banglanewspaper

চারিদিকে যখন মৃত্যুর হাহাকার, সেখানেই আসার দীপ জ্বালিয়ে তুলল খুদে এক শিশু। সম্প্রতি ইতালিতে ১০৩ বছরের এক বৃদ্ধা করোনাকে জয় করে ঘরে ফিরেছেন। বিশ্ব তালিকায় এখনো পর্যন্ত এটাই সবচেয়ে বেশি বয়সী কোনও করোনা আক্রান্তের সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরা। 

এবার করোনাকে হারিয়ে রেকর্ড গড়ল বিশ্বের সবচেয়ে কম বয়সী এক সদ্যোজাত।

ঘটনা থাইল্যান্ডের। জানা গেছে ক্রমাগতভাবে এই দেশে বাড়তে থাকা করোনায় চিন্তায় রয়েছে সরকার। এরই মাঝে সেখানে জন্মের পরই কোন ভাইরাসে আক্রান্ত হয় সদ্যোজাত। ওই শিশুকে বাঁচানো সম্ভব কিনা তা নিয়ে শঙ্কা একটা ছিলই। তবে রীতিমতো চ্যালেঞ্জ নিয়ে ওই শিশুকে বাঁচাতে উঠে পড়ে লাগেন ডাক্তাররা। তারই সুফল মিললো এদিন। 

জানা গেছে দীর্ঘ চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে উঠেছে ওই সদ্যোজাত। যে শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ওই শিশুর চিকিৎসা করেছেন তার দাবি অনুযায়ী, শিশুটিকে করোনা থেকে মুক্ত করতে চারটি অ্যান্টিভাইরাস ওষুধের প্রয়োগ করেছিলেন তিনি। ভালো রকম কাজ দেয় ওষুধগুলি। যার জেরেই এখন বিপদমুক্ত পৃথিবীর ক্ষুদ্রতম করোনা আক্রান্ত।

ব্যাংককের বামরাসনারাদুরা সংক্রামক রোগ ইনস্টিটিউটের ওই চিকিৎসক বলেন, জন্মের পরই করো না আক্রান্ত হয় বাচ্চাটিকে নিয়ে দুশ্চিন্তা ছিলই। তবে দশ দিন ওষুধ খাওয়ানোর পর ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠতে থাকে শিশুটি। এখন পুরোপুরি করোনামুক্ত সে। 

ট্যাগ: bdnewshour24