়ে উপজেলা প.প. কর্মকর্তা মো. রোকুনুজ্জামান খান উপজেলার প্রথম ও দ্বিতীয় রোগীদের করোনা আক্রান্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
মোবাইল ফোনে নাগরপুর উপজেলা প.প. কর্মকর্তা মো. রোকুনুজ্জামান খান এর সাথে কথা বল্লে আইইডিসিআর এর রিপোর্টের ভিত্তিতে তিনি আজকের তৃতীয় আক্রান্ত রোগীর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এ ঘটনায় আজ রাতেই প্রশাসন ঐ এলাকার ৩০ টি বাড়ি লক ডাউন ঘোষণা করে আরো নমুনা সংগ্রহ করার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, করোনা আক্রান্ত রোগীটির নমুনাটি নাগরপুর উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে থেকে পাঠানো হয়েছিল। আমাদের নাগরপুর থেকে পাঠানো ৩ টি নমুনার মধ্যে একটি নমুনায় পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে।

সকলের উদ্দেশ্য তিনি আরও বলেন, সরকারের নির্দেশনা ও স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলুন। এর কোন বিকল্প নেই। তাই সবাই ঘরে থাকুন। আসুন সবাই ঘরে থেকে সরকারের নির্দেশনা মেনে করোনা মোকাবিলা করি।

ট্যাগ: bdnewshour24