banglanewspaper

করোনা ভাইরাসে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে খাবার সংকটে পড়েছে নিম্ন আয়ের মানুষ। অসহায় মানুষের মুখে খাবার তুলে দিতে নিরসলভাবে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। সরকারি সহযোগিতা ছাড়াও ব্যক্তিগত উদ্যোগে ত্রাণ তহবিল গঠন করে সামর্থ্যবানদের সহায়তার হাত বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

এ আহ্বানে সাড়া দিয়ে জমানো টাকাসহ মাটির ব্যাংক নিয়ে মেয়রের কাছে হাজির হয়েছে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র রাফসান আরাফাত। স্কুল ছাত্রের এই কাজে অভিভূত মেয়র। নগরীর ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের রামচন্দ্রপুর কালুর মিস্ত্রির মোড়ের বাসিন্দা আরাফাত রুবেল ও আলিয়া রুপি দম্পতির সন্তান।

রবিবার বিকেল সাড়ে তিনটায় বাবাকে নিয়ে নগর ভবনে যায় রাফসান। অসহায় মানুষের সহযোগিতায় ত্রাণ তহবিলের জন্য সিটি মেয়র লিটনের হাতে জমানো টাকাসহ মাটির ব্যাংকটি তুলে দেয়। এই কাজ হৃদয় ছুঁয়ে যায় মেয়রের, তার মাথায় হাত রেখে দোয়া করেন, মাটির ব্যাংকটি নিজের টেবিলে রেখে দেন।

রাফসান মেয়রকে জানান, সে দুই বছর ধরে তার মাটির ব্যাংকে টাকা জমায়। বাবা-মা, নানা-নানি, খালাসহ অন্যান্য আত্মীয়-স্বজনরা বিভিন্ন দিবস ও ঈদ উপলক্ষ্যে যে অর্থ দেয়, তার মধ্যে কিছু অর্থ সে তার মাটির ব্যাংকে জমা রাখে। করোনা পরিস্থিতে গরিব মানুষ খাবার পাচ্ছে না, টিভিতে খবর দেখে অসহায় মানুষদের খাবারের জন্যে এই অর্থ দিয়েছে।

রাফসানের পিতা আরাফাত রুবেল বলেন, রাজশাহীর অসহায় সকল মানুষের ঘরে ঘরে খাদ্য সহায়তা দিতে আপ্রাণ প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন মেয়র। সমাজের সামর্থবান মানুষদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন।বিষয়টি আমরা পরিবারে আলোচনাকালে রাফসান তার মাটির ব্যাংকে জমানো আনুমানিক সাড়ে ৩ থেকে ৪ হাজার টাকা দিতে চায়। ছেলের উৎসাহে তাকে নিয়ে নগর ভবনে হাজির আসি।

মেয়র বলেন, অসহায় মানুষদের সহায়তার আহ্বানে অনেকেই এগিয়ে আসছেন। আজ স্কুলছাত্রের রাফসানের মাটির ব্যাংক নিয়ে আসার ঘটনা আমার হৃদয় ছুয়ে গেছে। এটি মানবিকতার এক দৃষ্টান্ত ও বার্তা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিম্ন আয়ের মানুষদের জন্য খাদ্য সহায়তা দিচ্ছেন। রাজশাহীতে বিত্তবানদের সহায়তায় ব্যক্তিগত উদ্যোগে মানুষকে সহায়তা করছি।

ট্যাগ: bdnewshour24