banglanewspaper

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিজ হাতে গুলি করে হত্যা করা খুনি রিসালদার মোসলেউদ্দিন ভারতে আটক হওয়ার পর তাকে বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। 

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে এমন দাবি করে বলা হয়েছে, গত সোমবার সন্ধ্যায় কোনও একটি সীমান্তের স্থলবন্দর দিয়ে মোসলেউদ্দিনকে বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। জানা গেছে, বঙ্গবন্ধুর খুনি মোসলেউদ্দিন পশ্চিমবঙ্গের বনগাঁওয়ে এটি হারবাল ওষুধের দোকান চালাতেন। সেখানেই ভারতীয় বিশেষ সংস্থা অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে।

গেল ফেব্রুয়ারিতে ভারতে আটক হন বঙ্গবন্ধুর আরেক আত্মস্বীকৃত খুনি আব্দুল মাজেদ। গত ১২ এপ্রিল রাত ১২টা ১ মিনিটে মাজেদের ফাঁসি কার্যকর করা হয়। ফাঁসি কার্যকরের আগে তার কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতেই মোসলেউদ্দিনকে আটক করা হয় বলে জানানো হয় এনডিটিভির প্রতিবেদনে।

খবরে বলা হয়, মোসলেউদ্দিনকে আটকে বিশেষ সংস্থার অভিযান বিষয়ে কিছুই জানা ছিল না কলকাতা পুলিশের। যদিও ভারত কিংবা বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে মোসলেউদ্দিনকে আটক কিংবা তাকে বাংলাদেশের হস্তান্তরের ব্যাপারে এখনও কিছু বলা হয়নি।

ইতোমধ্যে বঙ্গবন্ধু হত্যার ১২ আসামির মধ্যে ৬ আসামির ফাঁসি কার্যকর হয়েছে। এর মধ্যে ২০১০ সালে ৫ আসামির ফাঁসি কার্যকর হয়। সবশেষ ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর খুনি মাজেদের। মোসলেউদ্দিন আটক হয়ে থাকলে মুজিব হত্যার সঙ্গে জড়িত আরও ৪ খুনি পলাতক থাকলেন। তারা হলেন- খন্দকার আব্দুর রশীদ, শরিফুল হক ডালিম, নূর চৌধুরী ও এএম রাশেদ চৌধুরী। এরমধ্যে ২০০২ সালে জিম্বাবুয়েতে আজিজ পাশা নামে এক খুনির মৃত্যু হয়। 

ট্যাগ: bdnewshour24